বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দলের পেসার সুমন খান
বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দলের পেসার সুমন খান ছবি: প্রথম আলো

সাবেক পাকিস্তানি ক্রিকেটার শহীদ আফ্রিদির বয়স নিয়ে আলোচনা কম হয় না। ২২ বছর বয়সী আফগানিস্তান লেগ স্পিনার রশিদ খানও ক্যারিয়ারের শুরু থেকে বয়স নিয়ে রসিকতার পাত্র হয়ে আসছেন।

ফেসবুক, টুইটারের যুগে বয়স নিয়ে সমর্থকদের খোঁচা নিশ্চয়ই রশিদের কানেও যায়। বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দলের কোচ টবি রেডফোর্ডের টুইট দেখলে রশিদ-ই হয়তো বাংলাদেশি সমর্থকদের কিছু কথা শুনিয়ে দিতে চাইবেন।

বিজ্ঞাপন
default-image

গতকাল হাই পারফরম্যান্স দলের পেসার সুমন খানের বয়স নিয়ে বেশ মজাই করলেন রেডফোর্ড। নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে মজার ছলে রেডফোর্ড লিখেছেন, ‘বাংলাদেশের দুর্দান্ত এক তরুণ পেসারকে তাঁর বয়স কত জিজ্ঞেস করে দারুণ উত্তর পেয়েছি, “কোচ, আমার বয়স ২৪, কিন্তু আমার পাসপোর্টে বয়স ২১।’ ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে আবার সুমনের ছবি দিয়ে একই কথা লিখেছেন রেডফোর্ড।

default-image

পাকিস্তান ক্রিকেট দীর্ঘদিন ধরেই বয়স কারচুপি বিতর্কের সঙ্গে জড়িত। নিকট অতীতেই এর তাজা উদাহরণ আছে। গত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপেই পেসার নাসিম শাহর বয়স কারচুপির অভিযোগ ওঠে। শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ দেওয়া হয় এ পেসারকে। অলরাউন্ডার মোহাম্মদ শেহজাদের নামও দল থেকে সরিয়ে নিতে হয়।

বিজ্ঞাপন

পাকিস্তান ক্রিকেটের এই সমস্যা নিয়ে কড়া সমালোচনা করে সাবেক ক্রিকেটার রশিদ লতিফ লিখেছেন, ‘পাকিস্তান ক্রিকেট অনূর্ধ্ব-১৯ থেকে অনূর্ধ্ব-১৬ তে, অনূর্ধ্ব-১৬ থেকে যাচ্ছে অনূর্ধ্ব-১৩ তে। সেখান থেকে যাচ্ছে মায়ের কোলে। পিসিবি, দয়া করে ক্রিকেটারদের বয়স ঠিক করুণ। ডিপ্লোমা ডাক্তারদের দিয়ে কাজ করিয়ে মর্যাদা হারাবেন না। নিজেদের হাসির পাত্রে পরিণত করবেন না।’

হাই পারফরম্যান্স দলের কোচ রেডফোর্ডের টুইট বাংলাদেশ ক্রিকেটেও বয়স নিয়ে সমস্যাকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়।

মন্তব্য পড়ুন 0