নারীঘটিত ঝামেলায় দল থেকে বাদ দুই ইংলিশ ফুটবলার

গত শনিবার ইংল্যান্ড দলে অভিষেক হওয়া ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ম্যাসন গ্রিনউড ও ম্যানচেস্টার সিটির ফিল ফোডেন (বাঁ থেকে)।
গত শনিবার ইংল্যান্ড দলে অভিষেক হওয়া ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ম্যাসন গ্রিনউড ও ম্যানচেস্টার সিটির ফিল ফোডেন (বাঁ থেকে)। ছবি: এএফপি
বিজ্ঞাপন

শনিবার কী খুশির দিনই না ছিল তাঁদের জন্য! সেদিন যে ইংল্যান্ডের জাতীয় দলে অভিষেক হয়েছে ফিল ফোডেন ও ম্যাসন গ্রিনউডের। এমন একটি আনন্দের দিনে উদ্‌যাপন না করে কী পারা যায়! সেই উদ্‌যাপনটা অবশ্য দুই তরুণ ফুটবলার করেছেন নিয়ম ভেঙে। এর জন্য মহা ঝামেলায়ও পড়েছেন ম্যানচেস্টার সিটির মিডফিল্ডার ফোডেন ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ফরোয়ার্ড গ্রিনউড।

আইসল্যান্ডের বিপক্ষে গত শনিবার ১–০ গোলে জয়ের রাতে দুজন নারীকে হোটেলে ডেকে এনেছেন ফোডেন ও গ্রিনউড। যেটা আইসল্যান্ডের করোনাভাইরাস মহামারি নিয়ন্ত্রণের জন্য করা নিয়ম অনুযায়ী নিষিদ্ধ। ইংল্যান্ড দলের নীতির সঙ্গেও এটি যায় না।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

আইসল্যান্ডে করোনাভাইরাস মহামারি আবার একটু বাজে রূপ নেওয়ায় দেশটিতে ভ্রমণ করতে যাওয়া বিদেশি নাগরিকদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হয়। দেশটিতে নেশনস লিগের ম্যাচ খেলতে যাওয়া ইংল্যান্ড ফুটবল দলের জন্য নিয়ম কিছুটা শিথিল করা হয়েছে। কোয়ারেন্টিনে থাকতে হয়নি তাদের। তবে বলে দেওয়া হয়েছিল, দলের হোটেলে বাইরের কেউ আসতে পারবে না।

এই নিয়ম ভেঙে দুই নারীকে হোটেলে এনে শাস্তি পাচ্ছেন ফোডেন ও গ্রিনউড। ব্রিটিশ দৈনিক দ্য ডেইলি মেইল খবর দিয়েছিল, ওই ঘটনার পর আর ইংল্যান্ড দলের অনুশীলনে দেখা যায়নি দুই খেলোয়াড়কে। এর খানিক পরে খবর আসে, দুজনকে দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। তাঁদের দুজনের ক্লাব ম্যান সিটি ও ম্যান ইউনাইটেড আলাদা আলাদা বিবৃতিতে বলেছে, তারা দুই খেলোয়াড়ের কাণ্ডে হতাশ হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

দুই নারীকে গোপনেই হোটেলে এনেছিলেন ফোডেন ও গ্রিনউড। সবকিছু তাঁদের পরিকল্পনা অনুযায়ীই চলছিল। কিন্তু হোটেলে আসা দুই নারীর একটি ভুলের কারণেই ধরা পড়ে গেছেন ফোডেন ও গ্রিনউড। ওই দুই নারী হোটেলকক্ষে করা ছোট একটি ভিডিও ক্লিপ রোববার স্ন্যাপচাটে দেন। সেই ভিডিও আবার প্রকাশ করেছে আইসল্যান্ডের একটি ডিজিটালমাধ্যম। যেটি পরে অনেকের হাতেই চলে যায়।

ওই দুই মেয়ের একজন আইসল্যান্ডের ডিজিটালমাধ্যমটিতে সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘আমরা আসলে কোভিড–১৯–এর নিয়মের বিষয়ে কিছু জানতাম না। তা ছাড়া ওরা বলেওনি যে আমরা ছবি তুলতে পারব না।’ আরেক মেয়ের কথা, ‘আমি যেটা বলতে পারি তা হলো ওই দুই ছেলের মধ্যে একজনের সঙ্গে আমি কিছুদিন ধরে কথা বলে আসছিলাম।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

২০ বছর বয়সী ফোডেনের দুই বছর বয়সী একটি ছেলে আছে। ছেলেটি তাঁর লম্বা সময়ের প্রেমিকার। আর ১৮ বছর বয়সী গ্রিনউডের মে মাসে প্রেমিকার সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে গেছে।

ইংল্যান্ড দলের এমন ঝামেলায় পড়ার ঘটনা এটিই প্রথম নয়। এর আগে গত বছরের নভেম্বরে মন্টেনেগ্রো ও কসোভোর বিপক্ষে ইউরো বাছাইপর্বের দুটি ম্যাচের আগে তুমুল ঝগড়া হয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটির রাহিম স্টার্লিং ও লিভারপুলের জো গোমেজের। দোষ স্টার্লিংয়ের ছিল, তাই তাঁকে দলের ক্যাম্প থেকে তখন বাড়ি পাঠিয়ে দেন ইংল্যান্ড কোচ গ্যারেথ সাউথগেট। আর গত সপ্তাহে গ্রিসে ছুটি কাটাতে গিয়ে ঝামেলায় জড়িয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের অধিনায়ক হ্যারি ম্যাগুয়ার। গ্রিস পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তারও করেছিল।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন