১৩ মিনিটের মধ্যে জেমি ভার্ডির জোড়া গোলে পিছিয়ে পড়েছিল লিভারপুল। ১৯ মিনিটে অ্যালেক্স অক্সলেড-চেম্বারলিনের গোলে ব্যবধান কমায় ক্লপের দল। কিন্তু ৩৩ মিনিটে জেমস ম্যাডিসনের রকেটগতির শট থেকে করা গোলে আবারও ২ গোলের ব্যবধানে পিছিয়ে পড়ে লিভারপুল। ৪৫ মিনিটে বদলি হয়ে মাঠে নামা পর্তুগিজ তারকা জোতা লিভারপুলের খেলায় প্রাণ ফেরান। ৬৮ মিনিটে মিনামিনোর পাস থেকে গোল করেন তিনি। যোগ করা সময়ের ৫ মিনিটের মাথায় লিভারপুলের সমতাসূচক গোলটি জাপানের উইঙ্গার মিনোমিনোর। টাইব্রেকারে মিনামিনো অবশ্য হতাশ করেছেন। লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি। কিন্তু লিভারপুল গোলকিপার কাইওমিন কেলেহের টাইব্রেকারে দুটি সেভ করে লিভারপুলকে বিপদ থেকে বাঁচান।

default-image

টটেনহামের বিপক্ষে রোববার ২-২ গোলে ড্র করা ম্যাচের একাদশে ১০টি পরিবর্তন এনে লিগ কাপ কোয়ার্টার ফাইনালে দল মাঠে নামান লিভারপুল কোচ ক্লপ। শুধু টেলর মরটনই এ ম্যাচের একাদশে ঠাঁই পান। শেষ পর্যন্ত জয় তুলে নিতে পেরে খুশি ক্লপ, ‘আমি সত্যিই খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সে খুব খুশি হয়েছি। ম্যাচের কিছু মুহূর্ত আমায় আনন্দ দিয়েছে।’ অন্য ম্যাচে ওয়েস্ট হাম ইউনাইটেডকে ২-১ গোলে হারিয়ে লিগ কাপের সেমিতে উঠে আসে টটেনহাম। ব্রেন্টফোর্ডকে ২-০ গোলে হারায় চেলসি।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন