default-image

‘নেপাল আমার কাছে সৌভাগ্যের। কারণ নেপালেই জাতীয় দলের হয়ে প্রথম ম্যাচ খেলেছিলাম আমি।’ কাঠমান্ডুতে আসার আগে ঢাকায় কথাটি যখন বলছিলেন সোহেল রানা, তখনো কি ভেবেছিলেন—নেপালে এবার তাঁর জন্য কী অপেক্ষা করছে? না জানারই কথা!

জামাল ভূঁইয়ার অনুপস্থিতিতে জাতীয় দলের হয়ে প্রথম অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছেন অভিজ্ঞ এই মিডফিল্ডার। তিন জাতি টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে আগামীকাল কিরগিজস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচে সোহেল অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পালন করবেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে। আজ কাঠমান্ডুর পাঁচ তারকা হোটেলে টুর্নামেন্টের আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে সোহেলকে পাশে বসিয়েই বাংলাদেশের লক্ষ্যের কথা বলেছেন কোচ জেমি ডে। এর আগে অনূর্ধ্ব–২৩ দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন ২০১৪ সালে নেপালের মাটিতে জাতীয় দলে অভিষিক্ত সোহেল।

বিজ্ঞাপন
default-image

কলকাতা মোহামেডানের হয়ে আই লিগে খেলার জন্য কলকাতায় ছিলেন জামাল। ১৯ মার্চ ঢাকা ফিরে আজই কাঠমান্ডুতে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন তিনি। আগামীকালের ম্যাচে জামালের খেলা নিয়ে ভাবছেন না কোচ। জামালের একাদশে না থাকার কথা জেমি নিজেই নিশ্চিত করে দিয়েছেন, ‘জামালের কাল একাদশে না থাকাটাই স্বাভাবিক।’

তাহলে অধিনায়ক হবেন কে? কূটনৈতিক উত্তর দিয়েছেন জেমি, ‘কে অধিনায়ক হলো, এটা তেমন কোনো বিষয় নয়। অধিনায়কত্ব কে করল, এটা খুব বেশি বিবেচ্য নয়। আমাদের প্রয়োজন ১১ জন অধিনায়ক।’

দলের মধ্যে থেকেই খবর, অধিনায়ক হতে যাচ্ছেন সোহেল। এ ব্যাপারে সোহেল বলেন, ‘আমি শুনেছি আমাকে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব পালন করতে হবে। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছুই জানানো হয়নি।’ জামালের অনুপস্থিতিতে মাঝমাঠের দায়িত্বও নিতে হবে সোহেলকে, ‘দলকে সর্বোচ্চ সমর্থন দিতে হবে যেন সবাই ভালোভাবে পারফরম্যান্স করতে পারে; যেহেতু জামাল খেলছে না প্রথম ম্যাচটি। বিষয়টি চ্যালেঞ্জের। আমাদের বাকি মিডফিল্ডারদের চেষ্টা করতে হবে প্রাধান্য নিয়ে খেলতে।’

প্রথম ম্যাচের প্রতিপক্ষ কিরগিজস্তান হারাতে পারলে তিন দলের টুর্নামেন্টের ফাইনালে এক পা দিয়ে রাখা যাবে। তাই সোহেলের কাছে প্রথম ম্যাচের গুরুত্ব অপরিসীম, ‘কিরগিজস্তানের খেলোয়াড়েরা শারীরিকভাবে এগিয়ে থাকবে। তবে টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচটি ভালোভাবে শুরু করতে চাই আমরা। এটি জিততে পারলে ফাইনালে খেলতে সুবিধা হবে।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন