চোটে পড়ে কাতারে যেতে  পারছেন না নাবিব নেওয়াজ জীবন
চোটে পড়ে কাতারে যেতে পারছেন না নাবিব নেওয়াজ জীবনছবি: প্রথম আলো

সতীর্থরা আজ সকাল সাড়ে নয়টায় যখন দোহাগামী বিমানে বোর্ডিং করছেন, ঠিক তখন নাবিব নেওয়াজ সিএনজিতে মিরপুরের পথে। একটু আগেই পল্টনে বাংলাদেশ দলের হোটেল ছেড়ে নিজের বাসার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন। অথচ তাঁরও দোহাগামী বিমানে থাকার কথা ছিল। এই সফরে বাংলাদেশের যে ২৭ ফুটবলারের নাম ঘোষণা করা হয়, তার মধ্যে দলের প্রধান ষ্ট্রাইকার নাবিব নেওয়াজও ছিলেন। যদিও নেপালের বিপক্ষে ফিফা প্রীতি ম্যাচ দুটিতে ৪-২-৩-১ ছকে নাবিবকে খেলানো হয় স্ট্রাইকারে নিচে। এবং ম্যাচ দুটিতে ভালোই খেলেছেন নাবিব। প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ দলের প্রথম গোলটাও তাঁরই।

কিন্তু দলের অপরিহার্য এই ফুটবলার নেপালের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচের শেষ দিকে হাঁটুতে চোট পেয়েছিলেন। তারপর এমআরআই করানো হয়। সেই এমআরআই রিপোর্ট আসে গত রাত সাড়ে ১২টায়, যখন সতীর্থরা সবাই ব্যাগ গুছিয়ে ঘুমাতে গেছেন। আর আশাভঙ্গের বেদনায় পুড়েছেন নাবিব।

এই অবস্থায় তো আমি যেতে পারি না। খেলার সম্ভাবনা বেশি থাকলে যেতাম। দল অনুশীলন করবে কিন্তু আমি বসে থাকব। এটা আমার ভালো লাগবে না। তাই আর যাইনি। তবে এভাবে শেষ সময় দল থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে ভীষণ খারাপ লাগছে।’
নাবিব নেওয়াজ
বিজ্ঞাপন

আজ সকালে বাসায় যাওয়ার পথে ফোনে প্রথম আলোকে নাবিব নেওয়াজ বলেন, ‘হাঁটুতে ব্যথা পাই দ্বিতীয় ম্যাচে। নেপালের গোলকিপার পড়ে যায় আমার পায়ের ওপর। প্রথম সপ্তাহ পুরোপুরি বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে আমাকে। তারপর পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হবে। এতে ফিট হয়ে মাঠে নামতে একটু সময় লাগবে।’ বাংলাদেশ দলের অস্ট্রেলিয়ান ফিজিও অবশ্য বলেছেন, চাইলে নাবিব কাতার যেতে পারেন। তাঁর খেলার সম্ভাবনা ৫০-৫০।

তবে অর্ধেক সম্ভাবনা নিয়ে যাওয়া সঠিক মনে করেননি নাবিব। তাঁর কথা, ‘এই অবস্থায় তো আমি যেতে পারি না। খেলার সম্ভাবনা বেশি থাকলে যেতাম। দল অনুশীলন করবে কিন্তু আমি বসে থাকব। এটা আমার ভালো লাগবে না। তাই আর যাইনি। তবে এভাবে শেষ সময় দল থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে ভীষণ খারাপ লাগছে।’

এর আগে চোটের কারণে বাংলাদেশের প্রাথমিক দল থেকে বাদ পড়ে যান ফিনল্যান্ডে জন্ম নেওয়া ডিফেন্ডার তারিক কাজী। নেপালের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচের পরদিন চোট নিয়ে নিজ ক্লাবে ফেরেন গোলরক্ষক শহিদুল আলম। এবার দল থেকে শেষ সময়ে দল থেকে ছিটকে গেলেন একাদশের অন্যতম ভরসা নাবিব নেওয়াজ। করোনায় বাদ পড়েছেন ডিফেন্ডার মনজুরুর রহমান। তবে কাতারগামী দলের সঙ্গী হয়েছেন হাতে চোট পাওয়া মিডফিল্ডার মামুনুল ইসলাম।

মন্তব্য পড়ুন 0