বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

৭৩ মিনিটে কর্নার পেল বাংলাদেশ। ওপরে উঠে গেলেন ইয়াসিন। ৭৪ মিনিটে গোল করে বাংলাদেশকে ফেরালেন সমতায়। অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার কর্নার থেকে উড়ে আসা বলে কাছের পোস্ট থেকে ফ্লিক করেন সাদ উদ্দিন। সে বলে দূরের পোস্ট থেকে মাথা ছুঁয়ে গোলটি করেন ফাঁকায় থাকা ইয়াসিন। জাতীয় দলের জার্সিতে পাঁচ ম্যাচ খেলে এটিই তাঁর প্রথম গোল। লিগে ও বয়সভিত্তিক ফুটবলে অবশ্য বেশ কয়েকটি গোল আছে তাঁর।

default-image

২০১৯ সালে জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার আগে বয়সভিত্তিক দলগুলোর নিয়মিত মুখ ইয়াসিন। ২০১৭ সালে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপে তাঁর নেতৃত্বেই কাতারকে হারিয়ে চমক সৃষ্টি করেছিল বাংলাদেশ। কিশোর সাফে গোলও আছে একটি। অনূর্ধ্ব-১৮ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ ও অনূর্ধ্ব-১৯ এএফসি চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্ব মিলিয়ে গোল আছে আরও ৩টি।

এর আগে প্রায় প্রতিটা বয়সভিত্তিক দলের জার্সিই উঠেছে তাঁর গায়ে। ২০১৫ সালে অনূর্ধ্ব-১২ ও ২০১৬ সালে অনূর্ধ্ব-১৪ দলের সদস্য হিসেবে মালয়েশিয়ায় মক কাপ জেতার অভিজ্ঞতা আছে। ২০১৯ সালে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে মালদ্বীপ চ্যাম্পিয়ন টিসি স্পোর্টসের বিপক্ষে তাঁর গোলটি এখনো চোখে লেগে থাকার কথা। বাঁ প্রান্ত থেকে নেওয়া তাঁর ক্রস মালদ্বীপ গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে জড়িয়ে যায় জালে।

default-image

২০১৮ সাল থেকে সাইফ স্পোর্টিংয়ে খেলছেন ইয়াসিন। সে বছরই ২ লাখ ডলারের রিলিজ ক্লজে তাঁর সঙ্গে ৩ বছরের চুক্তি করে সাইফ। বাংলাদেশের ফুটবলে রিলিজ ক্লজের ব্যাপারটি এসেছে সে চুক্তির সুবাদে। তিন মৌসুম খেলে দলটির হয়ে প্রিমিয়ার লিগের ৫২ ম্যাচে ৪ গোল করেছেন। ফেডারেশন কাপের ৯ ম্যাচে আছে ৩ গোল। এই বছর অবশ্য সাইফ ছেড়ে তাঁর বসুন্ধরা কিংসে যোগ দেওয়াটা প্রায় নিশ্চিতই।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন