বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অবস্থা এখন এমন যে বার্সার মাঠে আতলেতিকো নামা পর্যন্ত কোমান কোচ পদে থাকবেন কি না, তা নিয়ে সন্দেহ করার লোকের অভাব নেই। চ্যাম্পিয়নস লিগে প্রথম দুই ম্যাচেই বার্সার জঘন্য হারে এই সন্দেহবাদীদের সংখ্যা ক্রমে বাড়ছে।

কোমানের ভবিষ্যৎ নিয়ে পরশু বৈঠকও করেছে বার্সা। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম জানিয়েছিল, সেদিনই নাকি কোমানকে ছাঁটাই করা হবে। কিন্তু পরিস্থিতি বার্সাকে দেরি করাতে বাধ্য করছে।

কোমানের বিকল্প এখনো ঠিক করতে পারেনি কাতালান ক্লাবটি। চুক্তির মেয়াদ ফুরোনোর আগেই করলে বেশ বড় অঙ্কের ক্ষতিপূরণও দিতে হবে তাঁকে। আর্থিকভাবে ডুবতে বসা বার্সা সে অঙ্কটা না হয় কোনোভাবে ব্যবস্থা করল, কিন্তু আগে বিকল্প তো ঠিক করতে হবে।

সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, এ সপ্তাহ শেষে আন্তর্জাতিক বিরতিতে সম্ভবত কোমানকে বিদায়ের দরজা দেখিয়ে দেবে বার্সা। এর মধ্যে রবের্তো মার্তিনেজ কিংবা আন্দ্রে পিরলো...এমন সম্ভাব্যদের মধ্য থেকে বিকল্প একজন ঠিক করে ফেলবে বার্সা।

কোমানের জন্য সমস্যাটা অন্যখানে। বার্সা তাঁকে বিদায় করতে চায়, এটি ফুটবল–বিশ্বে ‘ওপেন সিক্রেট’, কিন্তু কথাটি ক্লাব কিংবা সংশ্লিষ্ট অন্য কারও পক্ষ থেকে তাঁকে সরাসরি কেউ বলছে না।

বার্সার এ বাজে অবস্থার মধ্যে প্রতিদিন তিনি ডিপাই–পেদ্রিদের অনুশীলন করাচ্ছেন, এমনিতে সবকিছু ঠিকঠাকই আছে, কিন্তু ভেতরে যে বড় গড়বড় তা চোখ–কান ব্যবহার করে আশপাশের ফিসফিসানি ও গুঞ্জন বুঝতে পারলেও কোমানের যেন কিছুই করার নেই!

সংবাদ সম্মেলনে চাকরি নিয়ে করা প্রশ্নের উত্তরে কোমান বললেন, ‘কেউ আমাকে এখনো কিছু বলেনি। এটা সত্য যে সকালে সভাপতি এসেছিলেন। কিন্তু তাঁর সঙ্গে দেখা হয়নি। তিনি আমাকে এখনো কিছুই বলেননি। যদিও আমার চোখ আছে, কান আছে এবং বুঝতে পারছি, অনেক কিছুই ফাঁস হয়েছে।’

এর আগে ডাগআউটে লাল কার্ড দেখায় দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছিলেন কোমান। আতলেতিকোর বিপক্ষে ম্যাচটি সেই নিষেধাজ্ঞার কোটার শেষ ম্যাচ, কোমানকে তাই বার্সার ডাগআউটে দেখা যাবে না।

বার্সা কোচ হিসেবে নিজেকে কোন গ্রেডে রাখবেন, এক সংবাদকর্মীর এমন প্রশ্নের উত্তরে কোমান যেন একটু বিরক্তই হলেন, ‘বারবার নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করতে করতে আমি অসুস্থ হয়ে পড়েছি। যে কেউ এখন ক্লাব ও দলের পরিস্থিতিটা বিশ্লেষণ করতে পারবে। ক্লাবে আমরা পরিবর্তন মেনে নিয়েছি। আমি নিশ্চিত, একসময় লোকে তা বুঝবে। অন্যরা ভাববে, একটু সময় তো লাগবেই...। একদিন আমি এসব নিয়ে মুখ খুলব।’

সংবাদকর্মীদের প্রশ্নের ধরনে অনেকেরই মনে হয়েছে বার্সা কোচ হিসেবে এটাই হয়তো কোমানের শেষ সংবাদ সম্মেলন। একটি প্রশ্ন যেমন—বার্সা কোচ হিসেবে সেরা মুহূর্ত কোনটি? এমন প্রশ্ন মূলত বিদায়ী কোচদেরই করা হয়। কোমান তা বুঝতে পেরেই ফেটে পড়লেন, ‘আমাকে এ কথার জবাব দিতে হবে? মনে হচ্ছে, ইতিমধ্যেই ছাঁটাই হয়েছি। (কোচের) চুক্তি সই করা সেরা মুহূর্ত, লিওনেল মেসির চলে যাওয়া সবচেয়ে বাজে মুহূর্ত।’

সংবাদকর্মীরা এরপরও কোমানকে ছেড়ে দেননি। অন্য কোনো কোচ বার্সার দায়িত্ব নিলে তিনি কি সেরাটা বের করে আনতে পারবেন, এমন পিত্তি জ্বালিয়ে দেওয়া প্রশ্নও করা হয়েছিল কোমানকে। তাঁর সোজাসাপ্টা জবাব, ‘আমি জানি না। অন্য কোচের হয়েও কি আমাকে কথা বলতে হবে? আমার কাছে টাকার বস্তা থাকলে মেসি এখানেই থাকত এবং আরও কিছু ফুটবলারকে নিয়ে আসতাম দাপুটে ফুটবল খেলার জন্য।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন