ইউরোপ থেকে বিদায় নিয়েছে মরিনিওর দল।
ইউরোপ থেকে বিদায় নিয়েছে মরিনিওর দল।ছবি : রয়টার্স

প্রথম লেগের ম্যাচ হওয়ার আগেই এই ম্যাচটা নিয়ে উত্তেজনা শুরু হয়েছিল। সাধারণত নিজের দলের ম্যাচের আগে জোসে মরিনিও-ই বিভিন্ন কথা বলে বাজার গরম রাখেন। তবে এবার তাঁকে ‘বাজার গরম’ রাখার দায়িত্ব নিতে হয়নি। কাজটা করে দিয়েছেন প্রতিপক্ষের কোচ। ইউরোপা লিগের রাউন্ড অফ সিক্সটিনে খেলতে নামার আগেই জোসে মরিনিওর টটেনহাম জানতে পারে, প্রতিপক্ষ দিনামো জাগরেবের কোচ জোরান মামিচ জেলে যাচ্ছেন!

দিনামোর দলবদল তহবিলের টাকা তছরুপের অভিযোগ মামিচের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে চলছিল বিচার। চূড়ান্ত রায় না আসার কারণেই প্রথম লেগে ডাগ আউটে দাঁড়াতে পেরেছিলেন মামিচ। দেখেছিলেন দলের হার। হ্যারি কেনের জোড়া গোলে দিনামো জাগরেবকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল টটেনহাম। দ্বিতীয় লেগের আগে জেলে চলে যাওয়া এই কোচের কাছ থেকে দলের দায়িত্ব নিয়েছিলেন সহকারী কোচ দামির ক্রজনার। সেই ক্রজনারই মামিচের দেখিয়ে যাওয়া কৌশলে গত রাতে পেয়ে গেছেন ঐতিহাসিক এক জয়। নিজেদের মাঠে দ্বিতীয় লেগে ৩-০ গোলে জিতেছে ক্রোয়েশিয়ান ক্লাবটা। হ্যাটট্রিক করেছেন দলের ক্রোয়েশিয়ান ফরোয়ার্ড মিসলাভ অরসিচ। ফলে দুই লেগ মিলিয়ে ৩-২ গোলের অগ্রগামিতা নিয়ে পরের রাউন্ডে উঠে গেছে দিনামো জাগরেব। আর শূন্য হাতে ফিরেছেন মরিনিওরা।

বিজ্ঞাপন
default-image

ম্যাচের আগেই ক্রজনার জানিয়েছিলেন, মামিচের কৌশল থেকে সরে আসার ইচ্ছা নেই তাঁর। মামিচের সহকারী হিসেবে আট বছর কাজ করেছেন ক্রজনার, মামিচের কৌশল একরকম তাঁর নখদর্পণে, ‘আমরা ১৫ দিন ধরে এই ম্যাচের জন্য অপেক্ষা করছি। কৌশলগত ব্যাপারগুলো নিয়ে সর্বশেষ সিদ্ধান্ত হবে ম্যাচের আগের দিন। সাবেক কোচ মামিচ আমার মতোই চিন্তা করত, কারণ আমরা আট বছর ধরে একসঙ্গে কাজ করেছি।’ তাহলে বলাই যায়, মামিচের কৌশলেই খাবি খেয়েছেন জোসে মরিনিও!

আর দলের কৌশল বাস্তবায়ন করার জন্য সবচেয়ে বড় ভূমিকা রেখেছেন ২৮ বছর বয়সী ক্রোয়েশিয়ান ফরোয়ার্ড মিসলাভ অরসিচ। হ্যাটট্রিক করেছেন তিনি। ৬০ মিনিট পর্যন্ত নিরুপদ্রবে কাটলেও এরপরই যেন আড়মোড়া ভেঙে জেগে ওঠেন এই লেফট উইঙ্গার। আক্রমণভাগের বাঁ প্রান্তে বল পেয়ে কাটইন করে ঢুকে ডিবক্সের বাইরে থেকেই দুই স্পার্স ডিফেন্ডার সার্জ অরিয়ের ও ডেভিনসন সানচেজের মাথার ওপর দিয়ে দৃষ্টিনন্দনভাবে নিজের প্রথম গোলটা করেন অরসিচ। ৮২ মিনিটে দলের অধিনায়ক মিডফিল্ডার আরিয়েন আদেমি ও উইঙ্গার ইয়াই আতিয়েমওয়েনের গড়ে তোলা দুর্দান্ত এক আক্রমণে তুলির শেষ আঁচড় টেনে দেন অরসিচ। বক্সের মধ্যে টটেনহামের পাঁচজন খেলোয়াড় থাকলেও অরসিচকে মার্ক করার কাজটা কেউই করেননি। দুই লেগ মিলিয়ে সমতায় চলে আসে দিনামো। আর এভাবেই শেষ হয় মূল ম্যাচ।

default-image

অতিরিক্ত সময়ের ১৬ মিনিটে আবারও অরসিচ-ঝলক। মাঝমাঠের বাঁ প্রান্ত থেকে একদম নিজের প্রচেষ্টায় দৌড়ে এসে কয়েকজন খেলোয়াড়কে কাটিয়ে ডান পায়ের জোরালো শটে গোলকিপার উগো লরিসকে পরাস্ত করে নিজের তৃতীয় গোলটা তুলে নেনে অরসিচ। আর তাতেই নিশ্চিত হয়, ইউরোপ থেকে বিদায়ঘণ্টা বেজে গেছে মরিনিওর। ম্যাচ শুরুর আগে এই অরসিচই বলেছিলেন, সাবেক কোচ মামিচের কৌশলকেই কাজে লাগাবেন তাঁরা, ‘আমরা দলের সব কোচকেই চিনি, আমাদের দর্শনে পরিবর্তন হবে না। আমার মনে হয় না আমাদের দলের কৌশলে কোনো পরিবর্তন আসবে।’

মামিচের কৌশল আর অরসিচের পা, এই দুই মিলিয়েই মরিনিওর বেজেছে বিদায়ঘণ্টা। জেলে বসে প্রিয় শিষ্যের কীর্তিতে মামিচের গর্ব হওয়ারই কথা!

বিজ্ঞাপন
default-image

রাতের অন্যান্য ম্যাচে ফরাসি মিডফিল্ডার পল পগবার গোলে এসি মিলানকে ১-০ গোল হারিয়ে পরের রাউন্ডে উঠে গেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। শাখতারের বিপক্ষে প্রথম লেগে ৩-০ গোলে জেতা ইতালিয়ান ক্লাব এএস রোমা রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক স্ট্রাইকার বোর্হা মায়োরালের জোড়া গোলে দ্বিতীয় লেগে জিতেছে ২-১ গোলে। তারাও উঠেছে পরের রাউন্ডে। ওদিকে দ্বিতীয় লেগে দুটি লাল কার্ড দেখে নিজেদের বিপদ নিজেরাই ডেকে এনেছে স্টিভেন জেরার্ডের রেঞ্জার্স। প্রথম লেগে ১-১ গোলে ড্র করলেও গত রাতের দ্বিতীয় লেগে স্লাভিয়া প্রাহার বিপক্ষে হেরে বসেছে ২-০ গোলে। ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার ডেভিড নেরেস ও সার্বিয়ান স্ট্রাইকার দুসান তাদিচের গোলে দ্বিতীয় লেগে সুইস ক্লাব ইয়ং বয়েজকে ২-০ গোলে হারিয়েছে আয়াক্স। দুই লেগ মিলিয়ে ৫-০ গোলে এগিয়ে থেকে তারাও পা রেখেছে পরের রাউন্ডে।

স্প্যানিশ স্ট্রাইকার জেরার্দ মোরেনোর জোড়া গোলে দিনামো কিয়েভকে ২-০ গোলে হারিয়েছে স্প্যানিশ ক্লাব ভিয়ারিয়াল। ওদিকে দ্বিতীয় লেগে গ্রিক ক্লাব অলিম্পিয়াকোসের বিপক্ষে ১-০ গোলে হেরে গেলেও প্রথম লেগে ৩-১ গোলে জেতার সুবাদে দুই লেগ মিলিয়ে পরের রাউন্ডে উঠেছে ইংলিশ ক্লাব আর্সেনাল।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন