বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

কোচ দেশমের সঙ্গে সম্পর্কই খারাপ হয়ে পড়েছিল খুবই খারাপ। পরে দলের স্বার্থেই গত ইউরোর আগে বেনজেমাকে দলে ডাকেন দেশম। দুজনের মধ্যে সম্পর্কেরও উন্নতিও হয়।

দেশমের ভরসার মূল্যও দিয়েছেন বেনজেমা। জাতীয় দলে ফেরার পর থেকেই গোল করে বা গোলে সহায়তা করে ভূমিকা রাখছেন নিয়মিত। যে কাজটা গত কয়েক বছর ধরে শুধু রিয়াল মাদ্রিদের হয়েই করতেন।

default-image

বেনজেমা যে কোচকে খেলা দিয়ে এর মধ্যেই মুগ্ধ করে ফেলেছেন, সেটা বোঝা গেল কোচের কথাতেই। এবার স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন দেশম, শিষ্যের হাতেই দেখতে চান ব্যালন ডি’অর। সংবাদ সম্মেলনে বেনজেমার হাতে পুরস্কারটা দেখতে চেয়েছেন তিনি। যে পুরস্কারটা যেকোনো ফুটবলারের কাছেই পরম আরাধ্য, ‘হ্যাঁ, আমি অবশ্যই ওর হাতে ব্যালন ডি’অর দেখতে চাই।’

২০২১ সালে ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ ও জাতীয় দল ফ্রান্সের হয়ে সব মিলিয়ে ৪৩ ম্যাচ খেলেছেন বেনজেমা। তাতে গোল করেছেন ৩০টি, করিয়েছেন ১২টি।

default-image

অবশ্য বেনজেমার ব্যালন ডি’অর জেতার দাবির বিপরীতে বায়ার্ন মিউনিখের রবার্ট লেভানডফস্কি কিংবা পিএসজির লিওনেল মেসির দাবি সম্ভবত আরও বেশি জোরালো। বেনজেমা গত মৌসুমে কোনো শিরোপাই জেতেননি, না ক্লাবে, না জাতীয় দলে। ইউরোতে জাতীয় দলে ফিরে গোল করলেও শেষমেশ দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নেয় ফ্রান্স।

আবার গোল করা কিংবা করানোতেও মেসি-লেভানডফস্কির চেয়ে পিছিয়ে বেনজেমা। স্প্যানিশ লিগে গত মৌসুমে বেনজেমার ২২ গোলের চেয়ে বেশি গোল ছিল ভিয়ারিয়ালের জেরার্ড মোরেনো (২৩) ও লিওনেল মেসির (৩০)।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন