default-image
>৫ বদলিতে বসুন্ধরা কিংস ও আবাহনী লিমিটেডের লাভ হবে বেশি।

করোনাভাইরাস পরবর্তী সময়ে ফুটবলারদের স্বাস্থ্য ঝুঁকির কথা ভেবে বদলি খেলোয়াড়ের নিয়মে পরিবর্তন এনেছে বিশ্ব ফুটবল সংস্থা ফিফা। নতুন নিয়মে ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত ঘরোয়া ফুটবলে ৯০ মিনিটের খেলায় ৫ খেলোয়াড় বদলি করা যাবে। আগের নিয়ম অনুযায়ী খেলোয়াড় বদলানো যেত সর্বোচ্চ ৩ জন।


নতুন এই নিয়মটি চাপিয়ে না দিয়ে সদস্য দেশগুলোর ইচ্ছের ওপর ছেড়ে দিয়েছে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা। বাংলাদেশের ফুটবলে পাঁচ বদলির বিষয়টি এখনো অনুমোদন হয়নি। তবে নতুন নিয়মেই খেলা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ। করোনার কারণে মার্চে স্থগিত হয়ে যাওয়া প্রিমিয়ার লিগ পুনরায় শুরু হওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা আছে। লিগের ভবিষ্যত জানা যাবে ১৭ মে। স্থানীয় ফুটবলারদের নিয়েও হতে পারে নতুন কোনো টুর্নামেন্ট।

সে যাই হোক, পাঁচ বদলিতে খেলা শুরু হলে দেশের কোন ক্লাবগুলো বেশি লাভবান হবে ?


স্বাভাবিকভাবে যে দলগুলোর রিজার্ভ বেঞ্চে বেশি শক্তিশালী, তারাই পাঁচ বদলির বেশি সুবিধা নিতে পারবে। এই ক্ষেত্রে বসুন্ধরা কিংস ও আবাহনী লিমিটেডকে এগিয়ে রাখছেন শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের কোচ সাইফুল বারি টিটু , 'রিজার্ভ বেঞ্চ শক্তিশালী, এমন দলগুলো পাঁচ বদলির বেশি সুবিধা পাবে। সে হিসেবে বসুন্ধরা কিংস ও আবাহনী লিমিটেডের সুবিধা বেশি হবে। তাদের বিকল্প অনেক খেলোয়াড় আছে। ' ফিফার নতুন বদলি নিয়মকে স্বাগত জানিয়েছেন দেশের অন্যতম সেরা এই কোচ।


করোনা পরবর্তী সময়ে পাঁচ বদলিতে ভালো দেখছেন জাতীয় ফুটবল দলের জেমি ডেও। তবে কোন দল লাভবান হবে, সরাসরি না বলে ভালো দলের কথা বলেছেন জেমি, 'যে দলগুলো ভালো, এখন তারা আরও বেশি ভালো দলে পরিণত হবে। কারণ প্রায় অর্ধেক 'ফ্রেশ' খেলোয়াড় মাঠে নামানোর সুযোগ পাওয়া যাচ্ছে।'


নতুন নিয়মে খেলোয়াড়দের বিশ্রামে রাখা যাবে বলে খুশি চট্টগ্রাম আবাহনীর কোচ মারুফুল, 'খেলোয়াড়দের চোটে ঝুঁকি কমানোর জন্য খুবই ভালো উদ্যোগ। করোনা পরবর্তী সময়ে অল্প দিনের প্রস্তুতিতে বেশি ম্যাচ খেলতে হতে পারে। এতে খেলোয়াড়দের চোটের ঝুঁকি থাকবে। এখন বেশি বদলি থাকার সুবিধার্থে খেলোয়াড়দের বেশি বিশ্রাম দেওয়া যাবে।'

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0