নেইমারের সঙ্গে সম্পর্কটা বেশ ভালোই জমে উঠেছে এমবাপ্পের
নেইমারের সঙ্গে সম্পর্কটা বেশ ভালোই জমে উঠেছে এমবাপ্পেরছবি : রয়টার্স

পিএসজির আক্রমণভাগে কিলিয়ান এমবাপ্পের সঙ্গে জুটি বেঁধে আলো ছড়ান নেইমার। ইউরোপিয়ান ফুটবলের আক্রমণভাগে অন্যতম সেরা জুটি বলাই যায় তাঁদের। মাঠে দুজনের এই বোঝাপড়া কি দেখা যায় মাঠের বাইরেও?

অনুশীলনে বা মাঠে গোল উদ্‌যাপনের পর দুজনের খুনসুটিও বেশ চোখে পড়ে। বোঝা যায়, নেইমারের সঙ্গে সম্পর্কটা বেশ ভালোই জমে উঠেছে এমবাপ্পের। আর সেই সম্পর্কের পেছনের গল্পটাই এবার বললেন ২২ বছর বয়সী বিশ্বকাপজয়ী ফরাসি তারকা।

বিজ্ঞাপন

নেইমারকে ঘিরে যে আক্রমণভাগ গড়ে তোলার পেছনের কারিগর হিসেবে এমবাপ্পে কাজ করছেন। আর এই ভূমিকাটাও মেনে নিয়েছেন এমবাপ্পে। এভাবে সতীর্থকে সাহায্য করতে পেরে খুশি এই ফরাসি তারকা। ২০১৭ সালে বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দেন নেইমার। এমবাপ্পেকে পাশে নিয়ে পিএসজিতে তিনবার লিগ আঁ শিরোপা জিতেছেন।

কদিন আগেই নেইমার বলেছেন, ‘এমবাপ্পে যেন এই ক্লাবে থেকে যায়। কারণ, আমার মনে হয় সেটা পিএসজির সব সমর্থকেরই চাওয়া।’ নেইমারও এ মুহূর্তে পিএসজি ছাড়তে চান না। সব মিলিয়ে দুজনের মেলবন্ধন আরও সাফল্য এনে দেবে পিএসজিকে, এমনটাই চাওয়া পিএসজি–সমর্থকদের। দুজন একসঙ্গে আরও অনেক দিন খেলতে চান। এমবাপ্পেও জানালেন, নেইমারের সঙ্গে খেলতে তাঁর বেশ ভালোই লাগে, ‘আমি সব সময় বিশ্বাস করি, বিখ্যাত খেলোয়াড়দের একসঙ্গে খেলার জন্যই জন্ম। আমাদের দুজনের মধ্যেও এটা পরিষ্কার। নেইমার আক্রমণের মূল দায়িত্বে এবং আমি সেখানে তাঁকে সাহায্য করি। কারণ, আমি যখন এই ক্লাবে আসি, আমি শুধুই একজন তারকা ছিলাম, যে নিজের জায়গাটা ধরে রাখতে চাইত। তা ছাড়া তুলনা করলে আমি তাঁর এবং কাভানিরও (এদিনসন) পেছনে ছিলাম।’

এ মুহূর্তে পিএসজি ছাড়ার কথা মোটেও ভাবছেন না এমবাপ্পে। নতুন করে চুক্তি নবায়নের বিষয়টাও বিবেচনা করছেন। কিন্তু নেইমারের সঙ্গে খেলার জন্য তিনি সব রকমের সুযোগ পেতে মুখিয়ে আছেন। কারণ, নেইমার তাঁর খেলাকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে অনেক সাহায্য করেছেন, ‘শুরুতে তিনি আমাকে কতখানি সাহায্য করেছেন, সেটা মোটেও ভুলব না। মাত্র ১৮ বছর বয়সে যখন আমি এমন একটা বড় ক্লাবে আসি, এই পরিবেশে মানিয়ে নেওয়ার কাজটা মোটেও সহজ ছিল না। এত বড় ক্লাব। ওই সময় একজন সেরা খেলোয়াড় আমাকে এমন পরিবেশে কাছে ডেকে নিয়েছেন, যা অবশ্যই প্রচণ্ড সাহায্য করেছে এবং তা একদম ভোলার নয়।’

নেইমার যেন ফুটবলের নতুন দুনিয়ায় পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন এমবাপ্পেকে, ‘নেইমারের সঙ্গে থেকে আমি নতুন ধরনের ফুটবল শিখেছি। তাঁকে ধন্যবাদ যে আমি নিজের খেলার আরও উন্নতি করতে পেরেছি। কারণ, তিনি পাশে থাকা ফরোয়ার্ডদের সঙ্গে ওয়ান টাচ, টু টাচে খেলতে পছন্দ করেন। তিনি আমার খেলায়, মুভমেন্টে অনেক গতি ও বৈচিত্র্য এনেছেন।’

বিজ্ঞাপন

নেইমারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ এমবাপ্পে বলেন, ‘তিনি জানেন কীভাবে সবকিছু করতে হবে। তিনি অন্যদের চেয়েও অনেক ভালো জানেন। আমি জানি না, এটা সম্পর্কে সবাই সচেতন কি না। তা ছাড়া নেইমার সবকিছু বোঝেন। এটা চমৎকার। এটা খুব ভালো কিন্তু সহজ না। কারণ, তাঁর চাওয়া অনেক এবং তাঁর ওই চাওয়া ও মানসিকতার কারণে যারা আশপাশে খেলে তাদের সব সময় সতর্ক থাকতে হয়।’

এমবাপ্পের কথায়, এমন খেলোয়াড়ের বোঝার মতো ফুটবলারও দরকার ক্লাবে, ‘তাঁর মতো এমন বড় মাপের খেলোয়াড় কেনার পর অবশ্যই আপনাকে আরও এমন কাউকে কিনতে হবে, যে তাঁর সঙ্গে দুর্দান্ত রসায়ন গড়তে পারবে।’

default-image

দুজনের রসায়নে পিএসজিকে ভবিষ্যতে নিতে চান অনন্য উচ্চতায়, ‘তিনি আমার কথা শোনেন। আমরা আমাদের সম্ভাবনার ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ দিতে পেরেছি। আমি জানি, আমরা আরও বেশি কিছু দিতে পারি।’

দেখা যাক, দুজনের এই সম্পর্ক পিএসজিকে আর কী কী সাফল্য এনে দেয়!

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন