default-image

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের অবস্থার সর্বশেষ ব্যাখ্যায় পাকেতা অবশ্য বলেছেন, ‘সব ঠিকঠাকই আছে। তবে ভবিষ্যতে আঙুল নাড়াচাড়ায় যাতে কোনো সমস্যা না হয়, সেটির জন্য আগামীকাল ছোট্ট একটা অস্ত্রোপচার করাব।’

এরপর অবশ্য ঘুড়ি ওড়ানোর মতো শিশুতোষ একটা খেলা নিয়েও সবাইকে সতর্ক করে দিয়েছেন পাকেতা, ‘এটা মনে রাখবেন, শিশুদের খেলাও বিপদ-আপদ ডেকে আনতে পারে। আমি আজ একটা ঘুড়ি ওড়াচ্ছিলাম, সেখান থেকেই আঙুল কেটে গেছে।’

পাকেতার এই চোটে পড়া অবশ্য লিওঁকে কিছুটা দুশ্চিন্তায় ফেলতে পারে। আগামী সপ্তাহ থেকেই প্রাক্‌-মৌসুম প্রস্তুতি শুরু করতে যাচ্ছে লিওঁ, তবে পাকেতা অস্ত্রোপচার শেষে পুরো সুস্থ হয়ে ফিরতে ফিরতে আরেকটু সময় লাগবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অবশ্য মৌসুমে পাকেতা লিওঁতে থাকবেনই কি না, এ নিয়ে সংশয় আছে। ফরাসি ক্লাবটির সঙ্গে তাঁর চুক্তি ২০২৫ সাল পর্যন্ত, কিন্তু আরও বড় ক্লাবে যেতে ইচ্ছুক পাকেতা চুক্তি নবায়নে রাজি হচ্ছেন না। এমন অবস্থায় ব্রাজিলিয়ান প্লেমেকারকে পেতে আগ্রহী ক্লাবের সংখ্যা কম নয়। সবচেয়ে বেশি জোরে শোনা যায় অবশ্য সৌদি আরবের মালিকানাধীন হওয়ার পর টাকার বস্তা নিয়ে দলবদলে নামতে ইচ্ছুক ইংলিশ ক্লাব নিউক্যাসলের নাম। এসি মিলান, লিভারপুলের মতো ক্লাবের নাম জড়িয়ে গুঞ্জনও মাঝেমধ্যে বাতাসে ভাসে।

সেপ্টেম্বরের আগে জাতীয় দলের ম্যাচ নেই বলে ব্রাজিল অবশ্য এই মুহূর্তে পাকেতার চোট নিয়ে ভাবছে না। পাকেতার চোটটা ভয়ংকর হলে বা চোট সারাতে বেশি সময় লাগলে যে নেইমারের নতুন সঙ্গী খুঁজতে হতো ব্রাজিল কোচ তিতেকে!

ব্রাজিল দলে নেইমারের জার্সি ১০, তাঁর ১১। নেইমারের সঙ্গে মাঝমাঠের সমন্বয়ের সবচেয়ে বড় দায়িত্বটা তাঁর কাঁধেই থাকে। মাঠের মতো মাঠের বাইরেও নেইমারের প্রকৃত সহযোদ্ধা লুকাস পাকেতা। নেইমারকে নিয়ে সমালোচনার জবাবে যে সব সময়ই সরব লিওঁ মিডফিল্ডার।

default-image

কয়েক মাস আগে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোতে পিএসজি রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে বাদ পড়ায় পিএসজির সমর্থকেরা নেইমারকে দুয়ো দিয়েছিলেন, তখন পাকেতা কথা বলেন নেইমারের পক্ষে। মনে করিয়ে দিয়েছিলেন, সেই ম্যাচের আগে নেইমার মাত্রই চোট সারিয়ে উঠেছিলেন। নেইমার মাতাল হয়ে অনুশীলনে যান—ফরাসি সংবাদমাধ্যমে এমন খবরের কড়া সমালোচনায় বলেছিলেন, এসব ‘ভুয়া খবর’ নেইমারের প্রতি ‘ভীষণ অসম্মানজনক।’

অবশ্য নেইমারও তো প্রয়োজনে পাকেতার পাশেই দাঁড়ান। গত মৌসুমে লিগে ত্রয়ার বিপক্ষে ম্যাচে পায়ের ঝলকে বল প্রতিপক্ষের মাথার ওপর দিয়ে গিয়েছিলেন পাকেতা, কিন্তু ‘প্রতিপক্ষকে অসম্মান দেখানো’র দায়ে হলুদ কার্ড দেখতে হয় তাঁকে। নেইমার তখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লিখেছিলেন, ‘জোগা বোনিতো (সুন্দর ফুটবল) শেষ হয়ে গেছে।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন