করোনা–বিধি ভেঙেছেন রোনালদো?
করোনা–বিধি ভেঙেছেন রোনালদো?ছবি: রয়টার্স

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়ে ইতালিতে ফিরে কী ঝামেলাই না বাঁধিয়েছেন! ইতালির ক্রীড়ামন্ত্রী ভিনচেঞ্জো স্পাদাফোরা শুরু থেকেই রোনালদোর সমালোচনায় মুখর। তিনি এবার জানালেন, করোনা বিধি-নিষেধ ভাঙার দায়ে তদন্ত শুরু হয়েছে জুভেন্টাস তারকার বিরুদ্ধে।

পর্তুগাল জাতীয় দলের হয়ে নেশনস কাপ চলাকালীন করোনায় আক্রান্ত হন রোনালদো। এরপর এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে লিসবন থেকে ইতালিতে ফেরেন। স্পাদাফোরা তখন সমালোচনা করে বলেছিলেন, করোনায় আক্রান্তের পর যেসব নিয়ম-নীতি মেনে চলতে হয়, ইতালিতে ফেরার মধ্যে দিয়ে রোনালদো সম্ভবত সেসব নিয়ম ভেঙেছেন। যদিও জুভেন্টাসের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, তিনি স্বাস্থ্যগত ছাড়পত্র নিয়েই ফিরেছেন ইতালিতে।

ইতালির ক্রীড়ামন্ত্রী তবু রোনালদোর সমালোচনা থামাননি। রোনালদোর মতো তারকারা নিজেদের সবকিছুর ঊর্ধ্বে ভাবেন বলে মন্তব্য করেন স্পাদাফোরা। ইতালিয়ান টিভি চ্যানেল ‘রাই থ্রি’কে ক্রীড়ামন্ত্রী রোনালদোর বিরুদ্ধে চলা তদন্ত নিয়ে খোলাসা করে কিছু বলেননি। শুধু এতটুকু বলেছেন, ‘ক্রিস্টিয়ানো (করোনার) আইন-কানুন মানেনি। সরকারি কৌঁসুলি অফিস থেকে এটা প্রমাণের জন্য তদন্ত চলছে।’ স্পাদাফোরা যোগ করেন, ‘ভাইরাস প্রমাণ করে দিয়েছে কেউ-ই এর ঊর্ধ্বে নয়। অবশ্যই প্রায় সব মানুষ বিধিনিষেধ মানার চেষ্টা করছে। তবে শেষ পর্যন্ত ঘরে থাকাটাই একমাত্র সমাধান।’

বিজ্ঞাপন

ইতালিয়ান সংবাদমাধ্যম ‘লা গাজেত্তা দেল্লো স্পোর্টস’কে এর আগে স্পাদাফোরা বলেছিলেন, রোনালদোর মতো তারকাদের উচিত সবাইকে নিয়ম মেনে চলতে প্রেরণা দেওয়া, নিজেদের মতো করে নিয়ম ভাঙায় উৎসাহিত করা উচিত নয় বলে মন্তব্য করেন ক্রীড়ামন্ত্রী। তবে স্পাদাফোরা প্রথমবার রোনালদোর তুরিনে ফেরার বিরুদ্ধে মুখ খোলার পর আত্মপক্ষ সমর্থন করেছিলেন রোনালদো। তখন ইনস্টাগ্রামে এক বার্তায় পর্তুগিজ তারকা বলেছিলেন, ‘আমি বিধিনিষেধ মেনে চলছি। নিয়ম ভাঙিনি। যেটা বলা হচ্ছে তা মিথ্যা।’

রোনালদো জানিয়েছিলেন নিয়ম মেনেই তিনি ইতালিতে ফিরেছেন, ‘সতীর্থসহ সবাই মিলে সব প্রক্রিয়া মানার মধ্য দিয়েই আমি ইতালিতে ফিরেছি। এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ইতালিতে ফিরেছি। কারও সংস্পর্শে আসিনি, এমনকি তুরিনেও নয়।’ ইতালিতে ফেরার পর থেকেই কোয়ারেন্টিনে আছেন রোনালদো। তাঁর এই মন্তব্যের পর স্পাদাফোরা জুভেন্টাস তারকাকে ‘উদ্ধত’ এবং ‘অহংকারী’ বলেছিলেন স্পাদাফোরা। সংবাদ সংস্থা ‘এনএসএ’কে স্পাদাফোরা তখন বলেছিলেন, ‘কোনো খেলোয়াড়ের দক্ষতা তাকে কোনো প্রতিষ্ঠানের প্রতি উদ্ধত হওয়ার এবং মিথ্যা বলার ছাড়পত্র দেয় না।’

এদিকে রোনালদো কোয়ারেন্টিনে থাকলেও খুব একটা খারাপ নেই। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সরব আছেন। তাঁর সাবেক ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ পরশু ‘এল ক্লাসিকো’ জেতার পর টুইটারে একটি ছবি পোস্ট করেন রোনালদো। ক্যাপশনে ইংরেজিতে ‘এস’ শব্দের পর জুড়ে দিয়েছেন কয়েকটি ‘আই’—রোনালদোর বিখ্যাত গোল উদ্‌যাপন ‘সাই’-এর সঙ্গে এই ক্যাপশনের যোগসূত্র পাচ্ছেন অনেকেই। কেউ কেউ মনে করছেন রিয়াল ৩-১ গোলে বার্সাকে হারানোর আনন্দে এই ক্যাপশন জুড়ে দিয়েছেন মাদ্রিদের ক্লাবটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ এ গোলদাতা।

মন্তব্য পড়ুন 0