এমবাপ্পে–নেইমার মিলেই হারালেন বায়ার্নকে।
এমবাপ্পে–নেইমার মিলেই হারালেন বায়ার্নকে।ছবি: রয়টার্স

গত বছর চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে এই বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ১–০ গোলে হেরেই স্বপ্নভঙ্গ হয়েছিল নেইমার–এমবাপ্পের পিএসজির। এবার সেই হারের বদলা নেওয়ার সুযোগটা পিএসজির সামনে এসে গিয়েছিল শেষ আটেই। বদলাটা কাল রাতে খুব ভালোভাবেই নিয়েছে পিএসজি। বর্তমান চ্যাম্পিয়নস বায়ার্ন মিউনিখকে ৩–২ গোলে হারিয়ে সেমির পথে নিজেদের এগিয়ে রাখল তারা।

default-image

কিলিয়ান এমবাপ্পে করেছেন জোড়া গোল। মিউনিখের তুষারাচ্ছন্ন সন্ধ্যায় ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই এগিয়ে গিয়েছিল পিএসজি। একটি প্রতি আক্রমণ থেকে নেইমারের পাস থেকে গোল করেন এমবাপ্পে। ২৮ মিনিটে নেইমারের ক্রস থেকেই পিএসজিকে ২–০–তে এগিয়ে দেন মার্কুইনহোস। ৩৭ মিনিটে গোল পায় বায়ার্ন। এরিক ম্যাক্সিম জমিয়ে দেন লড়াইটা। ৬০ মিনিটে টমাস মুলারের গোলে বায়ার্ন সমতায় ফেরে। তবে ৬৮ মিনিটে এমবাপ্পে গোল করে আবারও এগিয়ে দেন ফরাসি তারকা এমবাপ্পে।

default-image
বিজ্ঞাপন

এটি গত দুই বছরের মধ্যে বায়ার্নের প্রথম চ্যাম্পিয়নস লিগ হার। কোচ হান্সি ফ্লিকের এটি প্রথম। ফ্লিকের অধীনে ইউরোপ–সেরার লড়াইয়ে ১৬ ম্যাচে অপরাজিত ছিল বায়ার্ন।

default-image

এমন একটা জয়ের পর স্বভাবতই দারুণ খুশি পিএসজি কোচ মরিসিও পচেত্তিনো। তিনি খেলোয়াড়দের অভিনন্দন জানিয়েছেন। তবে তিনি তাঁর শিষ্যদের সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, ‘এখনো সেমিতে উঠতে ৯০ মিনিট লড়াই করতে হবে। আর সেই লড়াইটা হবে অনেক কঠিন।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন