নতুন সঙ্গী খুঁজছেন টটেনহামের ইংলিশ ফুটবলার ডেলে আলী।
নতুন সঙ্গী খুঁজছেন টটেনহামের ইংলিশ ফুটবলার ডেলে আলী। ছবি: রয়টার্স

একা একা আর কত দিনই–বা ভালো লাগে! প্রেমিকাবিহীন ডেলে আলীর সময়টাও ভালো কাটছে না। হন্যে হয়ে নতুন সঙ্গী খুঁজছেন টটেনহাম হটস্পারের ইংলিশ ফুটবলার। আর সেই সঙ্গী বা নতুন ভালোবাসার খোঁজে এবার তিনি ঢুঁ মেরেছেন সেলিব্রিটিদের ডেটিং অ্যাপ রায়া-তে।

নতুন সঙ্গীর খোঁজে ডেলে আলীকে কেন নামতে হয়েছে, তা এখন আর কারও অজানা নেই। ২৪ বছর বয়সী ইংলিশ ফরোয়ার্ডকে তাঁর প্রেমিকা রুবি মে ছেড়ে গেছেন গত ফেব্রুয়ারিতে। এরপর একটু যেন ভেঙেই পড়েছিলেন আলী। ২৫ বছর বয়সী মডেল রুবি মের সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়ার হতাশা থেকে বেরিয়ে এসে নতুন জীবন শুরু করতে চান তিনি। এ কারণেই খুঁজতে শুরু করেছেন নতুন ভালোবাসা।

বিজ্ঞাপন
default-image

ডেটিং অ্যাপ রায়াতে নিজেকে ডেলে আলী দারুণভাবে তুলে ধরেছেন। সাইটের প্রোফাইলে তিনি ছবি দিয়েছেন নেভি স্যুট পরা। সেখানে দারুণ স্মার্ট লাগছে তাঁকে। তবে ছবিতে আরেকটা বিষয়ও তিনি প্রকাশ করেছেন সচেতনভাবেই। ছবিতে তাঁকে দেখা যায় ভ্রু একটু কুঁচকে রেখেছেন। যার মানে একটাই—রুবি মের আচরণে একটু যেন বিরক্ত আলী।

ডেলে আলীর ভালোবাসার জীবন নিয়ে তাঁর এক বন্ধু সম্প্রতি বলেছেন, ‘রুবির সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়া নিয়ে এখনো হতাশ আর বিরক্ত ডেলে।’ এই বন্ধু আবার আলীর ডেটিং অ্যাপ রায়াতে প্রোফাইল খোলা নিয়ে বলেছেন, ‘কিন্তু এখন সে (ডেলে আলী) বুঝতে পারছে, অতীত ভুলে তাকে সামনে তাকাতে হবে। এটা ঠিক যে সে হতাশ হয়েছে, তার গর্ব ধুলায় মিশে গেছে। কিন্তু এখন সে নতুন সম্পর্কে জড়ানোর জন্য সঠিক একজনকে খুঁজছে।’

default-image

কে জানে শেষ পর্যন্ত মনের মানুষ খুঁজে পাবেন কি না ডেলে আলী! তবে রুবি মের সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙা নিয়ে দুজনের ঘনিষ্টজনেরা বলেছেন, ডলচে ও গাবানার মডেল রুবি মে ডেলে আলীর কিছু আচরণ নিয়ে খুব বিরক্ত ছিলেন। এ কারণেই নিজের ব্যাগপত্র গুছিয়ে ২০ লাখ পাউন্ডের বাড়ি ছেড়ে চলে গেছেন রুবি মে। দুজনের সম্পর্কটা এখন এমন পর্যায়ে চলে গেছে যে কেউ কারও মুখ পর্যন্ত দেখতে চান না! এটা বোঝা যায়, কেউ কাউকে এখন আর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনুসরণ করছেন না।

অথচ পাঁচ বছর একে অপরের সুখ-দুঃখ ভাগাভাগি করে নিয়েছেন রুবি মে ও ডেলে আলী। দুজনের সম্পর্কের শুরু ২০১৬ সালে। সে বছরের ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের সময় তাঁর সঙ্গেই ছিলেন রুবি মে। তিনি ডেলে আলীর পাশে ছিলেন ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের সময়ও। এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে যে তাঁরা দুজন বিচ্ছিন্ন হয়ে যেতে পারেন, তার আভাস পাওয়া যায়নি তিন মাস আগেও। ২০২০ সালের ডিসেম্বরেও দুজনকে একসঙ্গে পুল খেলতে দেখা গেছে।

কে জানে তিন মাস পর এমন কী হলো যে দুজন বিচ্ছিন্ন হয়ে গেলেন!

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন