রাত পোহালেই ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ধ্রুপদি লড়াই। দেশ ছাপিয়ে লড়াইটা বিশ্বের অন্যতম সেরা দুই ফুটবলার লিওনেল মেসি ও নেইমারেরও। এখন দুজনের পথ বেঁকে গেলেও উভয়ে একসঙ্গে খেলেছেন বার্সেলোনায়। সে হিসেবে তাঁরা খুব ভালো বন্ধু। কিন্তু মাঠে নামলে স্বাভাবিকভাবে সেটি থাকবে না বলে প্রকাশ্যে জানিয়ে দিয়েছেন তাঁরা। নেইমারের বর্তমান পিএসজি সতীর্থ পারেদেস হাঁটলেন ভিন্ন পথে। ক্লাব–সতীর্থকে খোঁচানোর প্রস্তুতি নিয়েছেন তিনি।

২০১৯ সালে পিএসজিতে নাম লিখিয়েছেন পারেদেস। সে হিসাবে তিন বছর ধরে নেইমারকে দেখছেন খুব কাছ থেকে। স্বাভাবিকভাবে নেইমারের শক্তিটাও তাঁর ভালো জানা। নেইমারকে মেসির সঙ্গে এক কাতারে রেখে তিনি বলেন, ‘তাকে (নেইমার) মার্ক করা খুব কঠিন কাজ। তার শট নেওয়া থামানো অসম্ভব। তুমি কখনোই বুঝতে পারবে না, সে কোথায় যাচ্ছে। তার ও লিওনেল মেসির ক্ষেত্রে এমনটাই হয়। তুমি যদি তাদের সম্পর্কে অনেক জেনেও থাকো, তারা ভিন্ন কিছু করবে। দ্রুতগতির সঙ্গে তারা সিদ্ধান্তও নিতে পারে দ্রুত।’

আকর্ষণীয় ফাইনালের আগে নেইমারকে বেশ সমীহ দেখাচ্ছেন পারেদেস। ব্রাজিলিয়ান এই প্লে–মেকারকে আটকাতে তাঁর পরিকল্পনাটা একটু অন্য রকম। কী সেটা? আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডারের মুখ থেকেই শুনুন, ‘নেইমারকে কড়া মার্কিংয়ে রাখতে হবে এবং যথাসম্ভব তাকে আঘাত করতে হবে। সে জানে আমি তাকে খুঁচিয়ে পাগল করে দেব। সে বলেছে, এটি করলেও সে পুরো ম্যাচে লড়াই চালিয়ে যাবে।’