বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

অবশ্য কার ঢঙে গোল দুটি করেছেন, তা বলতে গিয়ে একটু ভাবতে হলো রিয়াদুল করিমকে। ম্যাচের পর রিয়াদুল করিমের কপট গাম্ভীর্য, ‘লিখে দাও, মেসির মতো; না না, নেইমারের মতো করে দুই গোল করেছেন রিয়াদুল করিম!’

বেলুন ফোলানো সেখানেই শেষ হলো না; তাঁর পরের দাবি, ‘আর বোলো না, ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা থেকে এরই মধ্যে ফোনের পর ফোন আসছে। পরের বিশ্বকাপে ওদের হয়ে খেলতে বলছে!’

default-image

নকআউট এই টুর্নামেন্টটি ‘সিক্স-আ-সাইড’, অর্থাৎ মাঠে এক দলে একসঙ্গে সর্বোচ্চ ছয়জন খেলোয়াড় খেলতে পারবেন।

প্রথম আলোর কূটনৈতিক প্রতিবেদক রাহীদ এজাজ ছিলেন দলের ব্যবস্থাপক। কোচ ছিলেন প্রথম আলোর বাণিজ্য বিভাগের সম্পাদক সুজয় মহাজন।

দলের খেলোয়াড়রা হলেন স্টাফ রিপোর্টার মোহাম্মদ মোস্তফা, স্টাফ রিপোর্টার নুরুল আমিন, জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক আসাদুজ্জামান, জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক আরিফুর রহমান, জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক সানাউল্লাহ সাকিব ও জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রিয়াদুল করিম।

এর বাইরে প্রতিটি দলে একজন করে অতিথি খেলোয়াড় খেলতে পারেন, এবার প্রথম আলোর সেই অতিথি খেলোয়াড়—আলোকিত বাংলাদেশের ক্রীড়া প্রতিবেদক শফিক কলিম।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন