বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ মৌসুমের শুরুতেই যা টের পেয়েছে বার্সেলোনা। মেসির চুক্তি শেষ হয়ে যেতে দিয়েছিল তারা। কারণ, তারা ধরেই নিয়েছিল, মেসি আবার নতুন করে চুক্তি করবেন। মেসি রাজিও হয়েছিলেন, আগের চুক্তির অর্ধেক বেতনেই। তবু মেসিকে ধরে রাখতে পারেনি বার্সেলোনা। কারণ, ধার করে মেসির বেতন দেওয়া সম্ভব হলেও কাগজে–কলমে যে সে ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছিল বার্সেলোনা! টানা দুই বছর আর্থিক ক্ষতির কারণে বার্সেলোনার এ মৌসুমের বেতনসীমা দাঁড়ায় মাত্র ৯ কোটি ৭০ লাখ ইউরোতে।

বর্তমান খেলোয়াড়দের ধরে রাখা সম্ভব হলেও মেসির চুক্তি শেষ হয়ে যাওয়ায়, মেসিকে নতুন একজন খেলোয়াড় হিসেবেই দেখা হচ্ছিল আইনে। আর বার্সেলোনার বেতনসীমার অনেক ওপরে থাকায় মেসিকে চুক্তিবদ্ধ করতে পারেনি বার্সেলোনা।

default-image

বার্সেলোনার ঝামেলা সেখানেই শেষ হয়নি। এ মৌসুমে দলবদলে দারুণ একটা কাজ করেছে বার্সেলোনা। অন্য ক্লাবে চুক্তি শেষ হয়ে গেছে, এমন খেলোয়াড়দের মুফতে দলে টেনেছে তারা। মেম্ফিস ডিপাই, সের্হি আগুয়েরো ও এরিক গার্সিয়াকে দলে টেনেও অবশ্য চুক্তিবদ্ধ করতে পারছিল না তারা। ওই যে বেতন সীমার ওপরে। ত্রিনকাও, এমারসনের মতো খেলোয়াড়দের বিক্রি করে, পিয়ানিচ ও গ্রিজমানদের ধারে পাঠিয়েছে বার্সেলোনা। ক্লাবের চার অধিনায়ক বেতন অর্ধেক করে, বেতনের খরচ কমিয়ে আনার পরই ডিপাই, আগুয়েরো, গার্সিয়াদের বার্সেলোনার খেলোয়াড় বলে মেনে নিয়েছে লা লিগা।

জানুয়ারির দলবদলেও একই ঘটনা ঘটতে চলেছে। এরই মধ্যে আগুয়েরো অবসর নিয়ে ফেলায় বেতন খরচ কিছুটা কমেছে। কিন্তু মৌসুমের মাঝপথে জাভি কোচ হয়ে এসেছেন। তাঁর সঙ্গী সহযোগী স্টাফ যোগ দিয়েছেন আরও কজন। আনসু ফাতি ও পেদ্রি চুক্তি নবায়ন করেছেন বেতন বাড়িয়ে। ফলে বার্সেলোনার বেতন আবারও নির্দিষ্ট সীমা ছাড়িয়ে গেছে। এখন তোরেসকে যত কম বেতনই দেওয়া হোক না কেন, তাঁকে চুক্তিবদ্ধ করতে দেবে না লা লিগার নিয়ম।

default-image

বার্সেলোনা এরই মধ্যে বেশ কিছু খেলোয়াড় বিক্রি করে ও ছেড়ে দিয়ে বোঝা কমাতে চাইছে। ধারে আসা ইউসুফ দেমির ও লুক ডি ইয়ংকে তাঁদের নিজ নিজ ক্লাবে ফেরত পাঠাচ্ছে তারা। ওদিকে সের্হিনিও দেস্ত, ফিলিপ কুতিনিও ও স্যামুয়েল উমতিতির মতো খেলোয়াড়দের বিক্রি করতে চাইছে বার্সেলোনা। বিশেষ করে দলে অপাঙ্‌ক্তেয় হয়ে ওঠা কুতিনিও, উমতিতিকে অন্য ক্লাবে পাঠাতে পারলেই বাঁচে দলতি। এ দুজন মিলেই ৩ কোটি ইউরো বেতন নেন বার্সেলোনায়!

উসমান দেম্বেলেকে নতুন চুক্তিতে বেতন কমিয়ে ভবিষ্যতে বোনাস বেশি দিয়েও চাপ কমাতে চাইছে বার্সেলোনা। এসব কিছু মিললেই তোরেসকে আনুষ্ঠানিকভাবে লা লিগায় চুক্তিবদ্ধ করতে পারবে বার্সেলোনা।

বার্সেলোনার জন্য ঝামেলা সৃষ্টি করছে লা লিগার একটি নির্দিষ্ট নিয়ম। বার্সেলোনার বেতন যেহেতু সীমা অতিক্রম করেছে, এখন খেলোয়াড় বিক্রি করে যত অর্থ আয় করবে বার্সেলোনা, তার পুরোটাই খেলোয়াড় কেনায় বা তাঁদের বেতনের পেছনে ব্যয় করতে পারবে না। নতুন আয়ের মাত্র ২৫ শতাংশ খরচের সুযোগ পাবে বার্সেলোনা। ফলে তোরেসকে বেতন হিসেবে যা দেবে বার্সেলোনা, তার চার গুণ অর্থ বের করে নিতে হবে; সেটা বেতন কমিয়ে হোক বা খেলোয়াড় ছেড়ে দিয়ে। আগামী কিছুদিন সেটা নিশ্চিত না করে তাই তোরেসকে লা লিগায় চুক্তিবদ্ধ করতে পারছে না বার্সেলোনা।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন