গোলের পর বসুন্ধরার তপু বমর্ণের উল্লাস।
গোলের পর বসুন্ধরার তপু বমর্ণের উল্লাস।ছবি: প্রথম আলো

৫৭ মিনিট পর্যন্ত ম্যাচ গোলশূন্য ড্র। বসুন্ধরা কিংসের বিপক্ষে লড়াইটা ভালোই চালিয়ে নিচ্ছিল বাংলাদেশ পুলিশ ক্লাব। খেলার ধরন দেখে অনেকেই ধরে নিয়েছিলেন প্রিমিয়ার লিগে আজ বসুন্ধরাকে আটকে দেবে পুলিশ।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ম্যাচটি ২–০ গোলে জিতেছে বর্তমান লিগ চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা।

এত দিন বসুন্ধরার জয় মানেই শিরোনামে থাকত লাতিন ঝলক। সাধারণত ব্রাজিল বা আর্জেন্টাইন খেলোয়াড়দের গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে তারা। আজ বসুন্ধরাকে জিতিয়েছেন স্থানীয়রা। দ্বিতীয়ার্ধে একটি করে গোল করেছেন তৌহিদুল আলম ও তপু বর্মণ।

তবে পুলিশের সাহসী পারফরম্যান্সের প্রশংসা করতেই হবে। সাধারণত বসুন্ধরার বিপক্ষে প্রায় প্রতিটি দলই রক্ষণ সামলানোর দিকে বেশি মনোযোগ থাকে। পুলিশ সেটি না করে দুই স্ট্রাইকার খেলিয়ে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

প্রথম গোল হজমের আগপর্যন্ত বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে সমানতালে লড়াইও করেছে। হাফ প্রেসিং করে মাঝমাঠেই রবসন, জোনাথনদের আটকে রেখেছিলেন পুলিশের খেলোয়াড়েরা। মাঠের লড়াইয়ের উত্তাপ ছড়িয়েছিল ডাগ আউটেও। বসুন্ধরার স্প্যানিশ কোচ অস্কার ব্রুজোন ও পুলিশের শ্রীলঙ্কান কোচ পাকির আলির মধ্যে হয়েছে কথার লড়াইও।

default-image

আর্জেন্টিনার নিয়মিত স্ট্রাইকার রাউল বেসেরাকে ছাড়াই আজ মাঠে নেমেছিল বসুন্ধরা। তাঁর অভাব কিছুটা হলেও দেখা গেছে। এর মধ্যে পেনাল্টি মিস করে দলকে চাপে ফেলে দেন দলের ব্রাজিলিয়ান প্রাণভোমরা রবসন রবিনিও—গোল করা যাঁর কাছে মুড়িমুড়কির মতো ব্যাপার। ১৪ গোল করে সর্বোচ্চ গোলদাতার আসনে থাকা সেই রবসনই আজ স্পট কিক থেকে বল জালে পাঠাতে পারলেন না!

১৬ মিনিটে বক্সের মধ্যে বল দখলের লড়াইয়ে জোনাথন ফার্নানদেজকে আরিফ খান জয় ফাউল করলে পেনাল্টি পায় বসুন্ধরা। স্পট কিক থেকে বল জালে জড়াতে ব্যর্থ হন রবসন। তাঁর শট বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে রক্ষা করেন পুলিশের গোলরক্ষক আরিফুজ্জামান হিমেল। ম্যাচের ৫৮ মিনিটে তৌহিদুলকে গোল করিয়ে কিছুটা শাপমোচন করেছেন রবসন। তাঁর বাতাসে ভাসানো পাসে বক্সে লাফিয়ে উঠে হেডে গোলটি করেন তৌহিদুল। লিগে এটি তাঁর চতুর্থ গোল।

এতেই যেন খুলে গেল পুলিশের রক্ষণভাগের তালা। এর পরে একচ্ছত্র দাপট দেখিয়েছে বসুন্ধরা। ৪ মিনিট পরেই ২–০ করেছেন অধিনায়ক ও সেণ্টারব্যাক তপু বর্মণ। জোনাথনের ফ্রি কিকে বক্সের মধ্যে থেকে হেডে গোলটি করেন তপু। লিগে এটি তাঁর প্রথম গোল।

default-image

২–০ গোলে পিছিয়ে পড়া পুলিশের সামনে বাধা হয়ে দাঁড়ায় সাইড পোস্ট। ৮৬ মিনিটে পুলিশের আইভরি কোস্টের ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ান কুয়াকুর ফ্রিকিক সাইড পোস্টে লেগে ফিরে আসে। আগের ম্যাচে আবাহনী লিমিটেডের বিপক্ষে জোড়া গোল করা এই স্ট্রাইকারকে আজ কড়া মার্কিংয়ে রেখেছিলেন বসুন্ধরার দুই সেন্টারব্যাক তপু ও খালিদ শাফিহ।

৯ মে এএফসি কাপ খেলতে যাওয়ার আগে ৭ মে ঈদের আগে শেষ ম্যাচটি খেলবে বসুন্ধরা। আজকের জয়ে তাদের শীর্ষস্থানটা আরও সুসংহত হলো। ১৪ ম্যাচে ৪০ পয়েন্ট তাদের। সমানসংখ্যক ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে নবম স্থানে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন