বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

স্কাই ইতালিয়াকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিজের অসন্তুষ্টির ব্যাপারে মোটেও রাখঢাক করেননি এই স্ট্রাইকার। আর এ অসন্তুষ্টির পেছনে আকারে-ইঙ্গিতে দলের জার্মান কোচ টমাস টুখেলকে দুষেছেন লুকাকু, ‘শারীরিকভাবে আমি বেশ ভালো আছি। আগের চেয়ে অনেক ভালো আছি। গত দুই বছর যখন আমি ইন্টারে ছিলাম, ওদের কোচ আর পুষ্টিবিদদের সঙ্গে কাজ করে নিজের উন্নতি করেছি। যে কারণে শারীরিকভাবে এখন অনেকটাই সুস্থ।’


শরীরের অবস্থা ভালো হলেও মন মোটেও ভালো নেই এই তারকার, ‘আমি আমার অবস্থা নিয়ে খুশি নই। কারণ, আমাদের প্রধান কোচ ভিন্ন একটা কৌশলে দলকে খেলান। তবে এটা স্বাভাবিক একটা ব্যাপার। আমাকে কঠোর পরিশ্রম করে যেতে হবে, আরও পেশাদার হতে হবে। হাল ছেড়ে দিলে চলবে না।’

default-image

নিজের সাবেক ক্লাব ইন্টার মিলান নিয়েও ভালোবাসা ঝরে পড়েছে তাঁর কথায়, ‘যেভাবে আমি ইন্টার ছেড়েছি, যেভাবে খবরটা ক্লাবের সমর্থকদের কাছে গিয়েছে, ব্যাপারটা মোটেও ভালো হয়নি। গোটা ব্যাপারটা যেভাবে হয়েছে, সেভাবে হওয়া ঠিক হয়নি। পুরো বিষয়টা আমাকে অনেক কষ্ট দেয়। কারণ ইন্টার ছাড়ার সঠিক সময় ছিল না সেটি।’


ইন্টারে আবারও ফেরার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন এই স্ট্রাইকার, ‘আমার মনে হয়েছে, এখন ব্যাপারটা খোলাসা করা দরকার। আমি সব সময় বলেছি, ইন্টার আমার হৃদয়ের ক্লাব। আমি অবশ্যই একদিন ইন্টারে ফেরত যাব খেলার জন্য। আমি আসলেই অমনটা আশা করি। আমি ইতালি দেশটাকে ভালোবাসি।’

ইন্টার–সমর্থকদের কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন এই ২৮ বছর বয়সী স্ট্রাইকার, ‘প্রথমে আমি ইন্টার–সমর্থকদের কাছ থেকে ক্ষমা চাই। কারণ, আমার মনে হয়েছে, আমি যেভাবে ক্লাব ছেড়েছি, সেটা ক্লাবের সমর্থকদের জন্য ভালো কিছু ছিল না। আমার উচিত ছিল আপনাদের (ইন্টার সমর্থক) সঙ্গে আগে কথা বলা। কারণ, আপনারা আমার জন্য অনেক কিছু করেছেন। আমার পরিবার, আমার মা, আমার সন্তানের জন্য অনেক কিছু করেছেন। আশা করব একদিন ইন্টারে ফেরার আরও অনেক কিছু জেতার জন্য।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন