বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

‘ম্যাচ বাই ম্যাচ’ জিতে এগিয়ে যাওয়ার স্বপ্ন জামালের। দেশ ছাড়ার আগে আজ আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘শেষ কয়েক দিন আমরা কঠোর পরিশ্রম করেছি। খেলোয়াড়েরা নিজেদের সেরাটা দিতে চায়। আমরা আত্মবিশ্বাসী। আমাদের লক্ষ্য চ্যাম্পিয়ন হওয়া। আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ জিতে ফাইনালে যেতে চাই। আমরা সবাই আত্মবিশ্বাসী এবং আশা করি, এই টুর্নামেন্ট থেকে কিছু সাফল্য নিয়ে আসতে পারব।’

default-image

২০১৩ সালে নেপালে অনুষ্ঠিত সাফে প্রথমবারের মতো খেলেন জামাল। ব্যক্তিগতভাবে এবার চতুর্থবারের মতো খেলতে যাচ্ছেন তিনি। প্রতিপক্ষ দলগুলো সম্পর্কে জামালের মূল্যায়ন, ‘প্রথম ম্যাচ যেহেতু শ্রীলঙ্কার সঙ্গে, তাই আমাদের মূল প্রতিদ্বন্দ্বী এখন শ্রীলঙ্কা। ভারত র‍্যাঙ্কিং হিসাবে ফেবারিট। প্রথম ম্যাচে তিন পয়েন্ট পেলে ভালো শুরু হবে। ভারতের সঙ্গে না হারলেই ভালো।’

অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে দলের দায়িত্ব নিয়েছেন অস্কার ব্রুজোন। এখন পর্যন্ত মাত্র তিন দিন অনুশীলন করিয়েছেন তিনি। নতুন কোচের পরিকল্পনার সঙ্গে মানিয়ে নিতে কষ্ট হচ্ছে না বলে জানান জামাল, ‘কোচ শুরুর দিনেই পরিষ্কার করে দিয়েছেন, আমরা কীভাবে খেলব বা কীভাবে খেলতে চাই। প্লেয়ারদের কাছ থেকে কী চান, সেটাও পরিষ্কার করে দিয়েছেন। এটা আসলেই গুরুত্বপূর্ণ। অস্কারের কৌশলের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সমস্যা হচ্ছে না। তিনি যে কৌশলে খেলান, লিগে অনেকেই সেভাবে খেলেছে। তাই মনে করি, কোনো সমস্যা হবে না।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন