বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তবে ইএসপিএন ব্রাজিল জানাচ্ছে, এখন পর্যন্ত স্থিতিশীলই আছে পেলের শারীরিক অবস্থা। তাঁর স্বাস্থ্য পর্যবেক্ষণে রাখতেই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে পেলেকে আইসিইউতে নেওয়া হয়েছে।

পেলের কাছের মানুষ বা আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালের কেউই এখনো অবশ্য কোনো বিবৃতি দিয়ে কিছু জানায়নি। ব্রাজিলের স্থানীয় সময় শুক্রবারের মধ্যে কোনো বিবৃতি আসার সম্ভাবনা কম বলেই জানাচ্ছে ইএসপিএন ব্রাজিল।

গত ৩১ আগস্ট থেকেই হাসপাতাল-বাড়ি করে দিন কাটছে পেলের। ব্রাজিলের জার্সিতে ১৯৫৮, ১৯৬২ ও ১৯৭০ বিশ্বকাপজয়ী কিংবদন্তি আগস্টের শেষ দিকে শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণের জন্য হাসপাতালে গিয়েছিলেন, সেখানে চেকআপে তাঁর কোলন টিউমার ধরা পড়ে। সঙ্গে সঙ্গেই অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত, ৪ সেপ্টেম্বর অস্ত্রোপচার করা হয়।

default-image

টিউমার পর্যালোচনা করে কী বোঝা গেছে, সেটি অবশ্য কখনো জনসমক্ষে জানানো হয়নি।

অস্ত্রোপচারের পর আইসিইউতেই ছিলেন পেলে। গত মঙ্গলবার ছাড়া পান। বাসায় ফেরার পর অবশ্য পেলে সেদিন নিজের শারীরিক অবস্থা বোঝাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মজা করে লিখেছিলেন, ‘প্রতিদিনই আরও আনন্দে কাটাচ্ছি। এখনো ৯০ মিনিটের পাশাপাশি অতিরিক্ত সময় খেলার মতো ফিট আছি।’ শেষে লিখেছিলেন, ‘আবার দেখা হবে আমাদের।’

সেই প্রার্থনাতেই আজ আবার নিশ্চিত বসে গেছেন লাখো ব্রাজিলিয়ান। দেশ, সমর্থন নির্বিশেষে শতকোটি ফুটবলপ্রেমীও কি বসেননি!

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন