বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সাবেক কোচ ও ক্লাব কিংবদন্তি রোনাল্ড কোমান এ মৌসুমে বার্সেলোনাকে হতাশ করছিলেন, চ্যাম্পিয়নস লিগে গ্রুপে মূল দুই প্রতিপক্ষের কাছে হেরেছে বার্সেলোনা। লা লিগায় ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতা খেলার যোগ্য দলগুলোর বাইরে আছে বার্সা। একের পর এক হতাশামাখা পারফরম্যান্সের পর কোমানকে ছাঁটাই করেছেন লাপোর্তা। আর তাতেই বহুদিন ধরেই বার্সেলোনার কোচ হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে জাভির। মাসের শুরুতেই জাভির বার্সেলোনায় ফেরার কথা জানানো হয়েছে।

জাভির পর ফিরেছেন আলভেজ। রাইটব্যাক পজিশনে এই ব্রাজিলিয়ান বিদায় নেওয়ার পর তাঁর অভাব পূরণে কম চেষ্টা করেনি বার্সেলোনা। ক্লাবের একাডেমি থেকে বেড়ে ওঠা অগতির গতি সের্হি রবার্তো ছিলেন। এরপর নেলসন সেমেদো, সের্হিনিও দেস্তকে কেনে তারা। এমারসন রয়ালকে কিনে আবার বিক্রিও করে বার্সা। অস্কার মিনগেজাকে সেখানে খেলানো হয়েছে। কিন্তু দানি আলভেজের সৃষ্টিশীলতা ও রক্ষণের মিশেল কারও মধ্যেই পাওয়া যায়নি। তাই সাড়ে পাঁচ বছর পর আলভেজকেই আবার ফিরিয়ে এনেছে কাতালান ক্লাব।

default-image

এদিকে ২১ বছরের সম্পর্ক শেষ করতে বাধ্য হওয়া মেসি কিছুদিন আগেই ক্লাব ছেড়েছেন। ইনিয়েস্তা তো ২০১৮ সাল থেকেই জাপানের ভিসেল কোবেতে ঠাঁই নিয়েছেন। দানি আলভেজকে ক্লাবে বরণ করার অনুষ্ঠানে এসে লাপোর্তা সবাইকে এ দুজনের ব্যাপারেও আশাবাদী করে তুলেছেন, ‘আমি কোনো সম্ভাবনাই উড়িয়ে দিতে চাই না। দানির ক্ষেত্রে ঘটেছে—বয়স শুধুই একটা সংখ্যা। তাঁরা দুজন অসাধারণ খেলোয়াড়। ভবিষ্যতে কী ঘটতে পারে, সেটা বলতে পারব না। তাঁরা এখনো অন্য ক্লাবের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ এবং সেখানে খেলছেন। তবে জীবনে কখন কী ঘটে, কেউ বলতে পারে না।’

এদিকে পিএসজিতে এখনো নিজের সেরা রূপ দেখাতে পারেননি মেসি। দলে যোগ দেওয়ার পর চোট ও ফিটনেসের সমস্যা তাঁকে মাত্র আট ম্যাচে মাঠে নামতে দিয়েছে। নতুন ক্লাবে মানিয়ে নেওয়ার এই সময়টাতেও বার্সেলোনার প্রতি ভালোবাসা জানিয়েছেন মেসি।

গত মাসে এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, পিএসজির চুক্তি শেষ হলে বা এর পরে কোনো না কোনো সময় বার্সেলোনায় ফিরতে চান, ‘সব সময় বলেছি, আমি ক্লাবকে সাহায্য করতে পারলে খুশি হব। যদি কোনো সম্ভাবনা থাকে, আমি আবার অবদান রাখতে চাই। কারণ, এই ক্লাবকে আমি ভালোবাসি এবং এটা ভালো থাকুক, উন্নতি করুক এবং বিশ্বের সেরা ক্লাবের কাতারে থাকুক, এটাই চাই।’

ওদিকে বার্সেলোনায় ১৬ বছর কাটানো ইনিয়েস্তাও ক্লাবটিতে ফিরতে আগ্রহী। জাভির কোচ হওয়ার খবরে বলেছিলেন, ‘আমি জানি না ভবিষ্যতে কী ঘটবে, জীবনে কোনো এক সময় আমি বার্সেলোনায় ফিরতে চাই। কোন ভূমিকায়, সেটা জানি না। বার্সেলোনায়, আমার ঘরে আবার ফিরতে চাই, কোনো এক উপায়ে সাহায্য করতে চাই, কিন্তু ভবিষ্যতের কথা কে বলতে পারে!’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন