ইনিগো মার্তিনেজের এই হেডেই হেরেছে আতলেতিকো।
ইনিগো মার্তিনেজের এই হেডেই হেরেছে আতলেতিকো।ছবি : রয়টার্স

টানটান উত্তেজনাপূর্ণ কোনো থ্রিলার টিভি সিরিজ যেন। এই এক দল এগিয়ে যাচ্ছে, পরমুহূর্তেই আরেক দল তাঁদের টেক্কা দিচ্ছে। তৃতীয় আরেক দল আছে সুযোগের অপেক্ষায়, পেলেই বাকি দুই দলকে কিস্তিমাত করে এগিয়ে যাবে সামনে। কেউ আবার নিজেদের খামখেয়ালির কারণেই পিছিয়ে যাচ্ছে, সুযোগ করে দিচ্ছে আরেক দলকে। সিরিজের পরতে পরতে অনিশ্চয়তা, সাসপেন্স। কেউ জানে না কী হবে।

কী, সিরিজটার নাম জানতে ইচ্ছে হচ্ছে তো? তবে শুনে নিন। সিরিজের নাম স্প্যানিশ লা লিগা। শ্রেষ্ঠাংশে - লিওনেল মেসি-কোমানের বার্সেলোনা, জিদান-বেনজেমাদের রিয়াল মাদ্রিদ ও সুয়ারেজ-সিমিওনেদের আতলেতিকো। কয়েক সপ্তাহ আগেও মনে হচ্ছিল রিয়াল-বার্সার পড়তি ফর্মের সুবিধা নিয়ে আতলেতিকো হেসেখেলে লিগ ঘরে তুলবে। কিন্তু সে গুড়ে বালি। কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই ভোজবাজির মতো পালটে গেছে ফর্মের খেলা। আতলেতিকোই ধুঁকছে এখন, ওদিকে রিয়াল-বার্সা এগোচ্ছে তরতর করে। ফলে লিগ জয়ের আশা তিন দলের চোখেই জ্বলজ্বলে।

বিজ্ঞাপন
default-image

সবচেয়ে বেশি আশাবাদী দলটার নাম নিঃসন্দেহে বার্সেলোনা। অন্তত এই সপ্তাহের খেলাগুলোর পর তো বটেই। রিয়াল বেতিসের সঙ্গে সেদিন গোলশূন্য ড্র করেছে রিয়াল মাদ্রিদ, দুই পয়েন্ট খুইয়েছে। প্রথমে পিছিয়ে পড়েও ৮ মিনিটের মধ্যে আঁতোয়ান গ্রিজমানের দুই গোলে ভিয়ারিয়ালের মাঠ থেকে ২-১ ব্যবধানের জয় নিয়ে ফিরেছে বার্সা। ওদিকে অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের কাছে ২-১ গোলে হেরেই বসেছে আতলেতিকো। যথেষ্ট বিদঘুটে ফল, সন্দেহ নেই। বার্সেলোনার এখনকার দুর্দান্ত ফর্ম নিয়ে প্রশ্ন তোলার অবকাশ নেই, কিন্তু এ যেন তাঁদের টেবিলের ওপরে দেখার জন্য রিয়াল আর আতলেতিকোর যৌথ প্রযোজনা!

এই হারের ফলে ১৯ ম্যাচ পর লিগের শীর্ষস্থান হারানোর শঙ্কায় আছে দিয়েগো সিমিওনের দল। আগামী বৃহস্পতিবার গ্রানাদার বিপক্ষে জিতে গেলেই আতলেতিকোকে লিগ টেবিলের ওপর থেকে টেনে নামাবে কাতালানরা। সে ক্ষেত্রে নিজেদের শিরোপা স্বপ্ন আবারও জাগিয়ে তোলার জন্য ৩৫ তম গেইমউইকে বার্সেলোনাকে সরাসরি হারাতে হবে সুয়ারেজদের। তাহলে আবারও লিগের শীর্ষে উঠতে পারবে আতলেতিকো।

default-image

গত রাতে মূল একাদশে ছিলেন না লুইস সুয়ারেজ বা জোয়াও ফেলিক্সদের কেউই। আট মিনিটের মাথায় দুর্দান্ত এক কাউন্টার অ্যাটাকে স্প্যানিশ উইঙ্গার অ্যালেক্স বেরেঙ্গেরের গোলে এগিয়ে যায় বিলবাও। অবস্থা বেগতিক দেখে দ্বিতীয়ার্ধে সুয়ারেজ-ফেলিক্সকে মাঠে নামান সিমিওনে। ৭৭ মিনিটে সার্বিয়ান সেন্টারব্যাক স্তেফান সাভিচের গোলে সমতায় ফিরলেও শেষে কোনো পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেননি সুয়ারেজরা। ম্যাচ শেষ হওয়ার মিনিট চারেক আগে স্প্যানিশ সেন্টারব্যাক ইনিগো মার্তিনেজের গোলে নিজেদের মাঠ থেকে পুরো তিন পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছেড়েছে বিলবাও। আর সুয়ারেজ-ফেলিক্সরা ডুবেছেন হতাশার সাগরে।

লা লিগার পয়েন্ট তালিকার ওপরে স্থানগুলোতে আতলেতিকো, বার্সেলোনা ও রিয়াল ছাড়াও আছে সেভিয়া। টেবিলের প্রথম চারটি অবস্থান দখল করে থাকা এই দলগুলোকে আলাদা করছে মাত্র তিন পয়েন্ট। ৩৩ ম্যাচ খেলে যথাক্রমে ৭৩ ও ৭১ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের প্রথম দুই অবস্থানে আছে আতলেতিকো ও রিয়াল। এক ম্যাচ কম খেলে ৭১ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে বার্সেলোনা। ৩৩ ম্যাচে ৭০ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে সেভিয়া।

বিজ্ঞাপন

লিগের বাকি ছয় ম্যাচে বার্সেলোনা লড়বে গ্রানাদা, ভ্যালেন্সিয়া, আতলেতিকো, লেভান্তে, সেলতা ভিগো ও এইবারের সঙ্গে। রিয়ালের অবশিষ্ট ম্যাচগুলো ওসাসুনা, সেভিয়া, বিলবাও, ভিয়ারিয়াল ও গ্রানাদার বিপক্ষে। আতলেতিকো চাইবে এলচে, বার্সেলোনা, রিয়াল সোসিয়েদাদ, ওসাসুনা ও রিয়াল ভায়াদোলিদের সঙ্গে আর পয়েন্ট না হারাতে। কারণ, পয়েন্ট হারালেই শিরোপার আশা পুরোপুরি উবে যাবে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন