default-image

ঘরোয়া ফুটবল বন্ধ থাকায় বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে কমে গেছে ফুটবলারদের যাওয়া-আসা। তবে আজ বিকেলে যেন আড়মোড়া ভেঙে জেগে ওঠে পল্টন আউটার স্টেডিয়াম। শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে ‘আমরা কোচেস অ্যাসোসিয়েশনের’ ব্যানারে একটা প্রীতি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করেন স্থানীয় ফুটবল কোচ কামাল বাবু। প্রিমিয়ার লিগে খেলা স্থানীয় ফুটবলারদের সঙ্গে ম্যাচটি খেলেছেন বিদেশি ফুটবলাররা।

আউটার স্টেডিয়ামে সাধারণত ছোটখাটো একাডেমি দলগুলোর ফুটবলার অনুশীলন করেন। ফাঁক পেলে মাঝেমধ্যে নিজেরাই খেলে প্রীতি ম্যাচ। অতি উৎসাহী কিছু পথ চলতি দর্শক দাঁড়িয়ে ওই সময় ফুটবল দেখেন। কিন্তু আজকের ম্যাচ দেখতে মাঠের চারপাশে প্রচণ্ড ভিড় জমেছিল। স্থানীয় ফুটবলারদের পায়ে বল গড়াতেই, উল্লাসে মেতে ওঠে দর্শকেরা।

বিজ্ঞাপন

করোনার পর আবারও ফুটবল ফেরায় খুশি নাইজেরিয়ান ডিফেন্ডার বেইবেক, ‘করোনা বিরতির পর আবারও আমরা মাঠে ফিরতে পেরেছি। যখন খেলা ছিল না তখন আমরা খুব হতাশ হয়ে পড়েছিলাম। লিগটাও বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত আবারও খেলা শুরু হচ্ছে। এভাবে ফুটবলারদের বল নিয়ে দৌড়ানো দেখতেই ভালো লাগছে আমার। এটা যদিও প্রীতি ফুটবল কিন্তু শতভাগ উজাড় করেই খেলছে সবাই। মাঠে ফিরতে পেরেছি বলেই আমরা আনন্দিত।’

এর আগেও একবার বিদেশিদের সঙ্গে জাতীয় দলের স্থানীয় ফুটবলারদের প্রীতি ম্যাচের আয়োজন করেন কোচ কামাল বাবু। তবে এবারের প্রেক্ষাপট একেবারে আলাদা। করোনায় স্থবির হয়ে পড়া ফুটবলে প্রাণ ফেরাতেই এমন আয়োজন কামাল বাবুর, ‘করোনাকে ভয় না করে সঠিক নিয়ম কানুন মেনে যদি খেলাধুলা করতে পারি তাহলে আমাদের জীবনযাত্রা আবারও স্বাভাবিক হয়ে আসবে। এই ম্যাচ দিয়ে ফুটবলাররা এ বিষয়ে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছে। বিদেশি ফুটবলাররা সহযোগিতা করেছে বলে তাদের ধন্যবাদ।’

আগামী ১৩ ও ১৭ নভেম্বর নেপালের সঙ্গে দুটি প্রীতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ জাতীয় দল। বিদেশি এই ফুটবলারদের সঙ্গে জাতীয় দলের ফুটবলারদের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলানোর প্রস্তাব দিয়ে রাখলেন কামাল বাবু, ‘আমাদের ইচ্ছা আছে এই বিদেশি ফুটবলারদের সঙ্গে জাতীয় দলের একটা ম্যাচ খেলানোর। তাহলে জাতীয় দলের ফুটবলাররাও ম্যাচের (নেপাল) আগে নিজেদের অবস্থান সম্পর্কে একটা ধারণা পাবে।’
ঢাকায় খেলতে আসা বিদেশিদের মধ্যে নতুনদের সুযোগ দেওয়া হয়েছে এই প্রীতি ম্যাচে। মাঠে নেমে নিজেদের ঝালিয়ে নিতে পেরে খুশি সবাই। নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড এবেল বলছিলেন, ‘অনেক দিন পর মাঠে ফিরেছি, এ জন্য ভালো লাগছে। বাংলাদেশে এটাই আমার প্রথম ম্যাচ। আশা করি নতুন মৌসুমে একটা ভালো দল খুঁজে পাব আমি।’

মাঠের চারপাশে রশি টাঙিয়ে সীমানা বেঁধে দেয় আয়োজকেরা। রশি ঘেঁষে দাঁড়িয়ে ফুটবল উপভোগ করেন জাতীয় পরিকল্পনা উন্নয়ন একাডেমির কর্মকর্তা মোহাম্মদ রিপন। এই ম্যাচ দেখতেই মাঠে এসেছেন তিনি, ‘লকডাউনের পর আজই প্রথম মাঠে খেলা দেখছি। ইউরোপিয়ান লিগ তো টেলিভিশনে নিয়মিতই দেখি। কিন্তু সরাসরি মাঠে বসে খেলা দেখার একটা অন্যরকম রোমাঞ্চ আছে। খেলা দেখব বলেই ছুটে এসেছি মাঠে। এখানে আসতে পেরে খুব ভালো লাগছে।’

বিজ্ঞাপন
default-image

প্রীতি ম্যাচে ২-১ গোলে ঢাকা একাদশকে হারিয়েছে বিদেশি একাদশ। বিদেশিদের হয়ে দুটি গোল করেছেন নাইজেরিয়ান ফুটবলার এবেল ও ইভান্স। ঢাকা একাদশের একমাত্র গোলটি করেছেন রুবেল হোসেন।

এত দিন ফুটবলাররা শুধুই নিজেদের অনুশীলনের মধ্যে সীমাবদ্ধ রেখেছিলেন। কিন্তু মাঠে নেমে বলের পেছনে ছুটতে পেরে খুশি এই ফুটবলাররা। দিন শেষে জয়-পরাজয়ের তাই কোনো মূল্যই ছিল না দুই দলের কারওর মধ্যে। হাসতে হাসতে মাঠ ছেড়েছেন ফুটবলাররা।

মন্তব্য পড়ুন 0