বার্সেলোনার অনুশীলনে আগের মতোই মেসি

বার্সার অনুশীলনে নেমে পড়লেন মেসি
বার্সার অনুশীলনে নেমে পড়লেন মেসিছবি: রয়টার্স
বিজ্ঞাপন

তখনো অনুশীলন শুরু হতে ঢের বাকি। ঘড়ির কাটায় হিসেব করলে পাক্কা দেড় ঘণ্টা। কিন্তু লিওনেল মেসি ঠিকই হাজির হয়ে গেলেন বার্সেলোনার অনুশীলন কেন্দ্র সান হুয়ান দেম্পিতে। অনুশীলন করবেন। আপাতত বার্সেলোনাতেই থাকার ঘোষণা দিয়ে দিয়েছেন। অনুশীলন তো তাঁকে করতেই হবে। কিন্তু ইচ্ছার বিরুদ্ধে ন্যু ক্যাম্পে থেকে গিয়েও অনুশীলনে আগের মতোই সিরিয়াস আর্জেন্টাইন তারকা। যেন কিছুই হয়নি। কিছুই ঘটেনি।

default-image
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সান হুয়ানের বাইরে প্রচুর সমর্থকের ভিড় ছিল। সোমবার সকালে (বাংলাদেশ সময় রাতে) তারা দারুণভাবেই স্বাগত জানিয়েছে তাদের প্রিয় তারকাকে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রথম দিন একা একাই হালকা অনুশীলন করেন মেসি। বুরোফ্যাক্স পাঠিয়ে বার্সাকে ক্লাব ছাড়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছিলেন মেসি। ক্লাবের বর্তমান ব্যবস্থাপনা, ভবিষ্যৎ নিয়ে পরিকল্পনাহীনতা ও অন্যান্য অনেক ব্যাপার নিয়ে নিজের বিরক্তি থেকেই সিদ্ধান্তটা নিয়েছিলেন। কিন্তু বিপুল অঙ্কের বাই আউট ক্লজ (৭০ কোটি ইউরো) নিয়ে আইনি জটিলতার কথা চিন্তা করে অনেকটা ইচ্ছার বিরুদ্ধেই আরও এক বছর ন্যু ক্যাম্পে থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। মনের সঙ্গে যুদ্ধ করে বার্সায় থাকার ঘোষণা দিলেও নতুন মৌসুমে নিজের প্রতিশ্রুতির ব্যাপারে যে এক বিন্দুও ছাড় দেবেন না, সেটি প্রথম দিন অনুশীলনেই বুঝিয়ে দিয়েছেন ছয়বার ব্যালন ডি’অর জয়ী এই তারকা।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত শুক্রবার গোলডটকমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বার্সেলোনাতে থেকে যাওয়ার কথা বলেন। দীর্ঘ সাক্ষাৎকারে বলেছেন অনেক কিছুই। কিছু নির্দিষ্ট কারণে যে তাঁর আর বার্সেলোনায় থাকতে ভালো লাগছে না, সেটাও জানিয়েছেন। তবে একই সঙ্গে এ-ও জানিয়েছেন বার্সাকে কী পরিমাণ ভালোবাসেন তিনি। নিজের ইচ্ছার বিরুদ্ধে ন্যু ক্যাম্পে থেকে যাওয়াটা বার্সার প্রতি ভালোবাসা থেকেই। নিজের বাই আউট ক্লজ নিয়ে যে ঝামেলা, সেটি মেটাতে মেসির সামনে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার পথ খোলা ছিল, বার্সাও এটি নিয়ে হুমকি দিয়ে রেখেছিল। কিন্তু যে ক্লাব তাঁকে ১৩ বছর বয়স থেকে বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার হতে সাহায্য করেছে, যে ক্লাবে তাঁর মধুর স্মৃতি বিশাল ব্যবধানেই পেছনে ফেলছে দুঃস্মৃতিগুলোকে, সে ক্লাবের সঙ্গে আদালতে দাঁড়িয়ে মামলা লড়বেন—এমন চিন্তা অচিন্তনীয়ই ঠেকেছে আর্জেন্টাইন তারকার কাছে।

default-image
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সদ্য শেষ হওয়া মৌসুমটা একদমই ভালো যায়নি বার্সেলোনার। লা লিগা জেতা হয়নি। চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে বিদায়টাও ছিল খুব বাজে। সেমিফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮-২ গোলে হারের পর মেসি ধৈর্য হারিয়ে ফেলেন। ক্লাবের ব্যবস্থাপনাগত যেসব ত্রুটি নিয়ে তিনি সোচ্চার ছিলেন, সেগুলো বায়ার্নের বিপক্ষে হারের পর প্রকট হয়ে দেখা দেয়। এর পরপরই মেসি বুরোফ্যাক্স করে জানিয়ে দেন তিনি বার্সা ছাড়তে চান। এ জন্য মৌসুমে বার্সেলোনার প্রথম অনুশীলন থেকে দূরেই ছিলেন তিনি।

নতুন মৌসুমের শুরুতেই বার্সেলোনার কোচ হিসেবে যোগ দিয়েছেন নেদারল্যান্ডস ও বার্সেলোনার সাবেক তারকা রোনাল্ড কোম্যান। ডাচ তারকা কোচ হয়ে আসার পর দল পুনর্গঠন নিয়ে তাঁর পরিকল্পনাও মেসির খুব একটা ভালো লাগেনি বলে খবর বেরিয়েছে। ইচ্ছার বিরুদ্ধে বার্সায় থেকে যাওয়ার পর কোম্যানের অধীনে মেসির নতুন মৌসুমটা কেমন হয় এখন সেটিই দেখার অপেক্ষা।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন