বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রেডিও স্টেশন ‘আরএমসি স্পোর্ত’-এর সংবাদকর্মী দানিয়েল রিওলো এর আগে লিওনেল মেসির পিএসজিতে যোগদানের খবর অনেকের আগেই জানিয়েছিলেন।

রিওলো নিশ্চিত, রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক কোচ জিদান মৌসুম শেষেই পিএসজি কোচের দায়িত্ব নেবেন। গত বছর দ্বিতীয় মেয়াদে রিয়ালের দায়িত্ব ছাড়েন ফরাসি ফুটবলের কিংবদন্তি জিদান। পিএসজি তাঁকে এখনই দায়িত্ব দেবে না। ক্লাবটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে পচেত্তিনোকে মৌসুম শেষ করার সুযোগ দেওয়া হবে।

default-image

রিওলো তাঁর পডকাস্ট ‘আফটার ফুট’-এ বলেছেন, ‘জুনের দিকে পিএসজির কোচ হবেন জিদান।’ অর্থাৎ তখন মেসি ও নেইমারদের কোচিং করাবেন ’৯৮ বিশ্বকাপজয়ী কিংবদন্তি। তবে তিনি কিলিয়ান এমবাপ্পেকে পাবেন কি না, তা নিয়ে এখনো সন্দেহ আছে।

যদিও রিওলো এমবাপ্পের কোচ হিসেবে জিদানকে দেখার সম্ভাবনা এখনই নাকচ করে দিতে রাজি না। এমবাপ্পে চাইলে এখন ক্লাব পাল্টাতে অন্য যেকোনো ক্লাবের সঙ্গে কথা বলতে পারেন। ফরাসি তারকার সঙ্গে রিয়ালের যোগসূত্রও নতুন না। স্প্যানিশ ক্লাবটি অনেক দিন ধরেই এমবাপ্পেকে কেনার চেষ্টা করছে।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘এএস’ জানিয়েছে, পিএসজি পরিচালক লিওনার্দোর সঙ্গে পচেত্তিনোর সম্পর্কটা ভালো না। গত বছর পিএসজি ছেড়ে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ হওয়ার চেষ্টা করেছিলেন পচেত্তিনো। আর্জেন্টাইন কোচের এমন আচরণ মেনে নিতে পারেননি লিওনার্দো। রাগটা তখন থেকেই।

এদিকে রালফ রাংনিককে মাত্র ছয় মাসের চুক্তিতে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে এনেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। অর্থাৎ মৌসুম শেষে ইউনাইটেড-পচেত্তিনো গুঞ্জন যে আবারও উঠবে, তা বলাই বাহুল্য। সে সময়টা মাথায় রেখেই পচেত্তিনোর জায়গায় জিদানকে আনতে চায় পিএসজি। তবে জিদানের সঙ্গে এ বিষয়ে যোগাযোগের খবর অস্বীকার করেছে পিএসজি।

তবে একটা সমস্যা আছে। মার্শেই জিদানের শৈশবের ক্লাব। এদিকে ফরাসি ফুটবলে পিএসজি-মার্শেই সব সময়ই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। জিদান কি শৈশবের ক্লাবের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের কোচের দায়িত্ব নেবেন—প্রশ্ন থেকেই যায়। গত মৌসুম শেষে রিয়ালের দায়িত্ব ছাড়ার পর অবসর সময় কাটাচ্ছেন জিদান।

তাঁর অনেক দিনের সহকারী কোচ ডেভিড বেত্তোনি বিইন স্পোর্টসকে বলেন, ‘আমরা সবাই জানি জিদান মার্শেইয়ের ছেলে। পিএসজির সঙ্গে মার্শেইয়ের প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিষয়টিও আমরা জানি। তাই বিষয়টি (জিদানের পিএসজি কোচ হওয়া) নির্ভর করছে জিদান নিজের পেশাকে কতটা গুরুত্ব দেন তার ওপর। সময় হলেই জানা যাবে।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন