ফারাজ গোল্ডকাপের শিরোপা গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের

বিজ্ঞাপন
সাবেক ফুটবলারদের সংগঠন সোনালী অতীত ক্লাব আয়োজন করেছিল ফারাজ আন্তবিশ্ববিদ্যালয় ফুটবল প্রতিযোগিতা। তৃতীয় আসরে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়েছে গণ বিশ্ববিদ্যালয়। টুর্নামেন্টের প্রধান পৃষ্ঠপোষক ইউনাইটেড গ্রুপ, সহযোগী পৃষ্ঠপোষক হা-মীম গ্রুপ ও শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের অ্যাথলেটিকস ট্রাকের চার পাশে শোভা পাচ্ছে ফারাজ আইয়াজ হোসেনের বিশাল আকারের বেশ কয়েকটি পোস্টার। ঠোঁটে স্নিগ্ধ হাসি দিয়ে সবাইকে যেন অলক্ষ্যে শান্তি ও ভ্রাতৃত্বের বার্তা দিচ্ছেন তরুণ ফায়াজ। হোলি আর্টিজান হামলার প্রাণ হারানো এই তরুণের আদর্শকে সামনে রেখেই তৃতীয়বারের মতো আয়োজিত হয়ে গেল ফারাজ আন্তবিশ্ববিদ্যালয় ফুটবল প্রতিযোগিতা। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আজ শিরোপার লড়াইয়ে সাউথইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়কে টাইব্রেকারে ৪-২ গোলে হারিয়ে টুর্নামেন্ট প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়েছে গণ বিশ্ববিদ্যালয়। নির্ধারিত সময়ে ছিল গোলশূন্য ড্র।

default-image

ম্যাচটি হয়েছে ফাইনালের মতোই জম্পেশ। দুই দলের খেলার মধ্যেই ছিল সৌন্দর্য ও পরিকল্পনার ছাপ। সবচেয়ে বেশি ছিল নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য লড়িয়ে মনোভাব। গ্যালারি থেকে তাদের অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। জয়-পরাজয় ছাপিয়ে ম্যাচটি যেন হয়ে উঠেছিল দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের মর্যাদার লড়াই।

default-image

ম্যাচটি নির্ধারিত সময়েই শেষ হতে পারত। কিন্তু তা হতে দেয়নি ক্রসবার ও দুই দলের গোলরক্ষক। দুই দলেরই একটি করে শট ক্রসবারে লেগে ফিরে আসে। পরাজিত দলের গোলরক্ষক আবদুর রহমান ছিলেন দুর্দান্ত। দ্বিতীয়ার্ধের ৫ মিনিটে ফ্রিকিক থেকে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের আশরাফুলের চমৎকার শট রুখে দেন সাউথইস্টের এই গোলরক্ষক। ১৪ মিনিটে সাউথ ইস্ট ইউনিভার্সিটির আওরঙ্গজেবের শট পোস্টে ফিরে আসলে এগিয়ে যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ হারায় তারা। ১৮ মিনিটে সাখাওয়াতের বাড়িয়ে দেওয়া পাস থেকে গোল করার সুযোগ পায় গবির তারেক। কিন্তু এবারও তাঁকে সুযোগ বঞ্চিত করেন গোলরক্ষক আবদুর রহমান।

দুই অর্ধে ৩৫ মিনিটের খেলা গোলশূন্য ড্র হওয়ায় খেলা সরাসরি গড়ায় টাইব্রেকারে। স্নায়ুর লড়াইয়ে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের নেওয়া পাঁচ শটের চারটিতে গোল করেছেন সজীব রাজবংশী, সাখাওয়াত হোসেন, রিপন মোল্লা ও বিবেক মন্ডল। শুধু রাসেল মুন্সীর শট ঠেকিয়ে দেন সাউথ ইস্টের গোলরক্ষক আবদুর রহমান। কিন্তু সাউথ ইস্টের ইসমাইল হোসেন ও মোস্তাকিম শাহরিয়ার প্রথম দুটি শটে গোল করতেই পারেননি। দুজনের শটই ক্রসবারে গিয়ে লাগে। টাইব্রেকারে সেই যে পিছিয়ে পড়ে, এরপর আর সমতায় ফিরতে পারেনি সাউথ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়।

default-image

টুর্নামেন্ট শেষে চ্যাম্পিয়ন দলের হাতে ৩ লাখ টাকার প্রাইজমানি ও ট্রফি তুলে দেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের রাসেল মুন্সীর হাতে গোল্ডেন বুট তুলে দেন ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ অ্যান্ড কোম্পানির পরিচালক খন্দকার জায়েদ আহসান। টুর্নামেন্টের সেরা গোলরক্ষক গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শামীম হাসান, সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার জিতেছেন ফার ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের উসাই মারমা। উপস্থিত ছিলেন ফারাজ ফাউন্ডেশনের মহাসচিব বিনয় দাস, আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক হারুনুর রশীদ, টুর্নামেন্টের সদস্য সচিব ও জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার শেখ মোহাম্মদ আসলাম, হাসানুজ্জামান বাবলু, সত্যজিত দাস রুপু, প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান, সাংসদ সাইফুজ্জামান শিখরসহ অনেকে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন