বার্সেলোনা তারকা লিওনেল মেসি।
বার্সেলোনা তারকা লিওনেল মেসি। ছবি: টুইটার

বার্সেলোনা এমনিতেই দেনার দায়ে জর্জরিত। এর মধ্যে খেলোয়াড়দের পাওনার অঙ্ক হুটহাট বেরিয়ে পড়ছে। কাল জানা গেছে, বার্সার কাছে বকেয়া হিসাবে ৬ কোটি ইউরো পান নেইমার। টাকাটা পেতে যে প্রচুর কাঠখড় পোড়াতে হবে সেটি নেইমার জানেন বলে মামলার কাগজপত্র গোছাচ্ছেন।

এবার জানা গেল, বার্সার কাছ থেকে বড় অঙ্কের অর্থ পেতে যাচ্ছেন লিওনেল মেসিও। আনুগত্য বোনাস বাবদ আরও ৩ কোটি ৩০ লাখ ইউরো (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩৩১ কোটি টাকা) পাবেন আর্জেন্টাইন তারকা—জানিয়েছে ইএসপিএন।

তিন বছর আগে বার্সায় চুক্তি নবায়ন করেন মেসি। এ চুক্তির অধীনে আনুগাত্য বোনাস হিসেবে তাঁর ৬ কোটি ৬০ লাখ ইউরো পাওয়ার কথা।

বিজ্ঞাপন

কাতালান ক্লাবটি এর মধ্যেই অর্ধেক পরিমাণ অর্থ পরিশোধ করেছে মেসিকে, এমনটাই জানাচ্ছেন ইএসপিএনের বার্সাভিত্তিক দুই সাংবাদিক মইসেস ইয়োরেনস ও সামুয়েল মার্সডেন। মৌসুম শেষে বার্সার সঙ্গে মেসির বর্তমান চুক্তির মেয়াদ ফুরাবে। তখন বাকি টাকাটা পাওয়ার কথা তাঁর। মেসিই প্রথম নন, এর আগে জাভি-ইনিয়েস্তাদের মতো খেলোয়াড়দেরও এ রকম আনুগত্য বোনাস দিয়েছে বার্সা।

যদিও ক্লাবের প্রতি মেসির আনুগত্যের বাঁধ ভেঙেছিল গত মৌসুম শেষেই। চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮–২ গোলে হারের পর বার্সা ছাড়তে চেয়েছিলেন মেসি। এ নিয়ে অনেক জল ঘোলা হওয়ার পর সিদ্ধান্ত পাল্টে ক্লাবটিতে থেকে যান তিনি। তবে এ মৌসুম শেষে মেসি বার্সায় থাকবেন কি না, তা অনিশ্চিত।

করোনাভাইরাস মহামারিতে আর্থিকভাবে ভুগছে বার্সা। টাকা বাঁচাতে লুইস সুয়ারেজ, আর্তুরো ভিদাল, ইভান রাকিতিচদের ছেড়ে দিয়েও কুলিয়ে উঠতে পারছে না ক্লাবটি। ইএসপিএনের মতে, পারিশ্রমিক বাবদ আরও ১৯ কোটি ইউরো বাঁচাতে হবে বার্সাকে। পারিশ্রমিক কমাতে এর মধ্যে খেলোয়াড়দের সঙ্গে কয়েক দফা কথা বলেছে বার্সা বোর্ড। কিন্তু কোনো সমঝোতায় এখনো আসতে পারেনি দুই পক্ষ।

default-image

২০১৭ সালে বার্সার সঙ্গে চার বছরের চুক্তি নবায়ন করেছিলেন মেসি। এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে আনুগত্য বোনাসের প্রথম কিস্তি (৩ কোটি ৩০ লাখ ইউরো) পান মেসি। সূত্রের উল্লেখ করে ইএসপিএন জানাচ্ছে, ২০১৭ সালে চুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর সময় বোনাস হিসেবে ১০ কোটি ইউরো পেয়েছিলেন তিনি। টাকাটা পরিশোধ করেছে বার্সা।

বিজ্ঞাপন

তখন চুক্তি নবায়নের পর বছরে মেসির পারিশ্রমিক দাঁড়ায় ৭ কোটি ইউরো, যা সপ্তাহে ১.২ মিলিয়ন বা ১২ লাখ ইউরো। তাঁর চুক্তি নবায়নে বার্সার মোট খরচের পরিমাণ ৪৫ কোটি ইউরো। এ চুক্তির অধীনে বার্সায় মেসির ঘণ্টাপ্রতি আয় ৩ হাজার ৯৯৫ ইউরো এবং কর পরিশোধের পর তাঁর দৈনিক আয় প্রায় ১ লাখ ইউরো।

এর আগে জানা গিয়েছিল, জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ বার্সা সভাপতির পদ ছাড়লে মেসি আরও কিছুদিন থাকতে পারেন ক্লাবটিতে। এর মধ্যেই বার্তোমেউ পদত্যাগ করেছেন। যে কারণে অনেকে এখনই মেসিকে আগামী মৌসুমেও দেখছেন বার্সায়। তবে সবকিছু নির্ভর করছে জানুয়ারিতে বার্সার সভাপতি নির্বাচনে।

মেসিকে ধরে রাখতে তাঁকে রাজি করাতে হবে বার্সার নতুন সভাপতিকে। তবে ইএসপিএন জানাচ্ছে, মেসি বার্সায় থাকবেন কি না, সেটি নির্ভর করছে আগামী সভাপতি নির্বাচনে কে জেতেন, তাঁর স্পোর্টিং প্রজেক্ট বা ক্রীড়া প্রকল্প কেমন হয়, সেটির ওপর।

আগামী ২৪ জানুয়ারি হবে বার্সার সভাপতি নির্বাচন।

মন্তব্য পড়ুন 0