বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

বড় জয় ছাপিয়ে আলোচনায় বারিধারার দুই ম্যাচে ১৩ গোল খাওয়া। খুব খারাপ দল বারিধারা নয়। সাদা চোখে এই দুই ম্যাচে বিদেশি খেলোয়াড়দের ছাড়াই খেলেছে বারিধারা। কিন্তু চার নিতে পারেননি স্থানীয় খেলোয়াড়েরা। কিন্তু তাঁদের গোল খাওয়ার ধরন অনেকেই সন্দেহের চোখে দেখছেন। এরই মধ্যে অনলাইন বেটিং ও স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগ উঠেছে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ ও ব্রাদার্স ইউনিয়নের বিপক্ষে।

বারিধারার চার বিদেশির মধ্যে দুজন সেন্টারব্যাক, একজন মিডফিল্ডার ও একজন ফরোয়ার্ড। তাঁদের মধ্যে চুক্তি শেষ হয়ে যাওয়ায় দেশে ফিরে গিয়েছেন উজবেকিস্তানের ডিফেন্ডার সাইদোস্টন ফজিলোভ ও মিডফিল্ডার এভগেনি কোচনেভ এবং মিসরীয় ফরোয়ার্ড মোস্তফা আবদেল খালেক। ক্লাবের সঙ্গে আছেন কেবল আইভোরি কোস্টের ডিফেন্ডার ইউসুফ মরি বামবা। কিন্তু চোট থাকায় খেলতে পারছেন না বলে জানালেন দলের সহকারী ম্যানেজার ও সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, ‘আমাদের চারজনের মধ্যে তিনজনের চুক্তি শেষ হয়ে গিয়েছে জুলাইয়ে। লিগ জুলাইয়ে শেষ হওয়ার কথা থাকায় সেভাবেই চুক্তি করা হয়েছিল। তবু বলেকয়ে আরামবাগের বিপক্ষে ম্যাচ পর্যন্ত তাঁদের রেখেছিলাম। এরপরে তাঁরা থাকতে রাজি হননি। স্বল্প সময়ের জন্য চুক্তিও করতে চাননি ওই খেলোয়াড়েরা।’

default-image

সাধারণত দুই বিদেশি সেন্টারব্যাক খেলিয়ে থাকে বারিধারা। তাঁরা দেশে ফিরে যাওয়ায় স্থানীয়দের খেলতে হয়েছে সেখানে। অনভিজ্ঞ রক্ষণভাগ বড় দলগুলোর সামনে খেই হারিয়ে ফেলেছে। তাই কর্দমাক্ত মাঠেও গোলের মালা পরাতে খুব বেশি কষ্ট করতে হয়নি বেলফোর্ট, জুয়েলদের।

প্রথমার্ধের ৩ গোলের প্রথম ২টিই পেনাল্টি থেকে। ৪ ও ৩৩ মিনিটে স্পটকিক থেকে গোল করেছেন রাফায়েল ও বেলফোর্ট। ৪১ মিনিটে ৩–০ করেছেন সানডে।

দ্বিতীয়ার্ধে গোলকিপার বদলায় বারিধারা। জাতীয় দলে প্রথমবারের মতো চূড়ান্ত পর্বে থাকা মিতুল মারমাকে তুলে নামানো হয় মামুন আলিফকে। তাঁকে পোস্টের মধ্যে থেকে বল বের করে আনতে হয়েছে পাঁচবার। ৬৪ ও ৬৬ মিনিটে জোড়া গোল করেছেন জুয়েল। লিগে এই নিয়ে তাঁর গোল হলো ১০টি। স্থানীয়দের মধ্যে সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনিই।

জুয়েলের পরে একের পর এক বক্সে ঢুকে অনায়াসে গোল করে বের হয়ে এসেছেন বেলফোর্ট। ২২ মিনিটের ব্যবধানে গোল করেছেন ৩টি। ৬৮, ৭৫ ও ৯০ মিনিটে গোল ৩টি করেছেন তিনি। এই নিয়ে লিগে তাঁর গোল ১৪টি।

এই জয়ে ২৩ ম্যাচে ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তৃতীয় স্থানে আবাহনী। ২৪ ম্যাচ খেলে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে ১৩ দলের লিগে ১১তম হয়ে শেষ করল বারিধারা।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন