বিজ্ঞাপন

সামনেই ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল। এরপর আছে ইউরোও, যে ইউরো ২০১৬ সালে হাতছোঁয়া দূরত্বে এসে যাওয়ার পরও ফ্রান্সের নাগালে আসেনি। এমন অবস্থায় কান্তের চোটে পড়া মানে ম্যাচের আগেই ব্যাকফুটে চলে যাওয়া। চেলসি বা ফ্রান্সের ভক্তরা ব্যাপারটা সহজে মেনে নেবেন কেন?

যা–ই হোক, শেষমেশ চেলসির কোচ টুখেলের কথাই স্বস্তি এসেছে চেলসি শিবিরে। জানা গেছে, চোটে পড়েননি কান্তে। তবে চোটে যেন না পড়েন, সে সতর্কতার অংশ হিসেবেই কান্তেকে মাঠ থেকে আগে তুলে নেওয়া হয়েছে গত রাতে, ‘এনগোলো চোটে পড়েনি। ও আমাকে বলেছে, আর আমি ফরাসি ভাষাটা একটু-আধটু বুঝি, যে ও চোটে পড়ার আগেই মাঠ থেকে বেরিয়ে এসেছে।’

কান্তের সম্ভাব্য চোটটা হামস্ট্রিংসংক্রান্ত ছিল বলে জানিয়েছেন টুখেল, ‘ওর হামস্ট্রিংয়ে একটু সমস্যা হচ্ছিল। তাই ওর চিন্তা হচ্ছিল ও খেলা চালিয়ে গেলে ও চোটে পড়বে। তাই ওকে উঠিয়ে নেওয়া হয়।’

কান্তে উঠে গেলেও গত রাতে ম্যাচ জিততে সমস্যা হয়নি চেলসির। দুদিন আগে যে লেস্টার সিটির বিপক্ষে এফএ কাপ ফাইনাল হেরেছিল তারা, সে লেস্টারের বিপক্ষেই গত রাতে ২-১ গোলে জিতেছে অল ব্লুজরা।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন