বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

ঘটনা সত্য কি না, সে ব্যাপারে জাভি নিজে মুখফুটে কিছু বলেননি। অবশেষে বার্সেলোনার দায়িত্ব নেওয়ার পরে বললেন, আসলেই নেইমারদের কোচ হওয়ার জন্য তাঁর দিকে হাত বাড়িয়েছিল ব্রাজিল। কিন্তু যাঁর মনে বার্সেলোনার নিত্য বসবাস, তিনি বার্সেলোনার ডাক উপেক্ষা করে কীভাবে আটলান্টিকের ওপারে যেতে পারেন?


জাভিও পারেননি। একমনে কাতারি ক্লাব আল সাদকে কোচিং করিয়ে গেছেন, আর মনে মনে অপেক্ষা করেছেন প্রিয় ক্লাবের জন্য। যাতে যখনই বার্সেলোনা ডাক দেয়, কোনো ধরনের পিছুটান ছাড়াই যেন ক্যাম্প ন্যুতে পাড়ি জমাতে পারেন।

সিবিএফের এক সূত্র সেবার জানিয়েছিল, জাভির প্রতি বোর্ডের আগ্রহ থাকলেও কথাবার্তা ‘প্রাথমিক’ পর্যায়ে ছিল এবং আর্থিক বিষয়ে একমত হয়নি দুই পক্ষ। এ নিয়ে সিবিএফের মন্তব্যও প্রকাশ করেছিল ইএসপিএন, ‘সিবিএফ এবং সাবেক খেলোয়াড় ও বর্তমানে কোচ জাভির মধ্যে সহকারী কোচ নিয়ে প্রাথমিক আলাপের খবরটি সত্য। তবে আর্থিক বিষয়াদি, চুক্তির শর্ত—এসব নিয়ে গভীর কোনো আলোচনা হয়নি।’

default-image

সব গুঞ্জনই নিশ্চিত হলো গতকাল। জাভি নিজেই নিশ্চিত করলেন, ‘হ্যাঁ, আমি ব্রাজিলের সঙ্গে কোচিং দলের সদস্য হওয়া নিয়ে কথা বলেছিলাম। তারা চেয়েছিল আমি যেন তিতেকে সাহায্য করি। আর বিশ্বকাপের পর পুরোপুরিভাবে যেন ব্রাজিল দলের দায়িত্ব নিই।’


কিন্তু আল সাদের পর জাভি যে বার্সেলোনাতেই যাবেন, সেটা একরকম মনস্থির করেই ফেলেছিলেন যেন। ফলে খালি হাতেই ফিরতে হয়েছে ব্রাজিলকে, ‘আমার স্বপ্ন ছিল বার্সেলোনায় আসা। আমি প্রস্তুত, আত্মবিশ্বাসী। আমার কাছে মনে হয়েছে এটাই বার্সায় আসার উপযুক্ত সময়।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন