default-image
>

কাল ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে ২-২ গোলে ড্র করেছে ম্যানচেস্টার সিটি। শিরোপাদৌড়ে আরেকটু পিছিয়ে গেল পেপ গার্দিওলার দল

ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলার জন্মদিন ছিল কাল। কোচের জন্মদিনকে জয় দিয়ে রাঙাতে পারতেন তাঁর শিষ্যরা। কিন্তু কীসের কী! ব্রাজিল তারকা মিডফিল্ডার ফার্নান্দিনহোর শেষ মুহূর্তের আত্মঘাতী গোলে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে ২-২ গোলের ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে সিটিকে।

এই প্যালেসকে ঘরের মাঠে হারাতে যেন ভুলেই গেছে সিটি! গত মৌসুমেও ঘরের মাঠে প্যালেসের কাছে ৩-২ গোলে হেরেছিল সিটি। এবার না হারলেও জয়ও জোটেনি কপালে। প্রথম থেকেই প্যালেসের ডিফেন্ডাররা বুঝিয়ে দেন গোল করাটা এত সহজ হবে না আগুয়েরো-ডি ব্রুইনিয়াদের জন্য। উল্টো এ মাসেই ধারে এভারটন থেকে প্যালেসে যোগ দেওয়া তুর্কি স্ট্রাইকার চেঙ্ক টোসুনের গোলে এগিয়ে যায় লন্ডনের ক্লাবটি। ৩৯ মিনিটের ওই গোলে এগিয়ে থেকেই প্রথমার্ধের বিরতিতে যায় দুই দল।

বিরতিতে স্বাভাবিকভাবেই গার্দিওলা হয়তো খেলোয়াড়দের বেশ করে বকে দিয়েছেন, পয়েন্ট টেবিলের নিচু সারির দলের সঙ্গে নিজেদের মাটিতে দিশেহারা খেলার জন্য। দ্বিতীয়ার্ধ থেকেই প্যালেসকে চেপে ধরেছিলেন সিটির খেলোয়াড়েরা। কিন্তু পরম আরাধ্য গোলটাই আসছিল না। এর মধ্যে ডি-বক্সে প্যালেসের ডাচ ডিফেন্ডার হাইরো রাইডেওয়াল্ডের হাতে বল লাগলে পেনাল্টি পায় সিটি। কিন্তু বাধ সাধে ‘ভিএআর’। ভিডিও রিপ্লেতে দেখা যায়, রাইডেওয়াল্ডের হ্যান্ডবল ইচ্ছাকৃত ছিল না। বেঁচে যায় প্যালেস। গোলের আশায় স্প্যানিশ মিডফিল্ডার ডেভিড সিলভাকে নামিয়ে সার্জিও আগুয়েরোর পাশাপাশি আরেক স্ট্রাইকার, ব্রাজিলের গ্যাব্রিয়েল জেসুসকে মাঠে নামান গার্দিওলা। ফলটাও পেয়ে যান হাতেনাতে।

জেসুসের মাপা ক্রসের নাগাল একটুর জন্য পাননি প্যালেসের ইংলিশ ডিফেন্ডার গ্যারি কাহিল। পেছনে ওত পেতে থাকা আগুয়েরোর পায়ে চলে যায় বল দুর্দান্ত শটে গোল করতে ভোলেননি আর্জেন্টিনার এ স্ট্রাইকার। এ গোল করে সিটির জার্সিতে ২৫০ গোল করার রেকর্ড গড়েন আগুয়েরো। নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার আগে গোটা ম্যাচে দুর্দান্ত খেলা সিটির ফরাসি লেফটব্যাক বেঞ্জামিন মেন্ডির ক্রসে হেড করে দলকে এগিয়েও দেন আগুয়েরো। এ গোল নিয়েই জিতে যাবে সিটি, এমন মনে হলেও একদম শেষ মুহূর্তে বাধ সাধেন সিটিরই খেলোয়াড়!

প্যালেসের উইঙ্গার উইলফ্রেড জাহার ক্রস সামলাতে না পেরে নিজেদের জালেই বল ঠেলে দেন গার্দিওলার বহু দিনের পোড় খাওয়া সৈনিক, ব্রাজিলের মিডফিল্ডার ফার্নান্দিনহো। ফলে ২-২ গোলের ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় সিটিতে, আর গার্দিওলার জন্মদিনের উৎসবটাও এভাবেই ভেস্তে যায়। ভেস্তে যায় আগুয়েরোর ২৫০ গোল, সিটির জার্সি গায়ে ডেভিড সিলভার ৩০০ তম ম্যাচ, এসব উপলক্ষের উৎসবগুলোও।

কোচিং ক্যারিয়ারে এর আগে কোনো দলের কোচ হিসেবে কখনো এত বাজে শুরু করেননি গার্দিওলা। শীর্ষে থাকা লিভারপুলের চেয়ে এখনই ১৬ পয়েন্টে পিছিয়ে আছে সিটি। আজ নিজেদের মাঠে লিভারপুল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে হারিয়ে দিলে পয়েন্টের ব্যবধানটা দাঁড়াবে ১৯-এ!

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0