উয়েফা সুপার কাপে বায়ার্নের ম্যাচ দেখতে বুদাপেস্ট যাচ্ছেন মাত্র ১৩০০ সমর্থক।
উয়েফা সুপার কাপে বায়ার্নের ম্যাচ দেখতে বুদাপেস্ট যাচ্ছেন মাত্র ১৩০০ সমর্থক। ফাইল ছবি

করোনাকাল। মাঠে গিয়ে গ্যালারিতে বসে খেলা দেখার সুযোগ নেই বললেই চলে। দু-একটি দেশে সে সুযোগ পাওয়া গেলেও দর্শক সংখ্যা বেঁধে দেওয়া হয়েছে। এমনই বেঁধে দেওয়া দর্শক নিয়ে আগামী বৃহস্পতিবার হাঙ্গেরির বুদাপেস্টে এবারের সুপার কাপটা আয়োজন করতে যাচ্ছে উয়েফা। সেই ম্যাচের দুই দল বায়ার্ন মিউনিখ ও সেভিয়ার সমর্থকদের জন্য ৩ হাজার করে টিকিট রেখেছিল ইউরোপিয়ান ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

টিকিট নিয়ে না ‘যুদ্ধ’ শুরু করেন বুভুক্ষু ফুটবলভক্তরা, এমনটাই ভেবেছিলেন আয়োজকেরা। কিন্তু হলো উল্টোটা। অর্ধেক টিকিটও বিক্রি হয়নি। উল্টো টিকিট কিনেও তা ফেরত দিয়েছেন চ্যাম্পিয়নস লিগ চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন মিউনিখের ৮০০ দর্শক।

বিজ্ঞাপন
default-image

করোনাভাইরাসের ভয়েই টিকিট ফেরত দিয়েছেন এ সব ফুটবল-ভক্ত। তাঁরা ভয় পাচ্ছেন সুপার কাপটা না করোনার ‘সুপার স্প্রেডার’ বা ছড়িয়ে দেওয়ার উপলক্ষ হয়ে যায়। ৬ হাজার টিকিট রাখলেও উয়েফা আশা করছে শেষ পর্যন্ত ১৮০০ দর্শক থাকবেন পুসকাস স্টেডিয়ামে আয়োজিত হতে যাওয়া ম্যাচে। যাদের ১৩০০ জন বায়ার্নের ও ৫০০ জন স্প্যানিশ ক্লাব সেভিয়ার।

হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্টে করোনাসংক্রমণ আবারও বেড়েছে। প্রতি লাখে সংক্রমণ সংখ্যা আবারও ৫০ পেরিয়ে যাওয়ার পর প্রতিবেশী জার্মানি বুদাপেস্টকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছে। বায়ার্ন মিউনিখ যে এলাকার ক্লাব, সেই বাভারিয়ার রাজ্যপ্রধান মার্কুস সাডার যে সব দর্শক খেলা দেখতে যাচ্ছেন তাঁদের সাবধান করে দিয়েছেন, ‘সবারই যাওয়ার আগে দুবার ভাবা উচিত। যাঁরা বুদাপেস্ট থেকে ফিরবেন তাঁদের সবাইকে হয় করোনা পরীক্ষা করাতে হবে অথবা কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।’

বিজ্ঞাপন

সাডারের ভয় বুদাপেস্ট না আবার ফুটবলের ‘ইশলা’ হয়ে যায়। ইশলা অস্ট্রিয়ার একটি স্কি অবকাশ কেন্দ্র। ইউরোপে করোনা ছড়িয়ে পড়ার প্রথম দিকে সেখানে কয়েক হাজার পর্যটক করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন।

জার্মানির সংবাদমাধ্যমও বুদাপেস্টে দর্শকের অনুমতি দেওয়ায় সমালোচনা করছে উয়েফার। বিল্ড লিখেছে ‘সুপার কাপ কি সুপার স্প্রেডার কাপ হবে?’ তবে বায়ার্ন মিউনিখ ও সেভিয়া দুই ক্লাবই যারা খেলা দেখতে যাবেন তাঁদের আসা-যাওয়ার আগে করোনাপরীক্ষা করানোর প্রস্তাব দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এর আগে গত সপ্তাহে মিউনিখের মেয়র বুন্দেসলিগায় বায়ার্নের ম্যাচে আংশিক দর্শক ফেরানোর পরিকল্পনা বাতিল করে দেন।

আজ দুঃসংবাদ পেয়েছেন ইংল্যান্ডের ফুটবল ভক্তরাও। আগামী ১ অক্টোবর থেকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে দর্শক ফেরানোর পরিকল্পনা করেছিল দেশটির ফুটবল সংশ্লিষ্টরা। যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলে দিয়েছেন ওই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হচ্ছে না আপাতত। দেশটিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়াতেই দর্শক ফেরানোর অনুমতি দেয়নি সরকার।

মন্তব্য পড়ুন 0