default-image

সাম্প্রতিক সময়ে বার্সেলোনার আর্থিক দুর্দশার প্রসঙ্গটি প্রকাশ্যে চলে এসেছে। তাদের দেনার পরিমাণ ১১৭ কোটি ৩০ লাখ ইউরো। অনেকেই তো বার্সেলোনার দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার ভয়ও পাচ্ছেন। এতে স্বাভাবিকভাবে উঠে এসেছে লিওনেল মেসি প্রসঙ্গও। কারণ, বার্সেলোনার ব্যয়ের বড় একটি অংশ চলে যায় দলের সেরা তারকার পেছনে। স্প্যানিশ দৈনিক এল মুন্দোর তথ্য অনুযায়ী শেষ চুক্তিতে চার বছরে মেসিকে ৫৫ কোটি ৫০ লাখ ইউরো দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বার্সেলোনা।

এমন অবস্থায় অনেকেই বলছেন, মেসিকে বিশাল অঙ্কের অর্থ দিয়ে দলে রাখতে গিয়েই দেনায় জর্জরিত হয়েছে কাতালান ক্লাবটি। এত দিন বার্সেলোনাকে মেসি যা দিয়েছেন, সমালোচকেরা তা বেমালুম ভুলে যাচ্ছেন। এমন পরিস্থিতিতে মেসি সঙ্গে পাচ্ছেন ভিক্তর ফন্তকে। মার্চে বার্সেলোনার সভাপতি নির্বাচনে লরতে যাওয়া ফন্তের মতে ক্লাব মেসিকে যে অর্থ দিয়েছেন, তা পারফরম্যান্স দিয়ে বহু আগেই শোধ করে দিয়েছেন আর্জেন্টাইন এই তারকা।

বিজ্ঞাপন

মার্চে মেসিদের ক্লাবের সভাপতি পদে নির্বাচন করতে যাওয়া ফন্ত টুইটারে লিখেছেন, ‘বার্সেলোনা যা দিয়েছেন, তার প্রতিটি পয়সা মেসির প্রাপ্য। আমাদের কোনো ক্ষতি তিনি করেননি। বরং তিনি ইতিহাসের সেরা খেলোয়াড় এবং আমরা তাঁকে সারা জীবন দলে দেখতে চাই।’ ওদিকে স্প্যানিশ সংবাদ এজেন্সি ইএফইর প্রতিবেদন, শুধু মেসির কারণে বার্সার প্রতি মৌসুমে আয় হয় ২৫ থেকে ৩০ কোটি ইউরো। সে অনুযায়ী প্রতিবছর বার্ষিক বেতন ও বোনাস যা পান, তার চেয়ে ১০ কোটি ইউরোরও অনেক বেশি বার্সেলোনাকে আয় করে দিয়েছেন মেসি।

জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ পদত্যাগ করার পর থেকেই বার্সেলোনার সভাপতির পদ শূন্য। ২৪ জানুয়ারির নির্বাচনে নতুন সভাপতি পাওয়ার কথা ছিল বার্সেলোনার। কিন্তু করোনার কারণে সে নির্বাচন পিছিয়ে গেছে। আগামী মার্চে সভাপতি পদে নির্বাচন। সেখানে সাবেক সভাপতি হোয়ান লাপোর্তার বিপক্ষে লড়তে যাচ্ছেন স্প্যানিশ এই ব্যবসায়ী।

default-image

বার্সেলোনার সভাপতি পদে নির্বাচন করতে যাওয়া মানেই মেসিকে সন্তুষ্ট রাখা। শুধু মেসি বা মেসি–সমর্থকদের সন্তুষ্ট রাখছেন না তিনি। হোয়ান লাপোর্তা ও টনি ফ্রেইসার সঙ্গে সভাপতির লড়াইয়ে নামতে যাওয়ার আগে এই স্প্যানিশ ব্যবসায়ী খেলোয়াড় কেনার একটা পরিকল্পনাও তুলে ধরেছেন। বাস্তবমুখী সেই পরিকল্পনায় তিনি উল্লেখ করেছেন, ক্লাবের সভাপতি হলে তিনি কাকে কাকে দলে আনতে চান। জাভিকে কোচ বানানোর প্রতিজ্ঞা তো এক বছর আগেই করেছেন, আর চোখ কপালে তুলে দেওয়া বেতনেও যে মেসিকে ধরে রাখবেন, সেটাও আজকের টুইটে বলে দিলেন।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন