default-image

শুরুর সেই গোলের ধাক্কা কাটিয়ে টিমো ভেরনার চেলসিকে সমতায় ফেরান ১৭ মিনিটে। কিন্তু স্মিথ রোয়ের গোলে আবার এগিয়ে যায় আর্সেনাল। ৩২ মিনিটে চেলসিকে আবার সমতায় ফেরান আজপিলিকেতা। কিন্তু ৫৭ মিনিটে কেতিয়াহর দ্বিতীয় গোলের সঙ্গে যোগ করা সময়ে সাকার পেনাল্টি গোল মিলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আর্সেনাল।

default-image

ম্যাচ শেষে চেলসি কোচ টুখেল হারের দায় চাপালেন মাঠের ওপর, ‘আমাকে বলতেই হচ্ছে এই মাঠে খেলাটা খুব কঠিন। এটাকে আপনাদের কাছে অজুহাত মনে হতে পারে। কিন্তু সত্যি এটাই যে আমাদের মাঠটা আসলেই খুব কঠিন। এটা আমাদের সুবিধা দেয় না। বল এখানে বেশি বাউন্স করে।’ ক্রিস্টিয়েনসেনের ব্যাক–পাসের ভুলটিও এ কারণেই হয়েছে বলে মনে করেন টুখেল, ‘আন্দ্রেয়াসের সামনেও বল খুব বাজেভাবে বাউন্স করেছিল।’

তা যে কারণেই চেলসি হারুক না কেন, এই হারে শীর্ষ চারে থেকে লিগ শেষ করার আশায় বড় একটা ধাক্কাই খেয়েছে তারা। ৩১ ম্যাচে ৬২ পয়েন্ট নিয়ে এই মুহূর্তে চেলসি তৃতীয় স্থানেই আছে। কিন্তু টটেনহাম ও আর্সেনাল তাদের ওপর চাপ তৈরি করে যাচ্ছে। ৩২ ম্যাচ খেলে ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে টটেনহাম আছে চতুর্থ স্থানে। সমান ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে আর্সেনালের অবস্থান পঞ্চমে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন