বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

দলবদলের শেষ দিনে গ্রিজমানকে ছেড়ে দেওয়াও ওই একই ইচ্ছার বহিঃপ্রকাশ। এক বছরের ধারে বার্সেলোনা ছেড়ে আবারও সাবেক ক্লাব আতলেতিকোতে যোগ দিয়েছেন বিশ্বকাপজয়ী এই ফরাসি ফরোয়ার্ড। এক বছর পর নির্ধারিত কিছু শর্ত পূরণ সাপেক্ষে আরও এক বছরের ধারে গ্রিজমানকে দলে রাখতে পারবে আতলেতিকো।

ওদিকে গ্রিজমান যে বার্সা ছেড়ে আতলেতিকোতে যোগ দেওয়ার জন্য কতটা মরিয়া ছিলেন, সেটা বোঝা গেছে তাঁর একটা কাজে। আতলেতিকোতে যোগ দেওয়ার জন্য নিজের বেতন ৪০ শতাংশ কমাতে রাজি হয়েছেন। ফুটবলবিষয়ক ওয়েবসাইট গোল ডটকমের সাংবাদিক রুবেন উরিয়া নিশ্চিত করেছেন খবরটা।

default-image

দুই বছরের ধারের দ্বিতীয় বছরে আতলেতিকোর অন্তত ৫০ শতাংশ ম্যাচে গ্রিজমান যদি খেলেন, তাহলে চার কোটি ইউরোর বিনিময়ে গ্রিজমানকে বার্সার কাছ থেকে পাকাপাকিভাবে কিনে নিতে পারবে দিয়েগো সিমিওনের দল। বড় কোনো চোটে না পড়লে যে শর্ত অনায়াসে পূরণ করতে পারবেন গ্রিজমান, এমনটাই মনে হচ্ছে।

৩০ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড বিশ্বের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন এই আতলেতিকোর হয়ে খেলেই। আতলেতিকোর হয়ে পাঁচ বছর দুর্দান্ত খেলে নজরে এসেছিলেন বার্সেলোনার, যারা ২০১৯ সালে তাঁর জন্য ১২ কোটি ইউরো খরচ করতে রাজি হয়েছিল।

default-image

এর পরের কথা যত কম বলা যায়, ততই ভালো। যে ঝলক দেখিয়ে বার্সার নজর কেড়েছিলেন, বার্সায় এসে সে ঝলকের সামান্যই দেখাতে পেরেছেন। মেসির আলোয় ম্লান ছিলেন, মেসি যাওয়ার পরেও বার্সার মূল তারকা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত না করে ফিরেছেন আতলেতিকোয়। গ্রিজমানের এই ব্যর্থতা চোখে পড়েছে বার্সার সভাপতি হোয়ান লাপোর্তারও।

লাপোর্তা স্বীকার করেছেন, গ্রিজমানের কাছে বার্সার প্রত্যাশা বেশি ছিল আরও, ‘আমরা ওর কাছ থেকে আরও বেশি চেয়েছিলাম। তবে সে তাঁর সাধ্যমতো চেষ্টা করেছে।

default-image

নিজের সর্বোচ্চটুকু দিয়ে খেলেছে আমাদের জন্য। ওর সমালোচনা করা যায় না। ওর ব্যক্তিগত ও পেশাগত উন্নতির জন্য আমি ওকে বার্তা পাঠিয়েছি। তবে ফুটবলীয় দিকের কথা বিবেচনা করলে ওর মতো খেলোয়াড় এখন আমাদের দরকার নেই। কাপ প্রতিযোগিতার জন্য ও গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আতলেতিকোর হয়ে ৫০ শতাংশ ম্যাচ খেললে আতলেতিকো ওকে পাকাপাকিভাবে কিনে নিতে বাধ্য থাকবে।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন