পিএসজি তারকা নেইমার। বার্সার সঙ্গে আবারও আদালতে দেখা হবে তাঁর?
পিএসজি তারকা নেইমার। বার্সার সঙ্গে আবারও আদালতে দেখা হবে তাঁর?ছবি: এএফপি

নেইমার বার্সেলোনা ছাড়ার পর কম জল ঘোলা হয়নি। প্রায় প্রতি দলবদলের মৌসুমেই শোনা গিয়েছে, নেইমারের বার্সায় ফেরার গুঞ্জন। এবারের দলবদলে অন্তত ব্রাজিলিয়ান তারকার বার্সায় ফেরার গুঞ্জন শোনা যায়নি। ইউরোপিয়ান সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, নেইমার-বার্সা পুনর্মিলনী না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

তবে কথাটা একটু ভিন্ন দৃষ্টিতে ভুল। নেইমার-বার্সা পুনর্মিলনীর সম্ভাবনা ভালোই দেখা যাচ্ছে। কিন্তু এই পুনর্মিলনী হতে পারে আদালতে, নেইমারের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে কাতালান ক্লাবটি।

বিজ্ঞাপন

সংবাদ সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, নেইমার ক্যাম্প ন্যূ-তে থাকতে তাঁকে পাওনার চেয়েও বেশি টাকা দেওয়া হয়েছে বলে মনে করছে বার্সা। এই অতিরিক্ত টাকা দেওয়ার পরিমাণ ১ কোটি ২০ লাখ ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১০১ কোটি টাকা), যা চেয়ে আদালতে মামলা করবে ক্লাবটি।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘এল মুন্দো’র প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে এ তথ্য। সান্তোস থেকে ২০১৩ সালে বার্সায় যোগ দেন নেইমার। ২০১৭ সালে রেকর্ড দলবদল ফি-তে পিএসজিতে যোগ দেন তিনি।

default-image

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম এল মুন্দোর বরাত দিয়ে এএফপি জানিয়েছে, স্পেনের কর কর্তৃপক্ষের তদন্তে নেইমারকে পাওনার বেশি টাকা দেওয়া নিয়ে বার্সার গড় মিলের বিষয়টি ধরা পড়েছে। ২০১৫ সাল পর্যন্ত বার্সার কর দেওয়া নিয়ে তদন্ত করেছিল স্পেনের কর কর্তৃপক্ষ। তাদের হিসেবে ধরা পড়ে ‘নেইমারের কর দেওয়ার সময় সঠিক হিসেব অনুযায়ী অর্থ কর্তন করেনি বার্সা।’

এল মুন্দোর প্রতিবেদনে আরও বলা হয় স্পেনের কর কর্তৃপক্ষ হিসেব করে বের করেছে, ‘অন্যায্যভাবে সমৃদ্ধকরণ’ এর কারণে লাভবান হয়েছেন নেইমার। এএফপিকে বার্সার এক সূত্র জানিয়েছে, ক্লাব এখন নেইমারের কাছে পাওনা টাকাটা চাইবে।

বিজ্ঞাপন

স্পেনের কর কর্তৃপক্ষের কাছে নেইমারের বকেয়া করের পরিমাণ অন্য যে কারও চেয়ে বেশি। গত সেপ্টেম্বরে প্রকাশিত এক হিসেব অনুযায়ী, বকেয়া কর বাবদ পিএসজি তারকার কাছে ৩ কোটি ৪৬ লাখ ইউরো পাওনা রয়েছে দেশটির কর কর্তৃপক্ষের।

শুধু কী তাই, স্পেনের রাজস্ব কর্তৃপক্ষ নেইমারের দুটি দলবদল নিয়ে তদন্ত করছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম। সান্তোস থেকে তাঁর বার্সায় আগমন এবং বার্সা থেকে পিএসজিতে যাওয়া—এ দুটি দলবদল নিয়ে তদন্ত করছে তারা।

এর মধ্যে ২০১৬ সালে বার্সার সঙ্গে নতুন চুক্তি করেছিলেন নেইমার। এ চুক্তি অনুযায়ী, আনুগত্য বোনাস হিসেবে তাঁর ২৬ মিলিয়ন ইউরো পাওয়ার কথা ছিল বার্সার কাছ থেকে। কিন্তু নেইমার পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পর বার্সা টাকাটা দিতে অস্বীকৃতি জানায়।

বিষয়টি আদালতে ওঠার পর গত জুনে নিজেদের পক্ষে রায় পায় বার্সা। উল্টো বার্সাকে ৬.৭৯ মিলিয়ন ইউরো পরিশোধের জন্য নেইমারকে নির্দেশ দেন আদালত। তবে নেইমারের সঙ্গে আর্থিক বিষয় নিয়ে বিরোধ থাকলেও তাঁকে ক্যাম্প ন্যু তে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করেছে বার্সা।

আপাতত বার্সার এমন চেষ্টা সফল হবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে আর্থিকভাবে ভীষণ বাজে অবস্থায় রয়েছে বার্সা।

মন্তব্য পড়ুন 0