বিজ্ঞাপন

কোমানের অধীনে প্রথম মৌসুমে দল আশানুরূপ ফল পায়নি। কোপা দেল রের শিরোপা জিতলেও চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলো থেকেই ছিটকে গেছে বার্সেলোনা। দুই লেগ মিলিয়ে পিএসজির কাছে হেরেছে ৫–২ ব্যবধানে। প্রথম লেগে তো নিজেদের মাঠে পিএসজির জালে এক গোল দেওয়ার বিপরীতে খেয়েছে ৪টি গোল।

স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে উঠলেও অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ম্যাচে হেরেছে ৩–২ গোলে। আর লিগে জানুয়ারি থেকে দারুণ খেলে শিরোপা লড়াইয়ে ফিরলেও শেষ দিকে এসে পথ হারিয়ে হয়েছে তৃতীয়।

এমন একটি মৌসুম কাটানোর পর অনেকেই মনে করেছেন, কোমানের বার্সা–অভিযান শেষ হয়ে যাবে এক মৌসুমেই। কিন্তু ইয়ানসেন বলেছেন, কোমানের বার্সেলোনার কোচের চাকরি মোটেই হুমকির মুখে নেই।

বাংলাদেশ সময় আজ সকালে বার্সেলোনার সভাপতি হোয়ান লাপোর্তার সঙ্গে বৈঠক করেছেন কোমান আর তাঁর এজেন্ট ইয়ানসেন। লাপোর্তার সঙ্গে আলোচনা শেষে হাসিমুখ নিয়েই বের হয়েছেন ইয়ানসেন।

বৈঠক শেষে নেদারল্যান্ডসের সবচেয়ে বড় পত্রিকা ডি টেলিগ্রাফকে ইয়ানসেন বলেছেন, ‘বৈঠকের সময় ইতিবাচক আবহই ছিল। ব্যক্তিগতভাবে আমি খুব ভালো একটা অনুভূতি নিয়ে বৈঠক থেকে বের হয়েছি। দুই পক্ষের মধ্যে পারস্পরিক একটা শ্রদ্ধাবোধ ছিল।’

default-image

এরপর যোগ করেন, ‘আলোচনাটা এতটা ইতিবাচক ছিল যে আমার মনে হয়েছে, রোনাল্ডের এখানে ২০২১–২২ মৌসুমের পরও (বার্সার ডাগআউটে) থাকা হতে পারে। তবে এর বেশি কথা হয়নি। আরও আলোচনা করতে হবে।’

স্পেনের রেডিও কাদেনা সেরের খবর অনুযায়ীও কোমান বার্সেলোনাতেই থাকছেন। তবে খবরটি দিয়েছে তারা ইয়ানসেনের সঙ্গে কথা বলে। নির্দিষ্ট করে কোমানের ভবিষ্যৎ নিয়ে এখনো কিছু না বলতে পারলেও রেডিও কাদেনা সেরকে ইয়ানসেন বলেছেন, ‘আমার কাছে মনে হচ্ছে, কোমান বার্সাতেই থাকছেন।’

তবে স্পেনের টিভি চ্যানেল টিভি৩ দিয়েছে অন্য খবর। তাদের দাবি, বার্সেলোনা সভাপতি লাপোর্তা কোচ কোমানকে যা বলেছেন, তার অর্থ একটাই দাঁড়ায়—আগামী মৌসুমে আর বার্সেলোনার ডাগআউটে দাঁড়ানো হচ্ছে না তাঁর!

কোমানকে বার্সেলোনা সভাপতি লাপোর্তা কী বলেছেন, সেটা টিভি৩ উপস্থাপন করেছে এভাবে, ‘বার্সেলোনা সভাপতি হোয়ান লাপোর্তা রোনাল্ড কোমানকে বলেছেন যে তাঁর (কোমানের) বিকল্প খুঁজছেন তিনি। শেষ পর্যন্ত যদি পছন্দমতো কোচ খুঁজে না পাওয়া যায়, একমাত্র তাহলেই কোমান পরের মৌসুমের জন্য বার্সেলোনার কোচ থাকবেন।’

default-image

স্পেনের ক্রীড়া দৈনিক মার্কা টিভি৩–কে উদ্ধৃত করে লিখেছে, ‘লাপোর্তা কোমানের কাছে ১৫ দিনের সময়ও চেয়েছেন। যাতে এই সময়ের মধ্যে ক্লাব সম্ভাব্য নতুন কোচ খুঁজে নিতে পারে।’

এখন পর্যন্ত কোমানের বিকল্প হিসেবে সবচেয়ে বেশি শোনা যাচ্ছে বার্সার কিংবদন্তি মিডফিল্ডার ও বর্তমানে কাতারের ক্লাব আল-সাদের কোচ জাভি হার্নান্দেজের নাম। বার্সেলোনার ‘বি’ দলের কোচ গার্সিয়া পিমিয়েন্তার নামও আসছে আলোচনায়। এর বাইরে জুভেন্টাসের সাবেক কোচ মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রির নাম দুদিন ধরে হঠাৎ আলোচনায় আসছে। শিরোনামে এসেছে বেলজিয়ামের কোচ রবের্তো মার্তিনেজ, এবারের ইউরোর পর জার্মানি জাতীয় দলের দায়িত্ব ছাড়তে চাওয়া ইওয়াখিম ল্যুভের নামও।

তবে এখন পর্যন্ত প্রথম তিনটি নাম নিয়েই আলোচনা বেশি। কিন্তু এর মধ্যে জাভির এই পর্যায়ে কোচিংয়ের সামর্থ্য নিয়ে লাপোর্তা সন্দিহান। পাশাপাশি জাভি যে ‘গতিশীল পাসিং ফুটবল’ খেলাতে চান, সে ধরনের ফুটবল খেলানোর মতো দল বার্সেলোনার নেই বলেও তাঁকে এখনই আনতে চান না লাপোর্তা। পিমিয়েন্তার অভিজ্ঞতায় ঘাটতি। আর আলেগ্রির খেলার ধরন আবার ঠিক বার্সেলোনা ঘরানার সঙ্গে যায় না। স্বল্প মেয়াদে কাউকে কোচ করতে গেলে সে ক্ষেত্রে বার্সার খরচও বেশি হবে, দলের জন্যও তা ভালো হবে না ভেবে সেটিরও বিরোধী লাপোর্তা।

সব মিলিয়ে লাপোর্তা এখনো তাই দীর্ঘ মেয়াদে কাকে কোচ করে আনবেন, তা বুঝতে আরেকটু সময় নিচ্ছেন। কোমানও তাই গ্রীষ্মের ছুটিতে যাচ্ছেন নিজের ভবিষ্যৎ না জেনেই!

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন