মৌসুমটা খুব একটা ভালো যাচ্ছে না মেসি–কোমানদের।
মৌসুমটা খুব একটা ভালো যাচ্ছে না মেসি–কোমানদের। ছবি: রয়টার্স

মৌসুমের প্রথম শিরোপাটা জেতা হয়নি বার্সেলোনার। স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের কাছে হেরেছে রোনাল্ড কোমানের দল। লা লিগায়ও সুবিধাজনক স্থানে নেই বার্সেলোনা। শীর্ষে থাকা আতলেতিকো মাদ্রিদের চেয়ে পিছিয়ে আছে ১০ পয়েন্টে। ১৮ ম্যাচে ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে আতলেতিকো মাদ্রিদ। আর ১৯ ম্যাচে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে চারে বার্সেলোনা। এই যখন অবস্থা, তখন দলটির কোচ কোমান প্রায় হাল ছেড়ে দিয়ে বলেছেন বার্সেলোনার পক্ষে খুব বেশি শিরোপা জয় সম্ভব নয়।

বাস্তবতা মেনে নিয়েই কোমান বললেন বার্সেলোনা যেন আশার বেলুন না ফোলায়, ‘আমি অনেকবার বলেছি যে এই মৌসুম আমরা অনেক কিছুর বদল ঘটাতে যাচ্ছি। আমরা তরুণ খেলোয়াড়দের ওপর ভরসা করছি। বার্সেলোনা এই মুহূর্তে অনেক কিছু জেতার মতো অবস্থায় নেই। কোথা থেকে আমরা এসেছি সেই ব্যাপারটা নিয়ে বাস্তববাদী হতে হবে, আমরা যে বদলটা করেছি, তাতে শুধু একজন খেলোয়াড়ের ওপর সবকিছু নির্ভরশীল নয়। আমরা সব সময় লড়াই করতে প্রস্তুত, কিন্তু আমাদের বাস্তবটাও মানতে হবে।’

বিজ্ঞাপন
default-image

দলবদলের বাজারে জোর গুঞ্জন ম্যানচেস্টার সিটি সেন্টার ব্যাক এরিক গার্সিয়া আবারও বার্সেলোনায় ফিরছেন। রক্ষণে সামুয়েল উমতিতি চোটে জর্জর। ক্লেমঁ লংলে ও জেরার্ড পিকেও খুব বেশি ফর্মে নেই। রোনালদ আরাউহো অনভিজ্ঞ। এরিক গার্সিয়ার প্রসঙ্গে কোচ যদিও সরাসরি কিছু বলছেন না, ‘দলের উন্নতির জন্য কাউকে পাওয়া তো সব সময়ই গুরুত্বপূর্ণ। যদি জানুয়ারিতে না হয় তো পরের বছর হতে পারে। এটা নিয়ে আমি ভাবছি না। কারণ, এই কাজটা আমার নয়, ক্লাব করবে। খেলোয়াড়দের এই বিষয়ে চিন্তা করা উচিত নয়। বিশ্বের সব ক্লাবেই এমন হচ্ছে এবং আমি এতে কোনো সমস্যা দেখছি না।’

গার্সিয়াকে আনার ব্যাপারে অবশ্য কোমান কোনো কথা বলেননি ম্যান সিটির সঙ্গে, ‘আমি পেপের (পেপ গার্দিওয়ালা, কোচ ম্যান সিটি) সঙ্গে কথা বলেছি ওর জন্মদিনে। কিন্তু আমি এরিক গার্সিয়া প্রসঙ্গে কোনো আলাপই করিনি। কারণ, এটা আমার কাজ নয়। ও অবশ্যই পরের মৌসুমে (৩০ জুন ক্লাব থেকে ছাড়পত্র পাওয়ার পর) যোগ দেবে। ওর আসাটা যদি এই জানুয়ারিতে সম্ভব না হয়, তাহলেও আমরা এটা মেনে নিয়েই এগিয়ে যাব।’

পিএসজির বিপক্ষে দুটো ম্যাচ আছে। আমরা চেষ্টা করব সেখানে জিততে। আমাদের লক্ষ্যই ট্রফি জেতা। কারণ, আমরা বার্সেলোনা, তবে আমাদেরও বাস্তববাদী হতে হবে।
রোনাল্ড কোমান, বার্সেলোনা কোচ

আগামীকাল লিগের পরের ম্যাচে বার্সেলোনা খেলবে অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে। সুপার কাপের ফাইনালে হারের পর এবার বেশ সতর্ক কোচ, ‘রোববার ন্যু ক্যাম্পে বার্সেলোনা বেশ সতর্কই থাকবে ওদের স্বাগত জানাতে। ওরা সুপার কাপের ফাইনালে সেট পিসগুলো কাজে লাগিয়েছিল ভালোভাবে। বেশি বেশি ফাউল ও কর্নার করাটা যদিও ওদের একটা অভ্যাস। আদৌ সেটা ফাউল নাকি ফাউল নয়, সেটা যাচাই করার ব্যাপারে রেফারির ভূমিকাটা এখানে খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ অন্যান্য দিন তারা সেটা করে না। তবে আমরা অপ্রয়োজনীয় ফাউল করব না, এটাই আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ।’


চ্যাম্পিয়নস লিগ নিয়ে এখনই অবশ্য খুব বেশি আশাবাদী হওয়ার মতো কিছু দেখছেন না কোমান, ‘আমরা লা লিগায় আমাদের অবস্থানটা জানি। এটা খুবই জটিল অবস্থায় আছে। চ্যাম্পিয়নস লিগে অনেক দল রয়েছে। এখানে কেউ পরিষ্কার ফেবারিট নয়। আমরা জানি পিএসজির বিপক্ষে দুটো ম্যাচ আছে। আমরা চেষ্টা করব সেখানে জিততে। আমাদের লক্ষ্যই ট্রফি জেতা। কারণ, আমরা বার্সেলোনা, তবে আমাদেরও বাস্তববাদী হতে হবে।’

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন