default-image

রিয়াল মাদ্রিদের ডাগআউটে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, করিম বেনজেমা, সের্হিও রামোস, লুকা মদরিচদের নিয়ে ইতিহাস গড়েছেন জিদান। প্রথম দফায় আড়াই মৌসুমে টানা তিন চ্যাম্পিয়নস লিগসহ জিতেছেন ৯টি শিরোপা, দ্বিতীয় দফায় ফেরার পর রোনালদোহীন রিয়ালকেও দুই মৌসুমে লিগ আর স্প্যানিশ সুপার কাপ জিতিয়েছেন। খেলোয়াড় হিসেবে কিংবদন্তি জিদানের কোচ হিসেবে রেকর্ডটাও চোখধাঁধানো।

গার্দিওলা-কন্তের মতো ট্যাকটিকস নিয়ে কপালে ভাঁজ ফেলার মানুষ তিনি নন, ক্লপের মতো খ্যাতিও তাঁর নেই। তবে তারকাসমৃদ্ধ ড্রেসিংরুম কীভাবে সামলাতে হয়, সেটি জিদানের চেয়ে ভালো সম্ভবত খুব কম কোচই জানেন। আর পিএসজির ড্রেসিংরুম তো ঠিক তা-ই, তারকাসমৃদ্ধ। মেসি, নেইমার, রামোস, ভেরাত্তি...তারকাদের তালিকায় আগামী মৌসুমে এমবাপ্পের নামটাও থাকবে কি না, তা নিয়ে সংশয় আছে।

তবে তারকাসমৃদ্ধ এই দল নিয়েও এই মৌসুমে লিগ ছাড়া আর কিছুই জেতেনি পিএসজি, চ্যাম্পিয়নস লিগে রিয়ালের কাছেই হেরে বাদ পড়েছে শেষ ষোলোতে। এর পর থেকেই পচেত্তিনোর পিএসজি থেকে বিতাড়িত হওয়ার গুঞ্জন, পচেত্তিনো নিজেও পিএসজিতে আর থাকতে চান না বলে শোনা যায়। আর্জেন্টাইন কোচের পূর্বসূরি হিসেবে জিদানই যাবেন পিএসজিতে? গুঞ্জনের পালে হাওয়া লাগবে নোয়েল লো গ্রায়েতের কথায়।

ফরাসি ক্রীড়া দৈনিক লে’কিপে ফ্রান্সের ফুটবল ফেডারেশনের প্রধান লো গ্রায়েত বলেছেন, ‘জিদান হয়তো পিএসজির চাকরিটা নিতে পারে।’

জিদানকে কোচ হিসেবে পেতে পিএসজির আগ্রহ যে তুঙ্গে, সেটি এখন সর্বজনবিদিত। পিএসজির মালিক কাতারের আমিররাও জিদানকেই চান। কিন্তু সে পথে এত দিন বাধা হিসেবে শোনা গেছে ফ্রান্স জাতীয় দলের কোচ হতে জিদানের আগ্রহের কথা। এই মুহূর্তে দিদিয়ের দেশম ফ্রান্সের কোচ। এমবাপ্পেদের ২০১৮ বিশ্বকাপ জেতানো কোচ এবার কাতার বিশ্বকাপের পর ফ্রান্সের কোচ থাকবেন কি না, সেটি নিয়ে অবশ্য সংশয় আছে। দেশমের উত্তরসূরি হিসেবেই এত দিন শোনা যেত, ১৯৯৮ সালে ফ্রান্সকে বিশ্বকাপ জেতানো দলে দেশমের সতীর্থ জিদানই নেবেন ফ্রান্সের দায়িত্ব।

কিন্তু নোয়েল লো গ্রায়েত বলছেন, ‘আমি তো এমনটা ভেবে বসে নেই যে ‘‘আশা করি দিদিয়ের (চুক্তি নবায়নে) না বলবে, তাহলে আমি জিদানকে নিতে পারব।’’ দেখা যাক কী হয়। ফ্রান্স দলের কোচ হওয়ার জন্য আপনাকে অন্য কোনো চাকরি থেকে মুক্ত থাকতে হবে। আপাতত আমাদের সব চেষ্টা দিদিয়েরকে এবারের বিশ্বকাপ জেতানোর মতো সেরা অবস্থায় রাখাকে কেন্দ্র করেই।’

default-image

আর জিদান? দেশম ফ্রান্স দলে না থাকলে জিদানের কথাই ভাববেন বলে জানিয়ে রেখেছেন লো গ্রায়েত, ‘ওর যে দক্ষতার কথা আমরা সেভাবে ভাবিইনি, মাদ্রিদে জিদান সেটা দেখিয়ে দিয়েছে। ফরাসিদের চোখে সে (ফ্রান্স দলে বর্তমান কোচ দিদিয়ের দেশমের) উত্তরসূরি হতে পারে। তবে এটিকে তো একেবারে আমার লক্ষ্য বানিয়ে রাখিনি। দেখা যাক কী হয়। যদি দিদিয়ের ও আমি চুক্তি শেষ করার কথা ভাবি, সে ক্ষেত্রে সে (জিদান) আমাদের পছন্দের তালিকায় থাকবে।’

তার আগে জুনেই তাঁকে কোচ করে নিতে চাইবে পিএসজি। এমবাপ্পেকে ক্লাবে রাখার জন্যও যে তাঁদের জিদানকে দরকার। জিদান যে এমবাপ্পের আদর্শ, সেটি এমবাপ্পে অনেকবারই জানিয়েছেন। জিদান কোচ হয়ে পিএসজিতে যাবেন, এমন সম্ভাবনা এমবাপ্পেকে পিএসজিতে চুক্তি নবায়নের কথা দ্বিতীয়বার ভাবতে বাধ্য না করে পারে না।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন