default-image

করোনাভাইরাস মহামারির বিরতি কাটিয়ে জাতীয় দলের ক্যাম্পের মাধ্যমে কাল থেকে শুরু হয়েছে ফুটবলের কার্যক্রম। কিন্তু কাল ফেরার দিনেই ধাক্কা খেয়েছে সেই অনুশীলন ক্যাম্প। প্রথম দিনে যে চারজনের করোনা ধরা পড়েছে। আজ এসেছে আরও দুঃসংবাদ, নতুন করে করোনা ধরা পড়েছে আরও সাত ফুটবলারের। দুই দিনে এ পর্যন্ত ২৪ জন ফুটবলারের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এঁদের ১১ জনই করোনায় আক্রান্ত।

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বকে সামনে রেখে শুরু হয়েছে অনুশীলন ক্যাম্প। জাতীয় দলের ক্যাম্পে ডাক পাওয়াদের মধ্যে কাল প্রথম দিনে করোনা ধরা পড়েছে দলের নিয়মিত মুখ বিশ্বনাথ ঘোষের। চারজনের মধ্যে বাকি তিনজন নতুন মুখ এম এস বাবলু, নাজমুল ইসলাম ও সুমন রেজা। আজ যে পাঁচজনের করোনা ধরা পড়েছে তাঁদের মধ্যে তিনজন আবাহনী লিমিটেডের, দুজন বসুন্ধরা কিংসের ফুটবলার। আবাহনীর তিনজন হলেন— মোহাম্মদ টুটুল হোসেন বাদশা, সোহেল রানা ও শহীদ আলম। বাকি চারজন বসুন্ধরার-আনিসুর রহমান জিকো, মোঃ রবিউল হাসান, মোহাম্মদ ইব্রাহিম ও সুশান্ত ত্রিপুরা।

সব মিলিয়ে তিন দফায় মোট ৩১ জন ফুটবলারের গাজীপুরের সারাহ রিসোর্টের ক্যাম্পে ওঠার কথা ছিল। কিন্তু প্রথম দুই দিনে ১১ জন ফুটবলার করোনা আক্রান্ত হওয়ায় স্বাভাবিকভাবে প্রশ্ন উঠে যায় নতুন কোনো খেলোয়াড় নেওয়া হবে কিনা? এ বিষয়ে এখনো কিছু জানা যায়নি। তবে এমন পরিস্থিতিতে খুব কঠোর ভাবে স্বাস্থ্যবিধির ওপর জোর দিতে হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের কোচ জেমি ডে।

৮ অক্টোবর সিলেটে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আবার বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব শুরু করবে বাংলাদেশ। কাল থেকে শুরু হওয়ার ক্যাম্পের প্রথম দুই সপ্তাহ অনুশীলন করানো হবে ছোট ছোট দলে। অর্থাৎ আফগানিস্তান ম্যাচের আগে মূল ধারার অনুশীলন করার সুযোগ থাকবে প্রায় ছয় সপ্তাহ। কিন্তু শুরুটাই হলো খারাপ অবস্থার মধ্যে দিয়ে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন