লিভারপুলের জার্মান কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ।
লিভারপুলের জার্মান কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ। ছবি: রয়টার্স

জার্মানির ভবিষ্যৎ কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ—এমন একটা কথা মাঝেমধ্যেই সংবাদমাধ্যমে শোনা যায়। ইদানীং আবার এটা বলাবলি করছেন অনেকেই। বিশেষ করে জার্মানি উয়েফা নেশনস লিগের ম্যাচে স্পেনের কাছে ৬–০ গোলে বিধস্ত হওয়ার পর। জার্মানির ফুটবল ফেডারেশন কোচ ইওয়াখিম লুভের প্রতি পুরো আস্থা রাখলেও লিভারপুল কোচ জার্মানির কোচ হতে পারেন, এমন ভাবনা ভাবছেন অনেকেই।

বরুসিয়া ডর্টমুন্ড ছেড়ে ক্লপ লিভারপুলের দায়িত্ব নিয়েছেন ২০১৫ সালে। জার্মান কোচ দায়িত্ব নেওয়ার পর যেন জেগে ওঠে অ্যানফিল্ডের ক্লাবটি। তাঁর অধীনে ২০১৯ সালে চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতে লিভারপুল। এর আগে ইউরোপের শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট সর্বশেষ তারা পরেছিল ২০০৫ সালে। গত মৌসুমে তিন দশক পর লিভারপুল জিতেছে প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা। সব মিলিয়ে ক্লপ নিজেকে পরিণত করেছেন সময়ের অন্যতম সেরা কোচে।

বিজ্ঞাপন
default-image

লিভারপুলে ক্লপের সাফল্যের কারণেই তাঁকে ঘিরে জার্মানির কোচ হওয়ার গুঞ্জন। তবে এখনই জার্মানির কোচ হওয়ার কোনো ইচ্ছা নেই বলে জানিয়েছেন ক্লপ, ‘আমি এই মুহূর্তে ভালো একটি চাকরি করছি। আমার মনে হয় এই প্রশ্নের উত্তরটা আমার মাঝেমধ্যেই দিতে হয়।’ এটা বলার পরই ক্লপ যোগ করেন, ‘এখন? নাহ্‌, জার্মানির কোচ হওয়ার সময় এই মুহূর্তে আমার হাতে নেই। ভবিষ্যতে কী হয় দেখা যাবে।’

কেন এই মুহূর্তে জার্মানির কোচ হতে চান না সেটা আরও বিশদভাবে ব্যাখ্যা করেছেন ক্লপ। লিভারপুলের জার্মান কোচের সেই ব্যাখ্যাটা এ রকম, ‘আমি ঠিক জানি না কেউ আমার বিষয়ে কোনো প্রস্তাব রেখেছে কি না। কিন্তু এখানে লিভারপুলে আমি দায়িত্বে আছি। এখানে আমার দায়িত্ব অনেক। এই মুহূর্তে নতুন কোনো চ্যালেঞ্জ নিতে চাই না। সকালে ঘুম থেকে জেগে ওঠার পর আমার যথেষ্ট চ্যালেঞ্জ নিতে হয়।’

লিভারপুলের সঙ্গে ক্লপের বর্তমান চুক্তির মেয়াদ ২০২৪ সাল পর্যন্ত। শিরোপা লড়াইয়ে লিভারপুলের অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানচেস্টার সিটির কোচ পেপ গার্দিওলা সম্প্রতি নতুন চুক্তি করেছেন। সেই চুক্তি অনুযায়ী ইতিহাদে ২০২৩ সাল পর্যন্ত থাকার কথা গার্দিওলার। ক্লপকে সাংবাদিকেরা গার্দিওলার নতুন চুক্তি সই করা নিয়েও প্রশ্ন করেছেন। এর উত্তরে জার্মান কোচ বলেছেন, ‘আমি এখানে আছি বলেই পেপ নতুন চুক্তি সই করেছে? বিষয়টি আমার ভালো লেগেছে!’

default-image

তবে সামনের কয়েক বছর প্রিমিয়ার লিগের লড়াইটা ক্লপ বনাম গার্দিওলা হবে না বলেই মনে করেন তিনি, ‘আমি খুশি যে পেপ নতুন চুক্তি সই করেছে। কিন্তু আমার মনে হয় আগামী কয়েক বছর লড়াইটা শুধু আমাদের দুজনের হবে না। ফ্রাঙ্ক (ল্যাম্পার্ড) চেলসিতে ভালো একটি দল গড়ছে। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এখন যেখানে আছে সেখানে তারা থাকবে। আর্সেনালও ভালো করবে।’ জোসে মরিনিওর টটেনহামকে নিয়েও উচ্ছ্বসিত ক্লপ, ‘টটেনহাম এ বছরই প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী। লেস্টারও অবশ্যই ভালো দল। উলভস যদি শতভাগ দিতে পারে তাহলে তারাও ভয়ংকর।’

সব মিলিয়ে ক্লপ মনে করেন আগামী কয়েক মৌসুম প্রিমিয়ার লিগে বেশ জমজমাট লড়াই হবে, ‘আমি প্রচুর ফুটবল দেখি। কে কী করছে আর কীভাবে একটু একটু করে এগোচ্ছে তা খেয়াল রাখি। এই সব দলগুলোর উঠে আসাটা আমাদের সবার জন্যই হুমকি।’ তবে ক্লপ সবচেয়ে খুশি গার্দিওলা আরও কিছুদিন প্রিমিয়ার লিগে থাকছেন বলে।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0