গোলের পর আগুয়েরোকে সতীর্থদের অভিনন্দন
গোলের পর আগুয়েরোকে সতীর্থদের অভিনন্দন এএফপি

ম্যাচের আগে ক্রিস্টাল প্যালেস কোচ রয় হজসন বলেছিলেন, পেপ গার্দিওলার এই ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে খেলতে গেলে এখন যেকোনো কোচের বুক ধড়ফড় করার কথা। মূলত কথাটা ছিল, পিএসজির বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালের প্রথম লেগে প্যারিসে পিএসজির বিপক্ষে গার্দিওলার দলের পারফরম্যান্স দেখে। এক গোলে পিছিয়ে থাকা ওই ম্যাচটা সিটি যেভাবে ২-১ গোলে জিতেছে, সেটাকে কৌশলগত দিক থেকে খুবই উচ্চমানের মনে করেন ফুটবল বোদ্ধাদের অনেকেই।

default-image

প্রিমিয়ার লিগে আজ ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে প্রথমার্ধে সেই চেনা সিটিকে দেখা না গেলেও দ্বিতীয়ার্ধেই গার্দিওলার দলকে খুঁজে পাওয়া গেল অন্য রূপে। সের্হিও আগুয়েরো, ফেরান তোরেসের গোলে ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত ২-০ ব্যবধানে জিতেছে ম্যান সিটি। ৩৪ ম্যাচে সিটির পয়েন্ট ৮০। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পয়েন্ট ৩৩ ম্যাচে ৬৭।

বিজ্ঞাপন

লিগে সিটির বাকি আর ৪ ম্যাচ , ইউনাইটেডের ৫ ম্যাচ। দুই দলের ব্যবধান ১৩ পয়েন্টের। তার মানে আগামীকাল লিভারপুলের কাছে ইউনাইটেড হারলেই প্রিমিয়ার লিগের চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে পেপ গার্দিওলার দল। লিভারপুল কি পারবে এই সপ্তাহেই প্রিমিয়ার লিগের ট্রফিটা সিটিকে উপহার দিতে?

default-image

পিএসজির বিপক্ষে ওই ম্যাচের শুরু একাদশ থেকে ৮টি পরিবর্তন এনে আজ প্যালেসের বিপক্ষে একাদশ সাজিয়েছেন গার্দিওলা। ওই ম্যাচের শুরুর ১১ জনের মধ্যে শুধু এদেরসন, ক্যানসেলো ও রদ্রি আজ একাদশে জায়গা পেয়েছেন। কারণটাও ম্যাচের আগেই বলেছেন গার্দিওলা, ‘আমরা প্যারিসে খেলে এসেছি মাত্র তিন দিন আগে। খেলোয়াড়েরা ভ্রমণ করে এসেছে। অনেকেই খুব ক্লান্ত। সামনে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। অনেকের ভালো বিশ্রাম দরকার।’

গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ মানে আসলে পিএসজির বিপক্ষে ইতিহাদে ফিরতি লেগ। প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা নিয়ে যেহেতু কোনো বড় দুশ্চিন্তা নেই, গার্দিওলার সব মনযোগ আপাতত চ্যাম্পিয়নস লিগেই। সে জন্যই কি না, প্যালেসের বিপক্ষে আজ প্রথমার্ধে সিটির সেই ধারালো পারফরম্যান্স দেখা যায়নি। বরং রয় হজসনের দলই একটু দাপুটে ছিল।

২৮ মিনিটে একটা ভালো সুযোগ পেয়েছিলেন প্যালেসের স্ট্রাইকার ক্রিস্টিয়ান বেনটেকে। কিন্তু কাছের পোস্টে নেওয়া তাঁর শট ফিরিয়ে দেন সিটির গোলরক্ষক এদেরসন। ৩৬ মিনিটে গ্যাব্রিয়েল জেসুস প্যালেসের জালে বল পাঠালেও সেটা অফসাইডের কারণে বাতিল হয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

বিরতির পর থেকেই প্যালেসের রক্ষণভাগকে চাপে ফেলে সিটি। ফল পেতেও দেরি হয়নি। ৫৭ মিনিটে বাঁ দিক থেকে বেঞ্জামিন মেন্দির ক্রস দারুণ ভাবে নামিয়ে প্যালেসের গোলরক্ষক গুইতার মাথার ওপর দিয়ে জালে পাঠান আগুয়েরো। ঠিক ৮৪ সেকেন্ড পরেই ব্যবধান দ্বিগুণ হয়ে যায় ফেরান তোরেসের দুর্দান্ত এক গোলে। পেপ গার্দিওলার অধীনে সব টুর্নামেন্ট মিলিয়ে এটা ছিল ম্যানচেস্টার সিটির ৭০০তম গোল। এই সময়ে প্রিমিয়ার লিগের অন্য যেকোনো ক্লাবের চেয়ে অন্তত ১৫৭ গোল বেশি।

default-image

ম্যাচের বাকি সময়টাও সিটি এত চাপিয়ে রেখেছে যে প্যালেস নিজেদের অর্ধ থেকেই উঠতে পারেনি। তৃতীয় গোলটা যে পায়নি গার্দিওলার দল, সেটা দুর্ভাগ্য ছাড়া আর কিছু না।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন