default-image

করোনাভাইরাস মহামারিতে বিপর্যস্ত পুরো বিশ্ব। বার্সেলোনার খেলোয়াড়েরা এখান থেকে কোনোরকমে গা বাঁচিয়ে থাকতে পেরেছিলেন। পেরেছিলেন—বলতে হচ্ছে কারণ করোনা থাবা বসিয়েছে কাতালান ক্লাবটিতেও।

তবে বার্সেলোনার চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলা নিয়ে সংশয়ের কিছু নেই। লিসবনে পরশু কোয়ার্টার ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের মুখোমুখি হবে বার্সা। তবে করোনা আক্রান্ত এই খেলোয়াড় বার্সার চ্যাম্পিয়নস লিগের দলের কেউ নন। প্রাক মৌসুম সামনে রেখে কাল ৯ ফুটবলারের কোভিড–১৯ পরীক্ষা করায় বার্সা। এর মধ্যে একজনের শরীরে কোভিড–১৯ ভাইরাসের অস্তিত্ত্ব পাওয়া গেছে, জানানো হয় বার্সেলোনার ওয়েবসাইটে।

বার্সার ওয়েবসাইটে খেলোয়াড়টির নাম প্রকাশ করা হয়নি। তাঁর শরীরে সংক্রমণের কোনো লক্ষণ ছিল না। বর্তমানে তিনি ভালো আছেন এবং বাসায় ‘কোয়ারেন্টিন’–এ আছেন। স্বাস্থ্যবিভাগকে ঘটনাটি এর মধ্যেই জানিয়েছে বার্সা। সংবাদসংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদক রিচার্ড মার্টিন টুইট করে জানিয়েছেন, ‘প্রাকমৌসুমের জন্য পরীক্ষায় করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন বার্সেলোনার এক খেলোয়াড়। লিসবনে বার্সার যে দলটি যাবে তাঁদের সংস্পর্শে এই খেলোয়াড় আসেননি।’ তবে সেই খেলোয়াড় স্কোয়াডের অন্যান্য যেসব খেলোয়াড়ের সংস্পর্শে এসেছেন তাঁদেরও কোভিড–১৯ পরীক্ষা করানো হয়।

এর আগে করোনা হানা দিয়েছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদেও। কাল কোয়ার্টার ফাইনালে লাইপজিগের মুখোমুখি হবে স্প্যানিশ ক্লাবটি। তার আগে ফরোয়ার্ড আনহেল কোরেয়া ও রাইটব্যাক সিমে ভরসালিকোর কোভিড–১৯ পজিটিভ হওয়া ক্লাবটির জন্য নিঃসন্দেহে দুঃসংবাদ। দুজনকে স্কোয়াড থেকে আলাদা করে বাসায় ‘কোয়ারেন্টিন’ এ পাঠানো হয়েছে। তবে বাকি খেলোয়াড়দের পরীক্ষা করিয়ে করোনা ‘নেগেটিভ’ পাওয়ায় অ্যাটলেটির চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলা নিয়ে সংশয় নেই। স্পেনের আরেক দল ভ্যালেন্সিয়াতেও হানা দিয়েছে করোনা। দুজন আক্রান্ত হয়েছেন, এঁদের একজন দেনিস চেরিশেভ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0