জামাল ভূঁইয়া।
জামাল ভূঁইয়া।ফাইল ছবি: প্রথম আলো

৩০ এপ্রিল শুরু হবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের দ্বিতীয় পর্ব। তাই আজই ডেনমার্ক থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দিতে চেয়েছিলেন জামাল ভূঁইয়া। ডেনমার্কের কোপেনহেগেন বিমানবন্দরেও এসেছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক। কিন্তু সেখান থেকে ফেরত যেতে হয়েছে তাঁকে। কারণ, চলমান লকডাউন পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে আসার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি ছিল না জামালের সঙ্গে।

দুবাই হয়ে ঢাকা আসার কথা ছিল জামালের। কিন্তু বোর্ডিং পাস দেওয়া হয়নি তাঁকে। ডেনমার্কের পাসপোর্ট ব্যবহার করায় তাঁকে বিদেশি নাগরিক হিসেবে গণ্য করেছে ফ্লাইট কর্তৃপক্ষ। চলমান লকডাউনে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে বিদেশি নাগরিকদের বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ছাড়পত্র প্রয়োজন। যা সঙ্গে ছিল না জামালের।

বিজ্ঞাপন
default-image

সাইফ স্পোর্টিংয়ের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘কোপেনহেগেন বিমানবন্দর থেকে ফেরত যেতে হয়েছে জামাল ভূঁইয়াকে। তিনি ডেনমার্কের পাসপোর্ট ব্যবহার করায় তাঁকে বিদেশি নাগরিক হিসেবে গণ্য করেছে এমিরেটস কর্তৃপক্ষ। তাঁর সঙ্গে বাংলাদেশের পাসপোর্ট ছিল না। তাই ঢাকা আসার জন্য বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ছাড়পত্রের প্রয়োজন ছিল।’

এখন ২৮ এপ্রিল ফ্লাইট স্বাভাবিক হলে ঢাকায় আসার কথা সাইফ স্পোর্টিংয়ের অধিনায়কের। এ ছাড়া ডেনমার্কের বাংলাদেশ দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করে অনুমতি নেওয়ার চেষ্টা করে হবে বলে জানিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। সেটি পাওয়া গেলে আগেই ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন জামাল।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন