বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

তৃতীয় দিনের ট্রায়াল শেষে আজ সৌম্য জানাল, ‘নরওয়েতে আমি নিয়মিত অনুশীলন করি। আমি যে ক্লাবের একাডেমিতে অনুশীলন করি, সে ক্লাব নরওয়ের শীর্ষ পর্যায়ের লিগে খেলে। ট্রায়ালের খবর শুনে এখানে এসেছি। আমি বাংলাদেশে খেলার জন্য চেষ্টা করতে চাই। আমার বিশ্বাস আছে, একাডেমিতে সুযোগ পাব।’

সৌম্য জানিয়েছে, সে স্ট্রসগুদসেটের একাডেমিতে খেলে। নরওয়েজিয়ান এ ক্লাব থেকেই উঠে এসেছেন মার্টিন ওডেগার্ড। স্ট্রসগুদসেট ক্লাবে খেলেই ১৬ বছর বয়সে নরওয়ে দলে জায়গা করে নিয়েছিলেন ওডেগার্ড। সে সুবাদেই রিয়াল মাদ্রিদের নজর কেড়েছিলেন এই মিডফিল্ডার। ছয় বছর রিয়ালে কাটিয়ে এখন আর্সেনালের মধ্যমাঠের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ওডেগার্ড। সৌম্যও মাঝমাঠের খেলোয়াড়।

গত আগস্টে কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহি মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে ৫২ ছেলেকে নিয়ে আবাসিক অনুশীলনের ব্যবস্থা করেছে বাফুফে। এর পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে ‘বাফুফে এলিট একাডেমি’। সেখান থেকে ২০ খেলোয়াড়কে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। নতুন করে অনূর্ধ্ব-১৬ খেলোয়াড় বাছাইয়ের আয়োজন করেছে বাফুফে। আজ বেলুন উড়িয়ে সেটির উদ্বোধন করেছেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন।

default-image

খেলোয়াড় বাছাই প্রক্রিয়া নিয়ে কাজী সালাউদ্দিন বলেন, ‘এ একাডেমির ট্রায়াল চলতেই থাকবে। কিছু খেলোয়াড় বাদ পড়বে ও কিছু খেলোয়াড় ঢুকবে। এটা নির্ভর করবে খেলোয়াড়ের পারফরমেন্সের ওপর।’ কয়েক বছর ধরে বাফুফে ভবনে রেখে মেয়েদের অনুশীলনের ব্যবস্থা করেছে বাফুফে। এখন ছেলেদেরও দীর্ঘমেয়াদি অনুশীলনের আওতায় আনতে চান সালাউদ্দিন, ‘আপনারা সবাই দেখেছেন, আমরা মেয়েদের দলটাকে চার-পাঁচ বছর ধরে অনুশীলন করাচ্ছি, তারা এশিয়াতে রেজাল্ট দিচ্ছে। এখন মনে হলো, ছেলেদেরও এটা শুরু করব।’

অবশ্য এ রকম উদ্যোগ এর আগেও দুই দফা নিয়েছিলেন বাফুফে সভাপতি। কিন্তু তা কয়েক মাস না যেতেই বন্ধ করে দিয়েছেন তিনি।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন