ইউক্রেনে হামলা চালানোর পর ফিফা ও উয়েফা পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত রাশিয়ার জাতীয় দল ও ক্লাবগুলোকে নিজেদের প্রতিযোগিতা থেকে নিষিদ্ধ করে। পোল্যান্ডের বিপক্ষে ২৪ মার্চ বিশ্বকাপ বাছাইয়ে প্লে অফ ম্যাচ খেলার কথা ছিল রাশিয়ার।

কিন্তু রাশিয়াকে নিষিদ্ধ করায় পোল্যান্ডকে প্লে অফ ফাইনালে ওঠার ছাড়পত্র দিয়ে দেয় ফিফা। পরে ফাইনালে সুইডেনকে হারিয়ে কাতার বিশ্বকাপে খেলার টিকিট পায় রবার্ট লেভানডফস্কির পোল্যান্ড।

ইউক্রেনে হামলাকে ‘বিশেষ সামরিক অভিযান’ বলছে রাশিয়া। শুধু ফুটবল না, আন্তর্জাতিক জিমন্যাস্টিকস, রাগবি, রোয়িং ও স্কেটিং থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে সিএএসে আপিল করেছিল রাশিয়া। গত মাসে তার শুনানিতে ফিফার নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে রাশিয়ার আবেদন নাকচ করে দেয় সিএএস।

এখন সেই আপিলই তুলে নিল রাশিয়া। এর আগে পোল্যান্ড, সুইডেন ও চেক প্রজাতন্ত্রের ফুটবল ফেডারেশন জানিয়ে দেয়, তারা রাশিয়ার বিপক্ষে খেলবে না।

সিএএসের এক মুখপাত্র বলেছেন, ‘গোটা প্রক্রিয়া দ্রুতই শেষ করা হবে।’ সংবাদ সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, উয়েফার বিরুদ্ধে আপিল অব্যাহত রাখবে রাশিয়া। নিজেদের মহাদেশীয় প্রতিযোগিতায় রাশিয়াকে নিষিদ্ধ করেছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা উয়েফা।

সিএএস জানিয়েছে, রাশিয়ান ক্লাবগুলোর ওপর উয়েফার নিষেধাজ্ঞা তারা তুলে নেবে না এবং চূড়ান্ত শুনানির দিন খুব দ্রুতই ধার্য করা হবে।

ফিফার বিরুদ্ধে আপিল তুলে নেওয়ায় নিশ্চিত হলো, কাতার বিশ্বকাপে রাশিয়ার ছেলেদের দলকে দেখা যাচ্ছে না। এ বছর মেয়েদের ইউরোতেও দেখা যাবে না রাশিয়াকে। সিএএসের বিবৃতিতে বলা হয়, গত ৩০ মার্চ এফইউআর জানায়, ‘তারা (ফিফার বিরুদ্ধে) আপিল তুলে নিয়েছে।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন