বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ তারকা রবার্ট লেভানডফস্কি।
বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ তারকা রবার্ট লেভানডফস্কি।ছবি: টুইটার

ক্লাব ও দেশ মিলিয়ে এ মৌসুমে জীবনের সেরা ফর্মে রবার্ট লেভানডফস্কি? ‘হ্যাঁ’–সূচক উত্তর দেবেন অনেকেই, তবে লেভানডফস্কির দুর্দান্ত ফর্মে সাময়িক ছেদ টেনে দিল চোট।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে অ্যান্ডোরার বিপক্ষে জোড়া গোল করে পোল্যান্ডকে ৩–০ ব্যবধানের জয় এনে দিয়েছিলেন বায়ার্ন মিউনিখ স্ট্রাইকার। কিন্তু ম্যাচের পুরো সময় তিনি মাঠে থাকতে পারেননি।

ঘণ্টাখানেক পর চোটের কারণে তাঁকে মাঠ থেকে তুলে নিতে বাধ্য হন পোল্যান্ড কোচ পাওলো সউসা। এবার জানা গেল, লেভার চোটটা বেশ গুরুতর। প্রায় এক মাস মাঠের বাইরে থাকতে হবে তাঁকে।

বিজ্ঞাপন

২০২২ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে বুধবার ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে পোল্যান্ড। এ ম্যাচে তাঁকে পাচ্ছে না পোল্যান্ড। চ্যাম্পিয়নস লিগ ও বুন্দেসলিগায় বায়ার্নের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও তাঁকে দেখা যাবে না।

পোলিশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘চোটের কারণে লন্ডনে বুধবার ২০২২ বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি খেলতে পারবেন না রবার্ট লেভানডফস্কি। তার ডান হাঁটুর লিগামেন্ট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।’

বায়ার্নের পক্ষ থেকে বিবৃতিতে বলা হয়, ‘রবার্ট লেভানডফস্কি ডান হাঁটুতে চোট পেয়েছেন। প্রায় চার সপ্তাহের জন্য তাঁকে মাঠের বাইরে থাকতে হবে। অ্যান্ডোরার বিপক্ষে ৩–০ গোলে জয়ের পর তিনি মিউনিখে ফিরে আসেন, জার্মান রেকর্ড চ্যাম্পিয়নদের চিকিৎসক দলে তাঁকে দেখার পর বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছেন।’

চ্যাম্পিয়নস লিগ ও বুন্দেসলিগা মিলিয়ে আগামী আট দিনের মধ্যে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ রয়েছে বায়ার্নের। শনিবার লিগ টেবিলে দ্বিতীয় লাইপজিগের মুখোমুখি হবে বায়ার্ন। এর চার দিন পর আরও গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ রয়েছে জার্মান ক্লাবটির।

চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনাল প্রথম লেগে নেইমার–এমবাপ্পেদের পিএসজির মুখোমুখি হবে তারা। ১৩ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে ফিরতি লেগ। এসব গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে লেভাকে পাবে না বায়ার্ন। এ ছাড়া বায়ার্ন কোয়ার্টার ফাইনাল জিতে সেমিতে উঠলেও সেখানে প্রথম লেগে লেভাকে না পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি ক্লাবটির, জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম।

চলতি মৌসুমে বায়ার্নের হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৩৬ ম্যাচে ৪২ গোল করেছেন ৩২ বছর বয়সী এ স্ট্রাইকার। গত কয়েক মৌসুম ধরেই দুর্দান্ত ফর্মে থাকা এ তারকা নিজের ফর্ম ধরে রেখেছেন এবারও। গত মৌসুমে ৪৭ ম্যাচে করেছিলেন ৫৫ গোল।

এ মৌসুমে বায়ার্নের হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মাত্র ৩ ম্যাচে খেলতে পারেননি তিনি। বায়ার্ন কোচ হ্যান্স ফ্লিক লেভার অনুপস্থিতিতে এখন দল গড়েন কীভাবে, সেটাই দেখার বিষয়। এরিক চুপো–মোটিং, টমাস মুলার, সের্জি গানাব্রে ও লেরয় সানের মতো বিকল্প আছে ফ্লিকের হাতে।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন