ফাতির হাঁটুর চোটটা বড়ই।
ফাতির হাঁটুর চোটটা বড়ই।ছবি: টুইটার

লিওনেল মেসি পেনাল্টি ছাড়া গোল করতে পারছেন না, আক্রমণভাগে থাকা বাকিদের সঙ্গে আতোয়ান গ্রিজমানের রসায়নটা ঠিকমতো জমছে না—ম্যাচের আগে এমন কত প্রশ্নবোধক চিহ্ন এসে জুটেছিল বার্সেলোনার পাশে। প্রতিটি প্রশ্নের যথার্থ জবাব দিয়েছেন মেসিরা গতকাল, রিয়াল বেতিসকে হারিয়েছেন ৫-২ গোলে। তবে সে জয়টা পেতে বড় এক মূল্য দিতে হয়েছে কাতালানদের। চোটে পড়ে মাঠ ছেড়েছেন দলের সবচেয়ে প্রতিভাবান তরুণ উইঙ্গার আনসু ফাতি।

ঘটনাটা প্রথমার্ধের। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে বেতিসের আলজেরিয়ান ডিফেন্ডার আইসা মান্দি ডি-বক্সের মধ্যে বাজেভাবে ফেলে দেন আনসু ফাতিকে। হাঁটু ধরে বক্সের মধ্যে ব্যথায় গড়াগড়ি করতে থাকা ফাতিকে দেখেই মনে হচ্ছিল বাজে কিছু হয়েছে। ঠিক তখনই কোচ রোনাল্ড কোমান তাঁকে তুলে নেননি, তবে বাকি যতটুকু সময় মাঠে ছিলেন, মনে হচ্ছিল, খেলতে সমস্যা হচ্ছে ফাতির। প্রথমার্ধের পর ফাতির জায়গায় মেসিকে নামিয়ে কোমান সেটাই যেন বুঝিয়ে দিয়েছিলেন, ফিট নেই ফাতি। কিন্তু ঠিক কতটা ফিট নেই, সেটা বোঝা গেছে ম্যাচের শেষে।

আনুষ্ঠানিকভাবে বার্সেলোনা জানিয়েছে, বাঁ পায়ের অভ্যন্তরীণ মিনিসকাস ছিঁড়ে গেছে তাঁর। চোটটা সুবিধার নয় মোটেও। এর আগে এই চোটে যাঁরা পড়েছিলেন, সবাই অন্তত চার সপ্তাহ থেকে শুরু করে তিন মাস পর্যন্ত মাঠের বাইরে থেকেছেন। দরকার হতে পারে অস্ত্রোপচারেরও। সে ক্ষেত্রে অতি অবশ্যই তিন মাস মাঠের বাইরে থাকতে হবে ফাতিকে। করোনার কারণে ঘন ঘন ম্যাচ খেলা বার্সেলোনার জন্য যে খবরটা বেশ খারাপ। যদিও আনুষ্ঠানিকভাবে এখনো বার্সেলোনা জানায়নি যে ফাতি কত দিন বাইরে থাকবেন। তাদের আশা, চোটটা অতটা গুরুতর কিছু নয়, অস্ত্রোপচারও লাগবে না। কিন্তু শেষমেশ যদি তিন মাসের জন্য ছিটকে যান, সে ক্ষেত্রে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে খেলা হবে না প্রতিভাবান এই স্প্যানিশ উইঙ্গারের।

default-image
বিজ্ঞাপন

কিন্তু স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম মার্কা এক ডাক্তারের বরাত দিয়ে লিখেছে, অবস্থা বেশি খারাপ হলে তিন মাস নয়, পাঁচ মাস মাঠের বাইরে থাকতে হতে পারে ফাতিকে। ‘দ্য রিপোল অ্যান্ড দে প্রাদো স্পোর্ত ক্লিনিক’–এর প্রধান ডা. রিপোলের উদ্ধৃতি দিয়ে মার্কা জানিয়েছে, পাঁচ মাস মাঠের বাইরে থাকতে পারেন ফাতি, ‘ফাতির চোটটা আমাদের সবাইকে চমকে দিয়েছে। তার অভ্যন্তরীণ মিনিসকাস ছিঁড়ে গেছে। মাথায় রাখতে হবে, ওর বয়স মাত্র ১৮। এখন যেকোনোভাবেই হোক ওর হাঁটুর কার্টিলেজকে সুরক্ষা দিতে হবে। যে কারণে ওর মিনিসকাসকে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে জোড়া লাগাতে হবে। যে কারণে তিন থেকে পাঁচ মাস মাঠের বাইরে থাকতে পারে সে।’

অন্তত তিন মাসও যদি ফাতি মাঠের বাইরে থাকেন, সে ক্ষেত্রে আতলেতিকো মাদ্রিদ, দিনামো কিয়েভ, জুভেন্টাস, ভ্যালেন্সিয়ার সঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচগুলোয় তাঁকে পাবে না বার্সেলোনা।

মন্তব্য পড়ুন 0